বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ, তদন্ত করছে দুদক ও মাউশি। কালের খবর তাড়াশে সেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কালের খবর যশোর সদরে ইউপি নির্বাচন ৫ জানুয়ারি। কালের খবর কুমড়া বড়ি তৈরি করতে ব‍্যস্ত তাড়াশের কারিগররা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় চেয়ারম্যান প্রর্থীসহ আহত ২০-অফিস ভাংচুর। কালের খবর যশোর সদর হাসপাতালে দালালদের কাছে জিম্মি রোগীরা। কালের খবর উৎপাদনে নতুন ‘দেশি মুরগি’, ৮ সপ্তাহে হবে এক কেজি। কালের খবর ইউপি নির্বাচনে শাহজাদপুরের ১০ ইউনিয়নে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা। কালের খবর যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর জাতীয় শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত। কালের খবর
শীতের শুরুতই তীব্র গ্যাস সংকট, বিপাকে ডেমরা এলাকার গৃহিণীরা। কালের খবর

শীতের শুরুতই তীব্র গ্যাস সংকট, বিপাকে ডেমরা এলাকার গৃহিণীরা। কালের খবর

 
শীতে মৌসুমের শুরুতে রাজধানীর ডেমরা ও পাশ্ববর্তী এলাকাগুলোতে তীব্র গ্যাস সংকট দেখা দিয়েছে। শীত জেঁকে বসতে না বসতেই নগরীর বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় গ্যাস সংকটে সমস্যা হচ্ছে। নিত্যদিনের রান্নাসহ গৃহস্থালীকর্মে নগরের বেশিরভাগ এলাকায় গ্যাসের চুলা কখনো জ্বলছে, কখনো জ্বলছে না। আবার কখনো নিবু নিবু করছে। এতে বিপাকে পড়ছেন গৃহিণীরা। ডেমরার অধিকাংশ এলাকায় সকাল থেকে বিকেল অবধি গ্যাসের চাপ নেই বললেই চলে। ফলে বাধ্য হয়ে রাতে অথবা কাকডাকা ভোরে দিনের রান্নার কাজ শেষ করছেন গৃহিণীরা।

জানা গেছে, ডেমরা এলাকার কোনাপাড়া, শাহজালাল রোড, ডগাই ব্যাংক কলোনি, মদিনাবাগ, বাশেরপুল, বড়ভাঙ্গা, গ্রিনসিটি, মোমেনবাগ, আল আমিন রোড, বক্রনগর, হিজলতলা, খন্দকার রোড, ইস্টান হাউজিং ডগাইসহ ডেমরার বিভিন্ন এলাকায় গ্যাসের এ সংকট চলছে।

শাহজালাল রোডের বাসিন্দা সান্তা জামান জানান, কোনাপাড়া শাহজালাল রোড এলাকায় সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত গ্যাস থাকে না। এতে আমরা রান্না-বান্না করতে অনেক সমস্যায় পড়তে হয়েছে। এ বিষয়ে তিতাস গ্যাসের কর্মকর্তাদের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।

বামৈল এলাকার ভাড়াটিয়া নারিগিস আক্তার বলেন, আমাদের এলাকায় গ্যাস না থাকায় আমরা মারত্মক সমস্যার মধ্যে পড়তে হয়েছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে এ এলাকা ছেড়ে অন্য এলাকায় বাসা ভাড়া নিতে হবে।

বাশেরপুল এলাকার বাসিন্দা পারভিন আক্তার বলেন, সকাল বেলা কম বেশি সবারই রান্না বান্না করতে হয়। এই সময়টাতে যদি গ্যাস না থাকে তখন কেমনটা লাগে! সকাল ৮টা না বাজতেই গ্যাস উধাও হয়ে যায় গ্যাস আসে দুপুর ২টায়। এ অবস্থা আর ভালো লাগে না।

কোনাপাড়া এলাকার ভাড়াটিয়া আজিজুল হক জানান, গ্যাসের সমস্যার জন্য এই এলাকা থেকে বাসা ছাড়ার পরিকল্পনা নিচ্ছেন। আগামী মাসে অন্যত্র ভাড়া নেওয়ার জন্য চিন্তা ভাবনা করছেন তিনি।

পূর্ব বক্সনগর এলাকার বাসিন্দা মিম আক্তার বলেন, বকুলতলা এলাকায় সকাল থেকে দুইটা পর্যন্ত গ্যাস না থাকায় অনেক সময় হোটেল থেকে খাবার কিনে খেতে হয় আমাদের। উম্মে হানি জানান, এলাকায় গত এক সপ্তাহ যাবৎ গ্যাসের জন্য হাহাকার চলছে। সূর্য উঠার আগেই রান্না সেরে অন্য কাজ করতে হয়।

গ্যাসের এ সংকট প্রসঙ্গে জানতে চাইলে টিকাটুলি জোনের তিতাস গ্যাসের জেনারেল ম্যানেজার কাবির মিয়া কালের কণ্ঠকে বলেন, কিছুদিন যাবৎ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা থেকে গ্যাস স্বল্পতা সংক্রান্ত অভিযোগ পেয়েছি। প্রতিবছর শীতকালে গ্যাস লাইনের পাইপে বরফ জমে গ্যাসের সরবরাহের গতি কমে যায় এতে অনেক এলাকায় গ্যাসের সমস্যা হয়।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com