শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:২৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মানিকগঞ্জে ব্যবসায়ীকে মারধর, দোকানপাট বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ। কালের খবর পুলিশ চাইলে সব পারে- দুই ঘন্টায় হারানো মোবাইলসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র উদ্ধার। কালের খবর সখীপুরে টিনের বেড়া কেটে দোকানের মালামাল লুট। কালের খবর অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে অনুষ্ঠান বর্জন সাংবাদিকদের। কালের খবর সিরাজগঞ্জে চলনবিলে শামুক-ঝিনুক নিধন করছে অসৎ ব‍্যবসায়ীরা। কালের খবর। মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ইউপি চেয়ারম্যনের বিরুদ্ধে নারীকে ধর্ষন ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ। কালের খবর বিরামপুরে মহা সড়ক ঢাকা মোড়ে পাথরবাহী ট্রাকের চাঁপায় ডিভাইডার ভেংঙ্গে যাতায়াতের দূর্ভোগ। কালের খবর বাঘারপাড়ায় ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ এর (এজেন্ট ব্যাংক ) শাখার উদ্বোধন। কালের খবর রসে ভরা টস টসে ভিটামিন সি, যুক্ত পেয়ারার উপকারিতা। কালের খবর দালাল ছাড়া হালাল হয় না কিছুই। কালের খবর
আইনশৃংখলা রক্ষায় পুলিশের যা করা দরকার পুলিশ তাই করেছে …স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

আইনশৃংখলা রক্ষায় পুলিশের যা করা দরকার পুলিশ তাই করেছে …স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কালের খবর প্রতিবেদক : নয়াপল্টনে বিএনপিন নেতাকর্মীদের ওপর লাঠিচার্জ ও জলকামান ব্যবহার প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, অনুমতি ছাড়া রাস্তা বন্ধকরে সমাবেশ করায় জনগণের দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। এজন্য যা করা দরকার পুলিশ তাই করেছে।

শনিবার দুপুরে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আইনশৃঙ্খলা সমন্বয় কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, ‘বিএনপির কোনো শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনে আমরা কখনও বাধা দিচ্ছি না। কিন্তু কেউ যদি মাত্রাতিরিক্ত করে জনগণের দুর্ভোগ বাড়িয়ে দেয় তখনই আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যে কাজটি করার দরকার সে কাজটি করে থাকে।’

গত ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেয় আদালত। এছাড়া রায়ে তারেক রহমানসহ অন্য পাঁচ আসামির ১০ বছরের কারাদণ্ড ও দুই কোটি ১০ লাখ টাকা অর্থদণ্ড করা হয়। রায়ের পর থেকেই ধারাবাহিকভাবে নানা কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি। ঢাকা ও ঢাকার বাইরে আট দিন কর্মসূচি পালন করে বিএনপি। রাজধানীতে মিছিল, মানববন্ধন, অবস্থান, অনশনের মতো কর্মসূচি নির্বিঘ্নেই পালন করে দলটি।
তবে ২২ ফেব্রুয়ারি সমাবেশের ঘোষণা দিয়েও সেই কর্মসূচি পালন করতে পুলিশের অনুমতি না মেলায় আজ কালো পতাকা প্রদর্শনের কর্মসূচি দেয় বিএনপি। কিন্তু পুলিশের লাঠিপেটায় বিএনপির কর্মসূচি পণ্ড হয়ে যায়।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘জনগণের দুর্ভোগ থেকে ঢাকার ওই এলাকাটি রক্ষা করার দরকার ছিল, তাই পুলিশ সেই কাজটিই করেছে।’

সাবেক ডেপুটি স্পিকার অধ্যাপক আলী আশ্রাফ এমপি, অধ্যাপক নুরুল ইসলাম মিলন এমপি, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি ড. মনির-উজ-জামান, কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর আলম ও পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেনসহ স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তা ও দলীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com