সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কোটাবিরোধী আন্দোলন-আবারও রাজনীতির মাঠে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। কালের খবর চালের দাম আরও বাড়লো, সবজি আলু পেঁয়াজেও অস্বস্তি। কালের খবর খুনি ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত সাংবাদিকের আহাজারি। কালের খবর বন্দরে ৬ প্রতারকের বিরুদ্ধে আদালতে চাজশীট দাখিল। কালের খবর মুরাদনগরে মাদক বিরোধী সমাবেশ। কালের খবর সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ঠিকাদারদের সাথে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ”র মতবিনিময় সভা-সম্পন্ন। কালের খবর গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর
কমলগঞ্জে ভুয়া মসজিদের ইমাম সেজে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক গ্রহণ করা নিয়ে এলাকায় তোলপাড়। কালের খবর

কমলগঞ্জে ভুয়া মসজিদের ইমাম সেজে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক গ্রহণ করা নিয়ে এলাকায় তোলপাড়। কালের খবর

এম এ কাদির চৌধুরী ফারহান, কালের খবর: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে ভুয়া মসজিদের নাম ও ইমাম সেজে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক গ্রহণ করা নিয়ে এলাকায় চরম তোলপাড় দেখা দিয়েছে।

জানা যায়, কমলগঞ্জ উপজেলার রহিমপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ডের্র কালেঙ্গা গ্রামে দক্ষিণ কালেঙ্গা জামে মসজিদের ভুয়া নাম ও ইমাম সেজে সরকারী অনুদানের চেক গ্রহণ করেন ওই এলাকার কেরামত আলী নামে এক হুজুর। তিনি কোন মসজিদের ইমাম-মোয়াজ্জিন নয় তারপরও ভুয়া মসজিদের নাম দিয়ে ৬জুন বিকালে মসজিদ ভিত্তিক নগদ ৫ হাজার টাকার চেক গ্রহণ করেন, যা নিয়ে এলাকায় তোলপাড় শুরু হয়েছে।

আলাপপকালে কালেঙ্গা গ্রামের কয়েকজন ইমাম জানান, কেরামত আলী মসজিদের ইমাম সেজে ভুয়া নামে মসজিদ দেখিয়ে এই অনুদানের চেক গ্রহণ করে সরলমনা মানুষকে ধোকা দিয়েছেন।

এ বিষয়ে কেরামত আলীর সাথে এ প্রতিনিধি মোঠফোনে কথা বললে চেক গ্রহনের কথা স্বীকার করে বলেন আমি একজন ইমাম। এছাড়াও চেক আমি ফিরত দিয়ে দিয়েছি বলেই কথা বলা বন্ধকরে ফোনের লাইন কেটে দেন।

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মুজিবুর রহমান বলেন, দক্ষিণ কালেঙ্গা জামে মসজিদ নামে আমার এলাকায় কোন মসজিদ নেই। এই নাম ব্যবহার করে কি ভাবে উনি (কোরামত আলী) চেক গ্রহণ করলেন সেটা আমার জানা নেই। তবে আজ কমলগঞ্জ উপজেলা র্নিবাহী র্কমর্কতা বিষয়টি আমাকে জানালে আমি কেরামত আলীর কাছ থেকে চেক উদ্বার করে কমলগঞ্জ উপজেলা র্নিবাহী র্কমর্কতার অফিসে জমা দিয়েছি।

এ বিষয়ে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আশেকুল হক বলেন, সাংবাদিকদের মাধ্যমে সংবাদ পেয়ে ৭ জুন দুপুরে দ্রুত চেকটি উদ্বার করে নিয়ে আসি।
তিনি আরো জানান, কেরামত আলীর বিরুদ্বে বাল্যবিবাহ সহ একাধিক অভিযোগ রয়েছে।
এছ্ড়াও তিনি বলেন, কেরামত আলীর বিরুদ্বে তদন্ত পুর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com