রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বার আউলিয়া হাইওয়ে পুলিশের রমরমা ঘুষ বাণিজ্য। কালের খবর বিএফইউজের সভাপতি ওমর ফারুক, মহাসচিব দীপ আজাদ। কালের খবর আ.লীগ নেতা আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ। কালের খবর ওয়াজ মাহফিলে রাষ্ট্র বিরোধী কোন বক্তব্য বরদাস্ত করা হবেনা–ধর্ম প্রতিমন্ত্রী। কালের খবর জনতা ব্যাংক লিমিটেড, মেহেরপুর শাখার উদ্যোগে অটোমেটেড চালান প্রক্রিয়ার উদ্বোধন। কালের খবর শ্রীমঙ্গলে স্কুলের সরকারি বই বিক্রি দিলেন প্রধান শিক্ষক। কালের খবর দুই শতাধিক বিদ্যুতের খুঁটিতে ব্যাহত হচ্ছে ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়ক উন্নয়ন কাজ পূর্বাচলে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী কেন্দ্রের উদ্বোধন। কালের খবর কোটালীপাড়ায় শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিন পালিত। কালের খবর বেলকুচিতে বাল্যবিয়ে দেয়ার অপরাধে কনের পিতার কারাদন্ড। কালের খবর
৩৩ বার বিদেশ গমন অতঃপর গ্রেফতার

৩৩ বার বিদেশ গমন অতঃপর গ্রেফতার

কালের খবর প্রতিবেদক : রাজধানীর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বহির্গামী যাত্রীর জুতায় বিশেষ কায়দায় লুকানো বিপুল সৌদি রিয়াল ও মালয়েশিয়ান রিংগিত উদ্ধার করা হয়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে ওই যাত্রীকে।

১৬ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার দিবাগত রাতে কামরুল ইসলাম নামের ওই যাত্রীকে গ্রেফতার করা হয়।

কামরুল ইসলামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জ সদর উপজেলায়। তার পাসপোর্ট নম্বর বিএন ০১৯০২৩৭।

শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদফতরের মহাপরিচালক মইনুল ইসলাম খান জানান, ওডি-১৬৫ নম্বর ফ্লাইটে করে ঢাকা থেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার কথা ছিল কামরুলের। শুক্রবার রাত পৌনে ১২টার দিকে তার পাসপোর্ট পরীক্ষা করে দেখা যায়, তিনি চলতি বছরের জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারিতে চারবার ও গত বছর ৩৩ বার বিদেশ গমন করেছেন।
জিজ্ঞাসাবাদ করে জানা যায়, তিনি বাংলাদেশ থেকে মুদ্রা পাচার করে মালয়েশিয়ায় বিক্রি করেন। সেখান থেকে দেশে আসার সময় ল্যাপটপ, কসমেটিকস, সিগারেটের মতো পণ্য নিয়ে আসার উদ্দেশ্যে মুদ্রাগুলো অবৈধভাবে বহন করছিলেন। ইতোপূর্বে তিনি এভাবে ১০ থেকে ১১ বার মুদ্রা বহন করেছিলেন।

যেভাবে গ্রেফতার

মইনুলের ভাষ্য, শুল্ক গোয়েন্দারা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই যাত্রীকে আগে থেকেই নজরদারিতে রেখেছিলেন। ইমিগ্রেশন পরবর্তী ৮ নম্বর বোর্ডিং গেটের মাধ্যমে বোর্ডিং সম্পন্ন করলে শুল্ক গোয়েন্দারা তার কাছে কোনো বৈদেশিক মুদ্রা আছে কি না, তা জানতে চান। জবাবে তিনি না থাকার কথা জানান। পরবর্তী সময়ে তার দেহ তল্লাশি করে জুতার ভেতর বিশেষ কায়দায় কাগজে মুড়ানো অবস্থায় বৈদেশিক মুদ্রা পাওয়া যায়।

শুল্ক গোয়েন্দা অধিদফতরের মহাপরিচালক জানান, ব্যাগেজ কাউন্টারে কামরুলকে এনে বিভিন্ন সংস্থার উপস্থিতিতে তার জুতার ভেতর কাগজে মুড়ানো থাকা ৭০ হাজার সৌদি রিয়াল ও ২ হাজার ২০০ মালয়েশিয়ান রিংগিত উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি বৈদেশিক মুদ্রা বহনের বিষয়টি অস্বীকার করে যাচ্ছিলেন। পরে তাকে শাহজালালের কাস্টমস হলে নিয়ে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সে সময় তিনি বিষয়টি স্বীকার করেন।

মহাপরিচালক মইনুল জানান, বাংলাদেশি টাকায় এসব মুদ্রার পরিমাণ ১৫ লাখ ৮৬ হাজার ২০০ টাকা। ঘোষণা ছাড়া এসব মুদ্রা বহন ও লুকানোয় বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন ও শুল্ক আইন ভঙ্গ হয়েছে। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে যাত্রীকে শুল্ক আইন ও অর্থপাচার প্রতিরোধ আইনে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে ।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com