শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১২:৫৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
প্রেমের টানে কাঁটাতার পেরিয়ে বাংলাদেশে, অতঃপর। কালের খবর

প্রেমের টানে কাঁটাতার পেরিয়ে বাংলাদেশে, অতঃপর। কালের খবর

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি || কালের খবর :

প্রেমের টানে সীমান্তের কাঁটাতারের বাধা পেরিয়ে সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলায় এসেছেন ভারতীয় তরুণী মঞ্জুরা বেগম  (২০)।

মঙ্গলবার (১৫ সেপ্টেম্বর) উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের কলাউড়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের (২৭) বাড়িতে আসেন এই তরুণী। এসে ধর্মীয় বিধানে বিয়েও করেছেন। কিন্তু তারপরও তাকে যেতে হয়েছে কারাগারে।

 মঞ্জুরা বেগম ভারতের আসাম প্রদেশের কামরুক জেলার চাংসারি থানার টাপার পাথার গ্রামের মুগুর আলীর মেয়ে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালে একটি মামলার আসামি হয়ে বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে ভারতের আসামে গিয়েছিলেন আব্দুস সাত্তার। সেখানে সাত্তারের সঙ্গে পরিচয় হয় মঞ্জুরা বেগমের। এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বছর খানেক পর সাত্তার চলে আসে দেশে। এরপর সংসারের হাল ধরতে চলে যায় বাহরাইনে। তারপরও  মোবাইল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের সম্পর্ক ঠিকে থাকে। ইদানিং মঞ্জুরা বেগমের বিয়ের জন্য প্রস্তাব আসতে থাকে। মঞ্জুরা এ সব জানায় বাহরাইনে অবস্থানরত সাত্তারকে। পরে মঞ্জুরাকে  বাড়ির ঠিকানা দেয় সাত্তার। সেই ঠিকানা ধরে বাংলাদেশে চলে আসে ওই তরুণী।

সাত্তারের  ছোট ভাই  ইমরান সীমান্ত থেকে তাকে বাড়িতে নিয়ে আসে। পরে মঞ্জুরা বেগমের সঙ্গে মোবাইলে বাহরাইনে অবস্থানরত সাত্তারের বিবাহ হয়।

কিন্তু কাঁটাতারের সীমানা বাধা হয়ে দাঁড়াল তাদের জীবনে। বিনা পাসপোর্টে সীমান্ত পাড়ি দেওয়ার অভিযোগে বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর)  দুপুরে বিজিবি আটক করে মঞ্জুরা বেগমকে। পরে দোয়ারাবাজার থানায় মামলা দিয়ে পুলিশে হস্তান্তর করে।

 বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন দোয়ারাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নাজির আলম। তিনি জানান, তরুণীর বিরুদ্ধে বিজিবি বাদী হয়ে বিনা পাসপোর্ট ও অনুমতি ছাড়া বাংলাদেশে প্রবেশ করার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছে। ওই তরুণীকে বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com