মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ০২:৩৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বেগমকে ঘর দেয়ার আশ্বাস নবীনগরে আবারো আধিপত্য বিস্তারে তুচ্ছ ঘটনায় সংঘর্ষ। কালের খবর মুন্সীগঞ্জ লৌহজংবাসী পদ্মার রাক্ষুসে থাবায় দিশেহারা। কালের খবর তাড়াশে মহেশরৌহালী গ্রামের প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের বেহাল দশা। কালের খবর মেঘনার অস্বাভাবিক জোয়ারে ডুবেছে গ্রামের পর গ্রাম। কালের খবর সাংবাদিকরা পারে ক্ষমতাহীনদের ক্ষমতাবান করতে : তথ্যমন্ত্রী। কালের খবর নবীনগর আঞ্চলিক কথা গ্রুপের উদ্যোগে দুটি অসহায় পরিবারের মাঝে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান। কালের খবর সখীপুরে গরুর লাথি খেয়ে আহত ১৩ জন হাসপাতালে। কালের খবর মেয়ের শ্বশুরবাড়ি ট্রাকভর্তি উপহার পাঠিয়ে চমকে দিলেন বাবা। কালের খবর জীবন অগাধ : আলাউদ্দিন খাঁর বড় ছেলে। কালের খবর
সরকার রাজীবের চিকিৎসা ভার বহন করবে এবং সুস্থ হলে চাকরির ব্যবস্থা করবে : স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

সরকার রাজীবের চিকিৎসা ভার বহন করবে এবং সুস্থ হলে চাকরির ব্যবস্থা করবে : স্বাস্থ্য মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের খবর  :

দুই বাসের চাপায় সরকারি তিতুমীর কলেজের স্নাতকের ছাত্র রাজীব হোসেনের হাত হারানোর ঘটনায় আদালতের নির্দেশের পরও যোগাযোগ করেনি ‘স্বজন’ পরিবহন কম্পানি। তবে বিআরটিসি কর্তৃপক্ষ রাজীবের আত্মীয়দের সঙ্গে যোগাযোগ করে ২০ হাজার টাকা দিয়েছে।

এ ছাড়া গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাজীবকে দেখতে যান। তিনি জানান, সরকার রাজীবের চিকিৎসা ভার বহন করবে এবং সুস্থ হলে চাকরির ব্যবস্থা করবে।

রাজীবের চিকিৎসার জন্য সাত সদস্যের একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এদিকে অভিযুক্ত দুই বাসচালককে আদালতের মাধ্যমে গতকাল দুই দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। প্রথম দিনের জিজ্ঞাসাবাদে চালকরা ‘এটি নিছক দুর্ঘটনা!’ বলে নিজেদের দায় এড়ানোর চেষ্টা করছে বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তারা।

ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন রাজীবকে দেখতে গিয়ে তাঁর পাশে প্রায় আধাঘণ্টা অবস্থান করেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম। এ সময় তিনি রাজীবের মাথায় হাত বুলিয়ে সান্ত্বনা দেন এবং তাঁর চিকিৎসার খোঁজখবর নেন।

পরে মন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘ঘটনাটি দুঃখজনক। আগেই সে মা-বাবাকে হারিয়েছে।

সে এখন এতিম। শমরিতা হাসপাতালের যে বিল হয়েছে, তা খতিয়ে দেখা হবে এবং প্রয়োজনে তা সরকার পরিশোধ করবে। ’
রাজীব সুস্থ হওয়ার পর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে তাঁর চাকরির আশ্বাস দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘রাজীব সুস্থ হওয়ার পর মেডিক্যাল বোর্ড যদি মনে করে, তার হাত পুনঃস্থাপন করা যাবে, তাহলে সরকারের পক্ষ থেকে এ ব্যবস্থাও নেওয়া হবে। ’ আর যাদের দোষে রাজীব হাত হারিয়েছে তাদের আইনের আওতায় আনার জন্য সব ধরনের সহযোগিতারও আশ্বাস দেন মন্ত্রী।

এ ছাড়া রাজীবকে দেখতে হাসপাতালে যান বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ। তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘এ ঘটনার জন্য দায়ী চালকের বিরুদ্ধে শুধু ব্যবস্থা নিলেই হবে না, পরিবহন কম্পানির লাইসেন্স বাতিল করতে হবে। এতে দৃষ্টান্ত স্থাপিত হবে। তারা আর বেপরোয়া গাড়ি চালিয়ে মানুষের জীবন বিপন্ন করতে সাহস পাবে না। ’

রাজীবের চিকিৎসা নিয়ে তাঁর স্বজনরা দিশাহারা। রাজীবের খালা জাহানারা বেগম বলেন, ‘যাদের কারণে এ ঘটনা তারা একটু খোঁজও নেয়নি! বিআরটিসি বাসের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলেও স্বজন পরিবহনের হদিস নেই। অথচ তাদেরই বেশি দোষ। বিআরটিসির লোকজন ২০ হাজার টাকা দিয়েছে। ’ তিনি জানান, রাজীব বিআরটিসি বাসের গেটে দাঁড়িয়ে ছিলেন। এ সময় পেছনে থাকা স্বজন পরিবহনের বাসটি বিআরটিসি বাসকে ওভারটেক করতে যায়। এতেই রাজীবের হাত হারাতে হয়।

বিআরটিসি বাসের অপারেশন ম্যানেজার মো. মনিরুজ্জামান দাবি করেন, তাঁদের বাসের দোষ ছিল না। তাঁদের বাসটি দাঁড়িয়েই ছিল। স্বজন পরিবহনের বাসটি এসে তাঁদের বাসকে ওভারটেক করার সময় রাজীবের হাত চাপা পড়ে। এতেই হাত হারান তিনি।

তবে মনিরুজ্জামান বলেন, ‘আদালতের আদেশ আমাদের কাছে পৌঁছেনি। আদেশ পেলে সে অনুযায়ী কাজ করব। ’
ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দীন জানান, রাজীবের চিকিৎসায় অর্থোপেডিক বিভাগের প্রধান অধ্যাপক শামসুজ্জামান শাহীনকে প্রধান করে গতকাল সকালে সাত সদস্যের একটি মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়েছে। নিউরোসার্জারি, মেডিসিন, প্লাস্টিক সার্জারিসহ বিভিন্ন বিভাগের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা এ বোর্ডে আছেন।

মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক শামসুজ্জামান বলেন, সিটিস্ক্যান করে রাজীবের মাথায় কিছু সমস্যা পাওয়া গেছে। তবে তা বড় কিছু নয়। তাঁর হাতের ক্ষতস্থানে আরো দুইবার অস্ত্রোপচার করতে হতে পারে।

দুর্ঘটনার দিন গত মঙ্গলবারই বিআরটিসি বাসের চালক ওয়াহিদ এবং বুধবার স্বজন পরিবহনের বাসের চালক খোরশেদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ঢাকা মহানগর পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার বলেন, রাজীবের হাত হারানোর ঘটনায় মামলা হয়েছে। তদন্তে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

শাহবাগ থানায় হওয়া মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আফতাব আলী জানান, দুই চালককে গতকাল ঢাকার মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে তিন দিন করে রিমান্ড আবেদন করা হয়। আদালত দুজনের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। দুই চালকের ভাষ্য সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে তারা বেপরোয়া প্রতিযোগিতার বিষয়টি অস্বীকার করে দুর্ঘটনা বলে দাবি করছে। তবে সাক্ষীসহ বিভিন্ন বিষয় আছে। এখনো তাদের লাইসেন্স যাচাই করা হয়নি। সেগুলোও করা হবে। ’

গত মঙ্গলবার বিআরটিসির একটি দোতলা বাসের পেছনের ফটকে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিতুমীর কলেজের স্নাতকের (বাণিজ্য) দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র রাজীব। ওই বাসটি বাংলামোটর থেকে কারওয়ান বাজর সিগন্যালে এসে দাঁড়ানোর পর পেছন থেকে বাঁ দিক দিয়ে স্বজন পরিবহনের একটি বাস (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৯১১৯) সেটির আগে ওঠার (ওভারটেক) চেষ্টা করে। তখন দুই বাসের প্রবল চাপে রাজীবের ডান হাত কনুইয়ের অংশে শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

রাজীবের চিকিৎসা ব্যয় ওই দুই বাস মালিককে বহন করতে গত বুধবার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এ ছাড়া হাইকোর্ট রাজীবকে কেন এক কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন। 

কালের খবর  -/৬/৪/১৮

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com