মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১, ০৪:৫৪ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নবীনগরের জিনদপুরে যুবদল নেতার বিরুদ্ধে মসজিদের জায়গা দখলের অভিযোগ ! কালের খবর বিয়ের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় নারীকে ছুরিকাঘাতে হত্যা। কালের খবর দুই সেকেন্ডে আলজাজিরার কার্যালয় গুড়িয়ে দিল ইসরাইল (ভিডিও) ধীরে ধীরে উন্নতি হচ্ছে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা : মির্জা ফখরুল ইসলাম। কালের খবর মুন্সীগঞ্জ লৌহজং ফেরিতে হুড়োহুড়িতে প্রাণ গেল ৬ জনের। কালের খবর মুন্সীগঞ্জ লৌহজং মাওয়া শিমুলিয়া ঘাটে ঘর মুখো মানুষের জনসমুদ্র। কালের খবর আসসালামু আলাইকুম, আমি শেখ হাসিনা, দেশবাসীকে শুভেচ্ছা। কালের খবর শাহজাদপুরে লাখো মানুষের পাশে এমপি হাসিবুর রহমান স্বপন। কালের খবর বেনাপোল সীমান্তে ৫ টি পিস্তল ৭ রাউন্ড গুলি উদ্ধার। কালের খবর বাংলাদেশের উন্নয়ন ও শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ অনুসরণ-অনুকরণ করছে : ক্যাপ্টেন তাজ। কালের খবর
তাবলিগের বিরোধ নিয়ে সরকারের পাঁচ নির্দেশনা। কালের খবর

তাবলিগের বিরোধ নিয়ে সরকারের পাঁচ নির্দেশনা। কালের খবর

এম আই ফারুক, কালের খবর :
বন্দ্ব নিরসন এবং সংগঠনের কার্যক্রম সুশৃঙ্খলভাবে পরিচালনার জন্য তাবলিগ জামাতকে সরকার পাঁচটি নির্দেশনা দিয়েছে। ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরিপত্র জারি করে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের তাবলিগ জামাত ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভিকে কেন্দ্র করে দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে গেছে। এ নিয়ে কাকরাইল মসজিদে তাদের মধ্যে ঘটেছে সংঘর্ষের ঘটনাও।

এ অবস্থায় ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দেলোয়ারা বেগমের সই করা পরিপত্রটির প্রথম নির্দেশনায় বলা হয়েছে, তাবলিগের দুটি পক্ষ সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা ও পরামর্শক্রমে কাকরাইল মসজিদ ও টঙ্গী ইজতেমা ময়দানসহ দেশের সব মারকাজে সপ্তাহের ভিন্ন ভিন্ন দিন নিজেদের কার্যক্রম চালাবে। তবে কোনো পক্ষ চাইলে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে পরামর্শ করে মারকাজ ছাড়া অন্য কোনো জায়গায় কার্যক্রম চালাতে পারবে।

দ্বিতীয় নির্দেশনায় বলা হয়েছে, তাবলিগের আদর্শ ও চিরাচরিত রীতিনীতি অনুযায়ী কোনো পক্ষ অন্য পক্ষের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের লিখিত বা মৌখিক অপপ্রচার চালাবে না। তৃতীয় নির্দেশনায় বলা হয়েছে, দেশের সব মসজিদে আগের মতো শান্তিপূর্ণভাবে দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালিত হবে। সে লক্ষ্যে যেকোনো মসজিদে উভয় পক্ষের জামাতই যেতে পারবে। এতে কোনো পক্ষ কাউকে বাধা দেবে না। তবে একই সময়ে দুই পক্ষের দেশি ও বিদেশি জামাত একই মসজিদে অবস্থান করা যুক্তিসংগত হবে না।

চতুর্থ নির্দেশনায় আছে, উভয় পক্ষ তাদের ইজতেমা বা জোড় তাবলিগে দেশি-বিদেশি মুরব্বিদের আমন্ত্রণ জানাতে পারবে। শেষ নির্দেশনায় মন্ত্রণালয় বলেছে, কোনো এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে কোনো বিরোধ দেখা দিলে স্থানীয় প্রশাসন উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com