শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১১:০২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সখীপুরে হায়দার মাস্টার স্মৃতি ফুটবল টুর্নান্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত। কালের খবর যশোরে সন্তানের বায়না পূরণই কাল হলো তহমিনার, স্বামী-সন্তান হারিয়ে নির্বাক। কালের খবর নবীনগরে ২০০ শত বছরের কবরস্থান রক্ষায় গ্রামবাসীর মানববন্ধন। কালের খবর চট্রগ্রামের আলোচিত হত্যা কান্ডের আয়াতের দেহের দুই টুকরার খোঁজ মিলেছে সাগরপাড়ে। কালের খবর মণিরামপুরে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় পিতা পুত্রসহ নিহত ৫। কালের খবর সখীপুরে নাশকতা চেষ্টা মামলায় বিএনপির ৪ নেতা গ্রেপ্তার। কালের খবর সখীপুরে ফাঁসিতে ঝুঁলে যুবকের আত্মহত্যা। কালের খবর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি নোমানী, সম্পাদক সোহেল। কালের খবর রবীন্দ্র কাছারি বাড়িই হবে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি চর্চার অনন্য ক্ষেত্র- সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী। কালের খবর ভোলার ভূমিহীন নেত্রী বকুলকে কুপিয়ে নৃশংস হত্যা ও বড় বোন মুকুল বেগম জখমে ক্ষত-বিক্ষত। কালের খবর
আর কারো সাহায্য-অনুদান লাগবে না মায়া ঘোষের ।। কালের খবর

আর কারো সাহায্য-অনুদান লাগবে না মায়া ঘোষের ।। কালের খবর

কালের খবর রিপোর্ট : নানা অসুখে ভুগে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন অভিনেত্রী মায়া ঘোষ। প্রায় ১৯ বছর তিনি মরনব্যাধি ক্যান্সারের সঙ্গে যুদ্ধ করেছেন। ছিলো লিভার, কিডনি ও হার্টের সমস্যাও।

২০০০ সালে প্রথম ক্যান্সার ধরা পড়ে তার শরীরে। এরপর থেকেই শুরু হয় এই অভিনেত্রীর দহনের দিন। দীর্ঘদিন ধরে চিকিৎসার ব্যয় বহন করতে করতে তার পরিবার আজ নিঃস্ব। হয়নি সঠিক উন্নত চিকিৎসা।

মায়া ঘোষের পুত্র দীপক ঘোষ  বলেন, ‘জীবনের শেষ দিনগুলো খুব কষ্ট করে গেলেন মা। আমরা চেষ্টার কোনো ত্রুটি রাখিনি আমাদের সাধ্য অনুযায়ী। চিকিৎসকরা আরও উন্নত চিকিৎসার কথা বলতেন। তার সামর্থ্য আমাদের ছিলো না।

ধার কর্জা করে মায়ের চিকিৎসা করিয়েছি। সেইসব ঋণ কী করে শোধ করবো জানা নেই। তবু শান্তি পাচ্ছি জীবনের শেষ মুহূর্তটা পর্যন্ত মাকে চিকিৎসা করাতে পেরেছি।’

মায়া ঘোষের ছোট ছেলে প্রদ্যুত ঘোষ জানান, তার মায়ের চিকিৎসার জন্য কয়েক দফায় সহযোগিতা পাওয়া গেছে। শিল্পী ঐক্যজোটের সভাপতি অভিনেতা ডি এ তায়েব ও সাধারণ সম্পাদক নাট্য নির্মাতা জি এম সৈকতের প্রচেষ্টায় প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ৫ লাখ টাকার সহায়তাও পেয়েছিলেন তারা।

এরপর বাকি খরচ নিজেরাই বহন করেছেন। মায়ের চিকিৎসার ব্যায় বহন করতে করতে ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়েছে তার দুই ছেলে দীপক ও প্রদ্যুত। বারবার বিভিন্ন জনের কাছে সাহায্যের আবেদন করেও তেমন সাড়া মেলেনি। অবশেষে সবকিছুরই অবসান হলো।

আর কারো কাছে সাহায্যের আবেদন করতে হবে না মায়া ঘোষের ছেলেদের। আরও কারো কাছে ধারও চাইতে হবে না মায়ের চিকিৎসার খরচ মেটাতে। দীর্ঘদিন রোগে ভুগে চির আরোগ্যের দেশে পাড়ি দিলেন তাদের মা।

দীপক ঘোষ জানান, ‘আজকেই মায়ের শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। যশোরের স্থানীয় শশ্মানে দুপুরের পর আয়োজন শুরু হবে। যারা বিভিন্ন সময় মায়ের পাশে ছিলেন, আমাদের পাশে ছিলেন তাদের সবার কাছে আমরা কৃতজ্ঞ।’

শিল্পী ঐক্যজোটের সাধারণ সম্পাদক নাট্য নির্মাতা জি এম সৈকত নিশ্চিত করলেন, মায়া ঘোষের শেষকৃৃত্যের খরচ হিসেবে ২০ হাজার টাকা অর্থ সহায়তা দিয়েছে শিল্পী ঐক্যজোট।

মায়া ঘোষের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে চলচ্চিত্রাঙ্গনে। তিনি ১৯৮১ সাল থেকে প্রায় ২ শতাধিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। আলমগীর, জসীম, জাফর ইকবাল, ইলিয়াস কাঞ্চনদের মায়ের চরিত্রে মায়া ঘোষ আজও আশি-নব্বই দশকের দর্শকের মনে উজ্জ্বল।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com