সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০৯:১১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কোটাবিরোধী আন্দোলন-আবারও রাজনীতির মাঠে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। কালের খবর চালের দাম আরও বাড়লো, সবজি আলু পেঁয়াজেও অস্বস্তি। কালের খবর খুনি ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত সাংবাদিকের আহাজারি। কালের খবর বন্দরে ৬ প্রতারকের বিরুদ্ধে আদালতে চাজশীট দাখিল। কালের খবর মুরাদনগরে মাদক বিরোধী সমাবেশ। কালের খবর সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ঠিকাদারদের সাথে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ”র মতবিনিময় সভা-সম্পন্ন। কালের খবর গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর
অনাহারে-অর্ধহারে কাটছে লৌহজং এর ১০ ইউনিয়ন বাসীর। কালের খবর

অনাহারে-অর্ধহারে কাটছে লৌহজং এর ১০ ইউনিয়ন বাসীর। কালের খবর

লৌহজং থেকে শেখ মো:সোহেল রানা, কালের খবর : লৌহজং ১০টি উইনিয়নের নিম্ন আয় এবং মধ‍্যবিওদের দিন কাটছে অনাহারে অর্ধহারে:১০টি ইউনিয়ন নিয়ে লৌহজং উপজেলা উইনিয়ন সমূহ(১)বেজগাও(২)কুমারভোগ (৩)হলদিয়া(৪)মেদিনীমন্ডল(৫)কনকসার(৬)লৌহজংতেউটিয়া (৭)খিদিরপাড়া(৯)গাওদিয়া(১০)কলমা। সর্বনাশা পদ্মার ছোবলে শিকার ৬টি ইউনিয়ন লাখে মানুষ আরও আছে ৪টি আশ্রয় প্রকল্প১১০টি পরিবারের মানুষ।পদ্মার বিলীন হয়ে যাওয়া মানুষ গুলো আশ্রয় নিয়েছে ভিন্ন ইউনিয়নে,বেশীর ভাগ মানুষ নিম্ন আয়ের কিছু আছে মধ্যেবিও। যারা প্রবাসী আয়ের টাকা পরিবারের খরচ চলে।কিছু আছে ভূমিহীন ভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে বসবাস করে।অনেকের সাথে আলোচনা করে জানাযায় ২০মার্চ করোনা ভাইরাসের প্রাদূভাবে কর্মহীন মানুষের মাজে লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ কাবিরুল ইসলাম খান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি)মু.রাশেদজ্জামান কিছু সংখ্যা পরিবারের ১০কেজি চাউল,তেল,লবন,সাবান,আলু,চিনিও মাস্ক নিত্য প্রয়োজনীয় দিয়েছেন।বিওশালী ব‍্যাক্তিবর বিভিন্নভাবে খাদ‍্য ও অর্থ দিয়েছে কিন্তু অনেকে সহয়তা কথা স্বীকার করলেও অনেক অস্বীকার করেছেন।সালেহা বেগম(কুমারভোগ) করোনা শুরুতে ১০কেজি চাউল পেয়েছে স‍্যারেরা দিয়েছে।তারপর কেউ আমাদের কোন খোঁজ খবর নেননি।আমার স্বামী মারা গেছে।ছেলে আছে বিদেশ টাকা দিতে পারে না।এখন খেতে পারি না।চেয়ারম‍্যান আমাদের আইডি কার্ড নিয়েছে কোন সাহায্য সহযোগিতা করে নাই।এমদাদুল(হলদিয়া)বলেন আমরা গরীব মানুষ দিনমজুর কাজ করতাম করোনার ভাইরাসের কারণে সব কাজ বন্ধ।ঘরে চাল নাই অনাহারে দিন কাটে।এ পর্যন্ত যারা খাদ্য সহয়তা দিয়েছে সে গুলো খুবই সামান্য।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com