রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৪:১৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আখাউড়ায় আইনমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে ঝাড়ু মিছিল। কালের খবর বোয়ালমারীতে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত আনিসুজ্জামানের মতবিনিময়। কালের খবর বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর হামলার অভিযোগ আ.লীগের বিরুদ্ধে। কালের খবর নারায়ণগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে সবুজকে অপসারণ : ভারপ্রাপ্ত শাওন স্বপন কুমার সাহা সভাপতি ও স্বপন সূত্রধর সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত। কালের খবর ইসরায়েলের পার্লামেন্ট ভেঙে গেল, তত্ত্বাবধায়ক প্রধানমন্ত্রী লাপিদ। কালের খবর দৈনিক কালবেলার সম্পাদক হলেন আবেদ খান তাড়াশ উপজেলায় ঐতিহ্যবাহি প্রাচীনতম নওগাঁর পশুর হাট জম জমাট ভাবে জমে উঠেছে। কালের খবর খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাবেক সভাপতির মৃত্যুতে বিএমএসএফ’র শোক। কালের খবর কদমতলীতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে স্থাপনা নির্মাণ ও হামলা পুলিশ নীরব
যশোরের কেশবপুরে ভাড়াটিয়ার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ।

যশোরের কেশবপুরে ভাড়াটিয়ার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ।

হাফিজুর শেখ কেশবপুর (যশোর) প্রতিনিধি: যশোরের কেশবপুর শহরের প্রাণ কেন্দ্র কাঁচা বাজারে এক ভাড়াটিয়া প্রভাব খাটিয়ে মালিক সেজে দীর্ঘ ১৮ বছর ধরে জমি অবৈধভাবে ভোগ দখলে রেখেছেন। জমির মালিক আদালতের রায়ে জমির দখল নিতে গেলে ভয়ভীতি ও হুমকি দিয়ে তাড়িয়ে দেয়া হচ্ছে।

বুধবার উপজেলার দেউলী গ্রামের লুৎফর রহমান কেশবপুর প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব অভিযোগ করেন।
লিখিত বক্তব্য পাঠকালে তিনি বলেন, ১৯৮৬ সালে পৌর এলাকার মধ্যকুল গ্রামের কার্তিক চন্দ্র সরকারের কাছ থেকে কেশবপুর শহরের কাঁচা বাজারের ৮ শতক জমি ক্রয়সহ ঘর নির্মাণ করে ভোগ দখল করছেন। যার দলিল নং- ১৯৮৬ ও ২৬০৭। বিগত ২০০৭ সালে লুৎফর রহমান তার জমিতে নির্মিত দোকানঘর স্ট্যাম্পে স্বাক্ষরসহ চুক্তিপত্র করে ভাড়া দেন আইয়ুব হোসেন, অরুন কুমার পাল, বরুন কুমার পাল, কামরুল ইসলাম ও শাহাবউদ্দীনের কাছে
কয়েক মাস ঘর ভাড়া দেয়ার পর ওই জমি সরকারি সম্পত্তি দাবি করে আইয়ুব হোসেনসহ ভাড়াটিয়ারা ঘর ভাড়ার চুক্তিপত্র অস্বীকার করে লুৎফর রহমানকে ওই ঘরের ভাড়া দেয়া বন্ধ করে দেয়। এরপর থেকে অবৈধ ভাড়াটিয়া হিসেবে আইয়ুব হোসেনসহ ভাড়াটিয়ারা ওই ঘর জবর দখলে রাখার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়ে একের পর এক মামলা করে লুৎফর রহমান গাজীকে হয়রানি করতে থাকেন।
এনিয়ে ভাড়াটিয়ারা ২০০৭ ও ২০১৬ সালে সহকারি জজ আদালতে দুইটি দেওয়ানী মামলা করলেও রায় লুৎফর রহমানের পক্ষে যায়। আদালতে রায় পাওয়ার পরও ওই জমি লুৎফর রহমান গাজীকে বুঝে দেয়া হচ্ছে না। রায়ের কপি নিয়ে জমির ওপর গেলে তাকে ও তার পরিবারের সদস্যদের মারপিটসহ খুন জখমের হমকি দিচ্ছে ভাড়াটিয়ারা বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়।
এদিকে, গত কাল অবৈধ ভাড়াটিয়ারা দোকান ঘর ভাঙচুর ও আগুন লাগিয়ে লুৎফর রহমান ও তার পরিবারকে ফাঁসানোসহ প্রশাসনিক হয়রানি চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন।
তিনি জমির দখল বুঝে পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, আব্দুল খালেক, শামছুর গাজী, এনামুল হক প্রমুখ।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com