শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:০৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বগুড়ার শেরপুরে আওয়ামী লীগ নেতা অভিকে কুপিয়ে হত্যা। কালের খবর শাহজাদপুরে সাফ বিজয়ী আঁখি খাতুনকে সংবর্ধনা। কালের খবর টাকায় ঘোরে যশোর সদর হাসপাতালের ট্রলি ও হুইল চেয়ার। কালের খবর রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর ৭৬তম জন্মদিন উদযাপন। কালের খবর শ্রমিক নেতার আড়ালে মাদকের কারবার : আটক ৩। সখীপুরে ঘরের বেড়া কেটে স্বর্ণালংকারসহ নগদ টাকা চুরি। কালের খবর সকল অশুরী শক্তিকে উৎখাত করে আমাদের কে এগিয়ে যেতে হবে : রনজিৎ কুমার রায় (এমপি)। কালের খবর শেখ হাসিনার জন্মদিনে বৃক্ষরোপণ করেছে সামসুল হক খান স্কুল অ্যান্ড কলেজ। কালের খবর সোনারগাঁয়ে সড়ক নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ। কালের খবর কে এই জাকির চেয়ারম্যান! এমপি-পুলিশের টাকার রক্ষক এখন ভক্ষক। কালের খবর
মিরপুরের দারুসসালাম থানার এসআই রেজাউল করিম ও তার সোর্স ২০ পিস ইয়াবা দিয়ে ইমরানকে ফাঁসানোর অভিযোগ। কালের খবর

মিরপুরের দারুসসালাম থানার এসআই রেজাউল করিম ও তার সোর্স ২০ পিস ইয়াবা দিয়ে ইমরানকে ফাঁসানোর অভিযোগ। কালের খবর

বিশেষ প্রতিনিধি, কালের খবর :

রাজধানীর মিরপুরের দারুসসালাম থানার এসআই রেজাউল করিম ও তার সোর্স মিলে ২০ পিস ইয়াবা দিয়ে ইমরান’নামে এক ব্যক্তিকে ফাঁসানোর অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, গত শনিবার (৩০ জুলাই) দারুসসালাম থানাধীন বাতেননগর এলাকায় নিজ বাসা হতে ইমরান (২১) নামে এক যুবককে আনুমানিক বিকেল ৩টার দিকে দারুসসালাম থানায় কর্মরত এসআই রেজাউল করিম ২০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতারের করেন। পরদিন বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটে থানা হেফাজত থেকে ছেড়ে দেয়া হয় ইমরানকে। ইমরানকে ফাঁসাতে এসআই রেজাউল করিমের সোর্স রাজাকে ব্যবহার করেন, যে একাধিক মাদক মামলার আসামি।

পুলিশের সোর্স রাজা এবং ইমরান একই বাসায় ভাড়া থাকেন। রাজা পরিকল্পিতভাবে তার স্ত্রীর মাধ্যমে ওই বাসার ফ্রিজের ওপর রাখা ফুলের টবে পূর্বেই রেখে যায় মাদক। তারপর এসে আই রেজাউল ইমরানের বাসায় ঢুকে এবং সেই ইয়াবার ব্যবসা করে বলে তার ঘর সার্চ করার নাটক করে ফুলের টবের ভেতর থেকে ইয়াবা উদ্ধার করে।

এ ঘটনা গণমাধ্যমকর্মীরা জেনে গেলে পুনঃতদন্তের মাধ্যমে সহকারী পুলিশ কমিশনার (দারুসসালাম জোন) মিজানুর রহমানে তদন্তে কোন মতে রেহাই পায় ইমরান। রাতে সোর্স রাজা পুলিশের সামনেই ইমরানকে শারীরিকভাবে হেনস্থা করে ও ডান কানে সজারো থাপ্পর ও ঘুষি মারে। থানা হেফাজতে থাকাকালীন রাতে ঘরের তালা ভেঙে ইমরানের বাসায় রাখা স্বর্ণালঙ্কার ও মালামাল লুট করে পালিয়ে যায় সোর্স রাজা। ঘটনায় নির্দোষ প্রমাণ হলেও মোটা অংকের অর্থ ঘুষ গ্রহণের কথাও শোনা যাচ্ছে। এছাড়াও থানা এলাকায় বিভিন্ন হোটেল, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে নিয়মিত মাসোয়ারা আদায়ের অভিযোগ রয়েছে ওই এসআই রেজাউল করিমের বিরুদ্ধে।

এ বিষয়ে এসআই রেজাউল করিমের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমি এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া কথা বলতে পারব না। আর এ অভিযোগ সঠিক নয়।

এ বিষয়ে সহকারী পুলিশ কমিশনার (দারুসসালাম জোন) মিজানুর রহমান বলেন, বিষয়টি আমি জানতে পেরেছি। সঠিক তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com