বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৯:২৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
রাজনগরে চাঁদা না দেওয়ায় প্রবাসীর পিতা গৃহবন্দি। কালের খবর ছাই হওয়া স্বপ্ন গড়লেন লাগালেন এমপি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন’। কালের খবর বাঘারপাড়ায়-পদ্মা সেতু উদ্বোধনের আনন্দে এলাকাবাসী কে মিষ্টি খাওয়ালো (চায়ের দোকানদার) মারজোন মোল্লা। কালের খবর কানাইঘাটে বিএমএসএফ ও রেড ক্রিসেন্টের যৌথ উদ্যোগে বন্যার্তদের ফ্রি চিকিৎসাসহ ঔষধ বিতরণ। কালের খবর সরকার সারা দেশে যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন করছে : প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর শাহজাদপুরে বাধা দেয়ার পরও সহবাস করায় ব্লেড দিয়ে স্বামীর লিঙ্গ কর্তন করলো স্ত্রী!। কালের খবর পদ্মাসহ সকল সেতুতে সাংবাদিকদের টোল ফ্রি করা উচিৎ: বিএমএসএফ। কালের খবর বৃহত্তর ডেমরার যাত্রাবাড়ি বর্ণমালা স্কুলের অধ্যক্ষ ও সভাপতির দুর্নীতি তদন্তে কমিটি গঠন। কালের খবর স্বপ্নের পদ্মা সেতু দেখা হলো না শিশু নাসিমের। কালের খবর তাড়াশ উপজেলায় পাট কাটার ধুম পরেছে। কালের খবর
ধীরগতির উন্নয়নে ডেমরা-যাত্রাবাড়ী ৬ লেন সড়কে চলাচলকারীদের ভোগান্তি চরমে

ধীরগতির উন্নয়নে ডেমরা-যাত্রাবাড়ী ৬ লেন সড়কে চলাচলকারীদের ভোগান্তি চরমে

এম আই ফারুক, (ডেমরা) ঢাকা :

রাজধানীর ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের ৬ লেন উন্নয়ন প্রকল্পের কাজের ধীরগতিতে মানুষের ভোগান্তি চরম আকার ধারণ করেছে বলে অভিযোগ এলাকাবাসী, যাত্রী ও পরিবহণ শ্রমিকদের। আর এ ধীরগতির অন্যতম কারণ ওই সড়কে থাকা শত শত বিদ্যুতের খুঁটি। আর্থিক জটিলতায় এসব খুঁটি অপসারণ করা হচ্ছে না। ফলে এ সড়কে চলাচলকারীদের নিত্যসঙ্গী ধুলাবালি আর প্রচণ্ড যানজট।
ঢাকা সড়ক বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের উন্নয়ন কাজটি ১৮ মাস মেয়াদে সম্পন্ন করার জন্য ৩৩২ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। সাড়ে ৮ মাস আগে শুরু হয়েছে ৫.৫ কিলোমিটার সড়কের প্রধান চার লেনসহ দুটি সার্ভিস লেন উন্নয়ন কাজ। বর্তমানে সড়কটির কাজ শেষ হয়েছে মাত্র ৪০ শতাংশ। সড়কটিতে শুরু হওয়া ১০টি আন্ডারপাস ও একটি ওভারপাসের কাজের ৮টি শেষের দিকে। তিনটি ট্রান্সফরমারসহ বৈদ্যুতিক খুঁটির কারণে সড়কের মৃধাবাড়ী এলাকায় একটি আন্ডারপাসের কাজ সম্পন্ন করা যাচ্ছে না। মাতুয়াইল কাউন্সিল এলাকায় বৈদ্যুতিক খুঁটি মাঝে রেখেই কাজ করা হচ্ছে। সড়ক উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায় বিকল্প রাস্তা করা হয়েছে, এতে সড়কে প্রচুর ধুলাবালির সৃষ্টি হয়েছে।
এ বিষয়ে সড়ক উন্নয়নের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তমা গ্রুপের প্রজেক্ট ম্যানেজার সেলিম রেজা বলেন, সড়ক উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায় সড়কে নানা প্রতিবন্ধকতা দেখা দেবে এটা স্বাভাবিক। তবে সড়কে প্রতিনিয়ত পানি দেওয়া হচ্ছে।
তমা গ্রুপের প্রকৌশলী বেলায়েত হোসেন বলেন, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের কাজ প্রথমে দ্রুতগতিতেই চলছিল। সড়কের বামৈল এলাকা থেকে অনেক কষ্টে ডাম্পিং স্টেশন অপসারণ করে সড়কে রূপান্তর করা হয়েছে। কিন্তু বিদ্যুতের খুঁটি অপসারণ করা হচ্ছে না বলে আমরা অনেক পিছিয়ে যাচ্ছি।
সরেজমিন দেখা গেছে, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কের দুপাশে ও মাঝে ৩৩ হাজার, ১১ হাজার ও ৪৪০ ভোল্টের বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনসহ অন্তত আড়াইশ বিদ্যুতের খুঁটি রয়েছে।
ঢাকা সড়ক বিভাগের অভিযোগ, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কে পড়া বিদ্যুতের খুঁটিগুলো অপসারণের জন্য প্রথমে ১৩ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। এর মধ্যে ঢাকা সড়ক বিভাগ ২ বছর আগেই চেকের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিভাগকে ১১ কোটি টাকা পরিশোধ করে। পরে খুঁটি অপসারণ বাবদ এ বরাদ্দ বাড়িয়ে ১৪ কোটি ৬৫ লাখ টাকা করা হয়। তাই বর্ধিত বরাদ্দের এ টাকা সংশোধনী প্রক্রিয়া সমাধান করে পরিশোধ করে দেওয়া হবে। টাকা পেয়েও খুঁটিগুলো অপসারণ করার কথা থাকলেও বিদ্যুৎ বিভাগ সড়ক থেকে খুঁটি অপসারণের কোনো কাজ করছে না। তবে বিদ্যুৎ বিভাগের দাবি বরাদ্দের সব টাকা পাওয়ার পরই তারা কাজ শুরু করবে।
এ বিষয়ে ঢাকা সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজ) উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো. এমদাদুল হক বলেন, ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কটির উন্নয়ন কাজ যথাসময়ে শেষ করা সম্ভব হবে না বলে মনে হচ্ছে। এক্ষেত্রে সড়কে থাকা বিদ্যুতের খুঁটিগুলো অনেক আগেই পরিকল্পিতভাবে অপসারণ করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি।
এ বিষয়ে ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের (ডিপিডিসি) নির্বাহী প্রকৌশলী এমএ ছাত্তার মিয়া বলেন, খুঁটি অপসারণে ইতোমধ্যে অফিসিয়াল নানা প্রক্রিয়া শেষে বিদ্যুৎ বিভাগ কাজ শুরু করেছে কাজলা এলাকায়। এক্ষেত্রে নতুন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের ব্যবস্থা করেই সড়কে থাকা খুঁটিগুলো থেকে দ্রুত লাইনগুলো সরিয়ে নেয়া হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com