শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
২২ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক দুই

২২ হাজার পিস ইয়াবাসহ আটক দুই

 

 

রাজধানীর বনানীর আমতলী এলাকায় ২২ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ দুই মাদক কারবারিকে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশান ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-১)।

শনিবার (২১ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় আমতলী এলাকার ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়।
র‌্যাব-১-এর স্কোয়াড কমান্ডার (সিপিসি-১) সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) মো. কামরুজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।
আটক দুই মাদক কারবারি হলো চট্টগ্রামের লোহাগড়া থানার আব্দুল্লাহ আল সাঈদী (২৫) ও মো. আব্দুল্লাহ (২২)।

অভিযানে তাদের কাছ থেকে ২২ হাজার ৩৩০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ৩টি মোবাইল ফোন ও নগদ ১ হাজার ৮০০ টাকা জব্দ করা হয়। ইয়াবা ট্যাবলেট পরিবহনে ব্যবহৃত একটি প্রাইভেটকার জব্দ করেছেন র‌্যাব-১ সদস্যরা।
এএসপি মো. কামরুজ্জামান জানান, আটক ব্যক্তিরা দীর্ঘদিন ধরে মাদকের কারবার করে আসছিল। এই চক্রের মূল হোতা কক্সবাজারের এক ব্যক্তি। তারা মিয়ানমার থেকে নদীপথে ইয়াবা দেশে নিয়ে আসে। এরপর রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় সরবরাহ করে আসছিল।
তিনি জানান, আটক সাঈদী প্রাইভেটকার চালক। অর্থের লোভে গত ৬-৭ মাস ধরে সে মাদকের চালান বিভিন্ন জায়গাতে পৌঁছে দিচ্ছিল। এ পর্যন্ত ৮-১০টি চালান সে সরবরাহ করেছে বলে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছে। চালানপ্রতি সে ৪০-৫০ হাজার টাকা করে নিতো। আটক আব্দুল্লাহও পেশায় প্রাইভেটকার চালক। সে সাঈদীর মাধ্যমে এই চক্রে যুক্ত হয়েছে। সে সাঈদীর সহযোগী হিসেবে কাজ করতো। চালানপ্রতি সে পেতো ৩০-৩৫ হাজার টাকা।
এএসপি মো. কামরুজ্জামান জানান, জিজ্ঞাসাবাদে আটক ব্যক্তিরা অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিয়েছে। এই চক্রের অন্য সদস্যদের গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে। আটক ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও জানান র‌্যাবের এই কর্মকর্তা।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com