সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১২:১৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুরে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী’র ফুডপ্যাক বিতরণ। কালের খবর বন্যা দুর্গত মানুষের পাশে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ। কালের খবর খ্যাতিমান সাংবাদিক সানাউল্লাহ নূরীর মৃত্যুবার্ষিকী। কালের খবর কুষ্টিয়ায় এশিয়ান টিভির প্রতিনিধির ওপর সন্ত্রাসী হামলা। কালের খবর জগন্নাথপুরে অব্যাহত ভারী বর্ষণ ও ঢলের পানিতে বড় বন্যার শঙ্কা। কালের খবর সম্পত্তি ও জানমালের নিরাপত্তার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা। কালের খবর জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর
ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কে গর্ত খানাখন্দে ভরা চরম ভোগান্তিতে এলাকাবাসী। কালের খবর

ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কে গর্ত খানাখন্দে ভরা চরম ভোগান্তিতে এলাকাবাসী। কালের খবর

বড় বড় গর্ত ও খানাখন্দে ভরা ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কে ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই গর্তে পানি জমে যানবাহন পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারায়। খানাখন্দ ও কর্দমাক্ত ওই সড়কে মানুষ এবং যানবাহনের স্বাভাবিক চলাচল বিঘ্নিত হচ্ছে। সড়কটিতে ধীরগতির উন্নয়ন কাজ ও বিদ্যুতের খুঁটি অপসারণসহ নানা অব্যবস্থাপনায় ভোগান্তির মাত্রা আরও বেড়েছে। এজন্য ঢাকা সড়ক বিভাগ, বিদ্যুৎ বিভাগ ও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের খামখেয়ালিকেই দায়ী করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সরেজমিন দেখা গেছে, গত সাড়ে ৯ মাস ধরে চলা ধীরগতির উন্নয়ন কাজে ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টিতে পানি জমে কর্দমাক্ত হয়ে পড়ে সড়কটি। এতে যানবাহন চলাচলে ভোগান্তি বেড়ে যায় কয়েকগুণ। দুর্ঘটনার শিকার হন যাত্রী ও যান চালকরা। ডেমরার সুলতানা কামাল সেতু থেকে শুরু করে যাত্রাবাড়ী সড়কের স্টাফ কোয়ার্টার, বামৈল, বাঁশেরপুল, কোনাপাড়া, মৃধাবাড়ী ও ভাঙ্গাপ্রেস পর্যন্ত এলাকায় সড়কে চোখে পড়ে নানা অব্যস্থাপনা। সড়ক সংস্কারের নামে অপরিকল্পিতভাবে যত্রতত্র খোঁড়াখুঁড়ির কারণে বড় বড় গর্ত ও খানাখন্দ তৈরি হয়েছে। ডেমরার স্টাফ কোয়ার্টার এলাকায় শনিবারও একটি পিকআপ গর্তে পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারায়। এতে সড়কে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়। গত সপ্তাহে কোনাপাড়া এলাকাতেও একই অবস্থা দেখা গেছে।

গর্তে পড়া পিকআপের চালক ইব্রাহিম যুগান্তরকে বলেন, পোলট্রি মুরগি ডেলিভারি দিতে ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়ক দিয়ে চলাচল করতে হয় প্রতিনিয়ত। কিন্তু আতঙ্কে থাকি। প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হই। অন্যান্য যানবাহনও গর্তে পড়ে দীর্ঘ সময় আটকে যানজটের সৃষ্টি করে।

ডেমরা জোনের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর (টিআই) জিয়া উদ্দিন বলেন, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের উন্নয়নকাজ খুবই ধীরগতিতে চলছে বলে ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা অনেকটাই ব্যাহত হচ্ছে।

ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তমা গ্রুপের প্রজেক্ট ম্যানেজার মো. সেলিম বলেন, সড়কের উন্নয়নকাজ চলাকালে নানা ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হবে এটাই স্বাভাবিক। জনদুর্ভোগ এড়াতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় আমরা প্রতিনিয়ত রিপেয়ারিং (সংস্কার) কাজ করি। যখন যেখানেই সমস্যা দেখা দেয় তখনই কাজ শুরু করে দেই। ট্রাফিক বিভাগের মাধ্যমে খবর পেলেও দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

সূত্র জানায়, ৩৩২ কোটি টাকা বরাদ্দের ১৮ মাস মেয়াদি ৫ দশমিক ৫ কিলোমিটার ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের চারলেন উন্নয়নকাজ শুরু হয় গত বছর। কিন্তু ধীরগতির কারণে সড়কে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়েছে।

ঢাকা সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) উপবিভাগীয় প্রকৌশলী এমদাদুল হক যুগান্তরকে বলেন, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের উন্নয়নকাজ দ্রুত ও নিয়ম অনুযায়ী করা হচ্ছে। সড়কে ড্রেনেজ ব্যবস্থা, বিদ্যুতের শত শত খুঁটি অপসারণ ও বিদ্যুৎ ব্যবস্থা ঠিক রেখে পরিকল্পিতভাবে উন্নয়নকাজ করতে হয়। সংশ্লিষ্ট সব বিষয়ের সঙ্গে সমন্বয়ভিত্তিক কাজ করা হচ্ছে বলে কিছুটা সময় লাগবেই। তবে নির্দিষ্ট সময়েই সব কাজ শেষ হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com