বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:১০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
গাছে গাছে আমের মুকুল, মৌ মৌ ঘ্রাণে ব্যকুল মানুষ। কালের খবর নির্মাণ শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানাল ইনসাব। কালের খবর ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন ২০২৪। কালের খবর মুরাদনগরে কৃষি কার্যক্রম পরিদর্শনে মার্কিন দূতাবাস প্রতিনিধি। কালের খবর কুষ্টিয়ায় বাজার থেকে ক্রয় করা মাংসে মিলল পুরুষাঙ্গ ! কালের খবর চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অতিথি ডটকমের জমকালো ডায়মন্ড সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম। কালের খবর শাহজাদপুরে সরিষা আনতে মাঠে যাচ্ছিলেন হাবিব, হঠাৎ বজ্রপাত। কালের খবর চোর চক্রের তিন সদস্য আটক দুটি মটরসাইকেল উদ্ধার কালের খবর টেকনাফে লক্ষাধিক ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক। কালের খবর একুশের বই মেলায় রাজু আহমেদ মোবারকের ‘সত্য সুন্দরের সন্ধানে’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন। কালের খবর
ছেলে ধরার মিথ্যে অভিযোগ- সাংবাদিকের চাঁদা দাবিতে মানববন্ধন। কালের খবর

ছেলে ধরার মিথ্যে অভিযোগ- সাংবাদিকের চাঁদা দাবিতে মানববন্ধন। কালের খবর

অলিউল্লাহ (গোদাগাড়ী) কালের খবর : ছেলে ধরা গুজবের মিথ্যে অভিযোগ দিয়ে এক শিক্ষকের কাছে ৫০০০০ টাকা চাঁদা দাবি করেন পদ্মাটাইমস নিউজ পোর্টালের এর সাংবাদিক বাতেন।সাংবাদিক বাতেন গোদাগাড়ী পৌরসভার আরিজপুর মহল্লার মোঃ মাজেদের ছেলে।অভিযুক্ত শিক্ষকছেলে ধরার মিথ্যে অভিযোগ- সাংবাদিকের চাঁদা দাবিতে মানববন্ধন মনিরুল ইসলাম টাকা দিতে অস্বীকার করলে প্রসাশনকে মিথ্যে তথ্য দিয়ে ২৭/৭/২০১৯ তারিখে তাঁর বাড়িতে অভিযান পরিচালনা করা হয়।অভিযানকালে মনিরুল ইসলামের বাড়িতে কোন ইস্যু খুঁজে পায়নি পুলিশ।

মনিরুল ইসলাম বলেন, গত ২৮/৭/২০১৯ ইং তারিখে কে বা কারা সাংবাদিক বাতেন কে মারধর করে।আমি সে বিষয়ে কিছুই জানি না।কিন্তু সাংবাদিক বাতেন গত ৩০/৭/২০১৯ ইং তারিখে আমি সহ আরও তিনজনের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দায়ের করেন।এরই ধারাবাহিকতায় আমার শিষার্থীরা এ মানববন্ধনের ডাক দেয়।তাই আমি বলতে চাই এ ধরণের চাঁদাবাজ ও অপ-সাংবাদিকতার বিচার ও শাস্তি চাই।

শিক্ষার্থীরা সাংবাদিক বাতেনের শাস্তির দাবিতে বিভিন্নধরনের লেখা লিফলেট হাতে এ মানববন্ধন করে।তিব্র রোদে পুরে শিক্ষকের অপমানের প্রতিবাদ জানায়।

মানববন্ধনের বিষয়ে মহিশালবাড়ী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হায়দার আলির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমি এ বিষয়ে এখন কিছু বলতে চাই না।আমার শারিরীক অবস্থা খুবই খারাপ।

ঐ সময় শিক্ষা অফিসের একজন কর্মকর্তা বলেন,আমি বিষয়টি জানতাম না।স্কুলে এসে দেখি মানববন্ধনের প্রস্তুতি নিচ্ছে শিক্ষার্থীরা।কিন্তু সময়টা স্কুল চলাকালীন সময় তাই, সময়টা দুপুর দুইটা নির্ধারন করা হয়।

উল্লেখ্য, কথিত সাংবাদিক বাতেন নিজ স্বার্থ হাসিলের জন্য শিক্ষক মনিরুল ইসলামকে বিভিন্ন সময় হয়রানি করে থাকেন। প্রসাশনকে মিথ্যে তথ্য দিয়ে বাড়িতে অভিযান, চাঁদা দাবি,মিথ্যে নিউজ করে হয়রানি করেছে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষক মনিরুল ইসলাম।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com