রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১০:০৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কুমড়া বড়ি তৈরি করতে ব‍্যস্ত তাড়াশের কারিগররা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় চেয়ারম্যান প্রর্থীসহ আহত ২০-অফিস ভাংচুর। কালের খবর যশোর সদর হাসপাতালে দালালদের কাছে জিম্মি রোগীরা। কালের খবর উৎপাদনে নতুন ‘দেশি মুরগি’, ৮ সপ্তাহে হবে এক কেজি। কালের খবর ইউপি নির্বাচনে শাহজাদপুরের ১০ ইউনিয়নে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা। কালের খবর যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর জাতীয় শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত। কালের খবর ডেমরায় শীতের শুরুতেই বাড়ছে শিশুদের মৌসুমি রোগ মানবতা ও আদর্শ সমাজ গঠনে ইসলামপুরে অসহায় দুস্থদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ। কালের খবর ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে দশমিনায় সংবাদ সম্মেলন। কালের খবর
ছেলে ধরার মিথ্যে অভিযোগ- সাংবাদিকের চাঁদা দাবিতে মানববন্ধন। কালের খবর

ছেলে ধরার মিথ্যে অভিযোগ- সাংবাদিকের চাঁদা দাবিতে মানববন্ধন। কালের খবর

অলিউল্লাহ (গোদাগাড়ী) কালের খবর : ছেলে ধরা গুজবের মিথ্যে অভিযোগ দিয়ে এক শিক্ষকের কাছে ৫০০০০ টাকা চাঁদা দাবি করেন পদ্মাটাইমস নিউজ পোর্টালের এর সাংবাদিক বাতেন।সাংবাদিক বাতেন গোদাগাড়ী পৌরসভার আরিজপুর মহল্লার মোঃ মাজেদের ছেলে।অভিযুক্ত শিক্ষকছেলে ধরার মিথ্যে অভিযোগ- সাংবাদিকের চাঁদা দাবিতে মানববন্ধন মনিরুল ইসলাম টাকা দিতে অস্বীকার করলে প্রসাশনকে মিথ্যে তথ্য দিয়ে ২৭/৭/২০১৯ তারিখে তাঁর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।অভিযানকালে মনিরুল ইসলামের বাড়িতে কোন ইস্যু খুঁজে পায়নি পুলিশ।

মনিরুল ইসলাম বলেন, গত ২৮/৭/২০১৯ ইং তারিখে কে বা কারা সাংবাদিক বাতেন কে মারধর করে।আমি সে বিষয়ে কিছুই জানি না।কিন্তু সাংবাদিক বাতেন গত ৩০/৭/২০১৯ ইং তারিখে আমি সহ আরও তিনজনের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দায়ের করেন।এরই ধারাবাহিকতায় আমার শিষার্থীরা এ মানববন্ধনের ডাক দেয়।তাই আমি বলতে চাই এ ধরণের চাঁদাবাজ ও অপ-সাংবাদিকতার বিচার ও শাস্তি চাই।

শিক্ষার্থীরা সাংবাদিক বাতেনের শাস্তির দাবিতে বিভিন্নধরনের লেখা লিফলেট হাতে এ মানববন্ধন করে।তিব্র রোদে পুরে শিক্ষকের অপমানের প্রতিবাদ জানায়।

মানববন্ধনের বিষয়ে মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হায়দার আলির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমি এ বিষয়ে এখন কিছু বলতে চাই না।আমার শারিরীক অবস্থা খুবই খারাপ।

ঐ সময় শিক্ষা অফিসের একজন কর্মকর্তা বলেন,আমি বিষয়টি জানতাম না।স্কুলে এসে দেখি মানববন্ধনের প্রস্তুতি নিচ্ছে শিক্ষার্থীরা।কিন্তু সময়টা স্কুল চলাকালীন সময় তাই, সময়টা দুপুর দুইটা নির্ধারন করা হয়।

উল্লেখ্য, কথিত সাংবাদিক বাতেন নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য শিক্ষক মনিরুল ইসলামকে বিভিন্ন সময় হয়রানি করে থাকেন। প্রসাশনকে মিথ্যে তথ্য দিয়ে বাড়িতে অভিযান, চাঁদা দাবি,মিথ্যে নিউজ করে হয়রানি করেছে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষক মনিরুল ইসলাম।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com