শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১০:৫৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের এক কাটুন ক্যানোলা সহ ঝাড়ুদার আটক। কালের খবর

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের এক কাটুন ক্যানোলা সহ ঝাড়ুদার আটক। কালের খবর

মিহিরুজ্জামান জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা , কালের খবর : সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের সাধারণ রোগিদের জন্য ব্যবহৃত সরকারি এক কাটুন আইভি ক্যানোলা সহ চুরিকৃত মাল দোকানে বিক্রির সময় সদর হাসপাতালের ঝাড়দার কে আটক করে পুলিশে দিয়েছে জনতা। সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের সামনেই এই ঘটনা ঘটে। ধৃতের নাম বিশু দাস। সে সাতক্ষীরা শহরের পলাশপোল গ্রামের রণজিত দাসের ছেলে। সদর হাসপাতালের সামনের মা সার্জিক্যাল দোকানদার ইব্রাহিম খলিল জানান, সদর হাসপাতালের ঝাড়দার বিশু মিয়া হাসপাতাল থেকে সরকারি ভাবে বরাদ্দকৃত এক কাটুন আইভি ক্যানোলা চুরি করে হাসপাতালের সামনের দোকান আহসান সার্জিক্যাল এ পৌছে দেয়ার জন্য একটি ভ্যানে করে পাঠায়। কিন্তু ভ্যানচালক ভুল করে আহসান সার্জিক্যালে না যেয়ে মা সার্জিক্যালে যেয়ে আহসান সার্জিক্যাল খোঁজ করে। বিষয়টি নিয়ে তার সন্দেহ হলে কাটুন খুলে দেখে হাসপাতালের সরকারি ক্যানোলা। তখন বিয়ষটি নিয়ে স্থানীয়দের ডেকে ভ্যানওয়ালার দেয়া তথ্যনুযায়ী বিশুকে আটক করে পুলিশে খরব দেয়। সাতক্ষীরা সদর থানার এসআই এনামুল হক তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে পৌছে উক্ত ক্যানোলার কাটুন সহ তাকে আটক করে পুলিশ হেফাজতে নেয়। সিজার লিস্ট সেরে তাকে রাতে থানায় নিয়ে আসে। ঘটনার পরপরই সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. কাফি ঘটনাস্থলে যান। এরপর সিভিল সার্জন ডা. হুসাইন সাফায়াত ঘটনাস্থলে যেয়ে পুলিশকে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলেন। রাতে এসআই এনামুল জানান, ধৃত বিশুকে থানায় আনা হয়েছে। এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। তবে স্থানীয়দের অভিযোগ এঘটনা দীর্ঘদিন ধরে ঘটছে। ঘটনার পেছনে হাসপাতালের স্টোরকিপার জড়িত আছে কি না সে বিষয়ে ক্ষতিয়ে দেখে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী সাধারণ মানুষের।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com