রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১০:২৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কোটাবিরোধী আন্দোলন-আবারও রাজনীতির মাঠে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। কালের খবর চালের দাম আরও বাড়লো, সবজি আলু পেঁয়াজেও অস্বস্তি। কালের খবর খুনি ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত সাংবাদিকের আহাজারি। কালের খবর বন্দরে ৬ প্রতারকের বিরুদ্ধে আদালতে চাজশীট দাখিল। কালের খবর মুরাদনগরে মাদক বিরোধী সমাবেশ। কালের খবর সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ঠিকাদারদের সাথে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ”র মতবিনিময় সভা-সম্পন্ন। কালের খবর গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর
ডেমরায় যুবলীগ নেতার সিন্ডিকেটে সড়কে ময়লার ভাগাড়

ডেমরায় যুবলীগ নেতার সিন্ডিকেটে সড়কে ময়লার ভাগাড়

ডেমরায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নজরদারি না থাকায় আবর্জনা অপসারণের কতিপয় অসাধু যুবলীগ নেতার সিন্ডিকেট সড়কের ওপরেই ফেলছে গৃহস্থালি বর্জ্য। প্রায় প্রতিটি সড়কই যেন পরিণত হয়েছে ময়লার ভাগাড়ে। ডেমরার সাবেক সারুলিয়া ইউনিয়নের ২, ৩ ও ৪নং ওয়ার্ড এলাকা নিয়ে গঠিত ঢাকা দক্ষিণ সিটি কপোরেশনের (ডিএসসিসি) ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডটি। এর মধ্যে পড়েছে শুকুরসী জোকা, সান্দিরা জোকা তিতাস কলোনি, সান্দিরা জোকা মৌজার অংশ (পূর্ব-পশ্চিম বক্সনগর ও করিম কলোনি), সারুলিয়া টেংরা (দক্ষিণ, পশ্চিম ও বাহির টেংরা)। এতে ভোটার ২৭ হাজার হলেও ২ লক্ষাধিক মানুষের বাস। সংসদীয় ঢাকা-৫ আসনের ডিএনডির ভেতরের এই এলাকার বাসিন্দাদের নাগরিক দুর্ভোগেরও শেষ নেই।

সরেজমিন দেখা গেছে, পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি নিষ্কাশন খালের পাড় ঘেঁষা ওয়ার্ডের গলাকাটা এলাকায় রানীমহল টু চিটিগাং রোড সড়কের ওপরেই দেদার গৃহস্থালির আবর্জনা ফেলা হচ্ছে। এতে পরিবেশ দূষিত হওয়ার পাশাপাশি ময়লার দুর্গন্ধে অতিষ্ঠ পথচারীসহ এলাকাবাসী। ময়লা সিন্ডিকেটের স্বঘোষিত নিয়ম অনুযায়ী এসব আবর্জনা দ্রুত সিটি করপোরেশনের গাড়ি এসে নিয়ে যাওয়ার কথা থাকলেও নজরদারি না থাকায় দিনের পর দিন সড়কেই পড়ে থাকে। পাশাপাশি এ ওয়ার্ডে অবস্থিত প্রভাতি, আল আকসা ও মোহাম্মদী স্টিল নামে তিনটি রোলিং মিলের কালো ধোঁয়ার কারণে এখানকার বাতাসই যেন বিষে পরিণত হয়েছে। ওয়ার্ডের নিম্নাঞ্চলগুলোতে জলজট, বিদ্যুৎজট, খানাখন্দ ও কাঁচা নিচু সড়ক, অতিরিক্ত মশা-মাছি, বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রব, নোংরা পরিবেশসহ রয়েছে নানা নাগরিক সমস্যা। এ ছাড়া মাদক-সন্ত্রাস, প্রভাবশালী মহলের অধিপত্য বিস্তার ও আওয়ামী যুবলীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে নিরপত্তাহীন এখানকার মানুষ।

জানা যায়, ৬৭ নম্বর ওয়ার্ডের আবর্জনা অপসারণে সিটি করপোরেশন থেকে বছরভিত্তিক ইজারা আনে রাসেল বক্স নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির মালিকাধীন মেসার্স মা এন্টারপ্রাইজ নামে একটি প্রতিষ্ঠান। এলাকার আওয়ামী যুবলীগের প্রভাবশালী সিন্ডিকেটের মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট নারী কাউন্সিলর এই বর্জ্য বাণিজ্যের সঙ্গে জড়িত। ফলে সড়কেই আবর্জনা ফেলে প্রতিনিয়ত পরিবেশ নষ্ট করলেও তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার কেউ নেই। ডিএসসিসির বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের (অঞ্চল-৫ দায়িত্বপ্রাপ্ত অঞ্চল-৮) সহকারী প্রধান মো. সাহাবুদ্দিন অবশ্য বলেন, ‘বর্তমানে ময়লা অপসারণের গাড়ির সংকট থাকায় কিছুটা সমস্যা হলেও দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। তবে সংশ্লিষ্টরা নিয়মবহির্ভূত কাজ করলে তাদের সতর্ক করা হবে। এমনভাবে বর্জ্য রাখতে হবে যাতে জনসাধারণের কোনো সমস্যা না হয়।’

এলাকাবাসীর অভিযোগ, ওয়ার্ডের গলাকাটা পুল এলাকা থেকে ঐতিহ্যবাহী দারুন্নাজাত মাদ্রাসা, পূর্ব-বক্সনগর, টেংরা, দক্ষিণ টেংরা, পশ্চিম বক্সনগর, আমতলা, মহাকাশ রোড ও পূর্ব ডগাইর এলাকায় জোরপূর্বক অভ্যন্তরীণ সড়ক দখল করে বসানো হয়েছে ড্রেজার পাইপ। এতে অভ্যন্তরীণ সড়কগুলোতে যানবাহন ও মানুষের স্বাভাবিক চলাচল অসহনীয় মাত্রায় ব্যাহত হচ্ছে। প্রায়ই প্রাইভেটকারসহ বিভিন্ন যানবাহন আটকে যায় এসব পাইপের কারণে। মূলত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের ছত্রছায়ায় ও ঢাকা-৫ আসনের সাংসদের নাম ভাঙিয়ে স্থানীয় নেতারা ড্রেজার পাইপ বসিয়ে নিয়ন্ত্রণ করছেন ওই অঞ্চলের বালুমহাল। বিষয়টি জেনেও থানাপুলিশ ও সিটি করপোরেশন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এ বিষয়ে ডিএসসিসির অঞ্চল-৮ আঞ্চলিক কার্যালয়ের নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘সড়ক দখল করে ড্রেজার পাইপ বসানোর কোনো নিয়ম নেই। বিষয়টি যেহেতু জেনেছি তাই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নিয়ে এ বিষয়ে জরুরি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

নানা অনিয়ম ও অব্যস্থাপনার কাছে নিজের অসহায়ত্বের কথা জানিয়েছেন খোদ ডিএসসিসির ৬৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইব্র্র্রাহিম। তিনি বলেন, ‘এখানে নাগরিক সুবিধাগুলো নিশ্চিত করা হচ্ছে। তবে অবৈধ ড্রেজার পাইপ বসিয়ে সড়কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টির বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের নিষেধাজ্ঞা দিলেও তারা আমার কোনো কথা শুনেনি। পরবর্তীতে এ বিষয়ে আমি ডিএসসিসির মেয়র ও স্থানীয় সাংসদের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। জড়িতরা তাদের কথাও রাখেনি। এখানে প্রভাবশালীদের কাছে জিম্মি দশায় রয়েছি আমরা। পাশাপাশি আবর্জনা অপসারণের বিষয়ে সংশ্লিষ্টরা কোনো কথা শোনে না।’

এ বিষয়ে ঢাকা-৫ আসনের সংসদ সদস্য কাজী মনিরুল ইসলাম মনু মোবাইল ফোনে বলেন, ‘নগর যুবলীগ নেতারা কিছুদিন আগে শীতলক্ষ্যা নদীতে ড্রেজার বসিয়ে ডিএসসিসির নিচু অঞ্চলগুলো ভরাট করতে চেয়েছেন। এ বিষয়ে আমি কোনো অনুমোদন দেইনি। তাই ড্রেজার চালানোর বিষয়ে আমার দেওয়া কোনো অনুমোদনপত্রও দেখাতে পারবেন না কেউ। আর ড্রেজারের সঙ্গে জড়িতদের নামগুলো আমাকে দিলে আমি ডেমরা থানার ওসির মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্থা নেব।’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com