শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১১:২৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
সাতক্ষীরা সদরে বাঁশদহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কর্তৃক মহিলা মেম্বারকে মারপিট ও লাঞ্ছিত। কালের খবর

সাতক্ষীরা সদরে বাঁশদহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কর্তৃক মহিলা মেম্বারকে মারপিট ও লাঞ্ছিত। কালের খবর

জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা থেকে,  কালের খবর : সাতক্ষীরা সদরের বাঁশদহার ইউনিয়ন পরিষদের এবার মহিলা মেম্বর সাবিনা ইয়াসমিনকে বেধড়কসাতক্ষীরা সদরে বাঁশদহার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কর্তৃক মহিলা মেম্বারকে মারপিট ও লাঞ্ছিত মারপিট ও লাঞ্ছিত করেছে ইউনিয়ান পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম মোশাররফ হোসেন।
গত কাল ১৪ জানুয়ারী দুপুর আনুমানিক দুইটার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বাঁশদহা ইউনিয়ন পরিষদে এ ঘটনা ঘটে।
মহিলা মেম্বর সাবিনা ইয়াসমিন বলেন, বাঁশদহা ইউপি চেয়ারম্যান এসএম মোশাররফ হোসেনের কাছে জিম্মি হয়ে পড়েছে বাঁশদহা ইউনিয়নের আপামোর জনসাধারণ। একের পর এক অনিয়ম ও দূর্ণীতি করেই চলেছে মোশাররফ হোসেন।
এক পর্যায়ে ৭ জন ইউপি মেম্বর একত্রিত হয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ করেন। পরবর্তীতে একজন জনপ্রতিনির মধ্যস্ততায় চেয়ারম্যান ও মেম্বরদের মধ্যে আপস-মীমাংসা হয়ে যায়।
এরপর গত মঙ্গলবার চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ইউনিয়ন পরিষদে সাধারণ সভার আহবান করেন। সভায় হাজির হওয়ার সাথে সাথেই চেয়ারম্যান উপস্থিত সদস্যদের গালি দিতে শুরু করেন এবং ইউপি সদস্যদের কাছে থাকা মোবাইল চেয়ারম্যান ও তার সহযোগীরা ছিনিয়ে নেয়। তারপর ইউপি চেয়ারম্যান ও তার গুন্ডাবাহিনী ইট দিয়ে মহিলা মেম্বর সাবিনা ইয়াসমিনকে এলোপাতাড়ি আঘাত করেন। মহিলা সদস্য সাবিনা ইয়াসমিন অজ্ঞান হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে অন্যান্য মেম্বররা তাকে দূরত্ব উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।
সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে একটি লিখিত এজাহার পেয়েছি। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান ৷ ( ছবি আছে)

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com