শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০:৫৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
যশোরের কেশবপুরে শান্তি স্থাপন ও সহিংসতা নিরসনে (পিএফজি, র) সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর রায়পুরার ছাত্রলীগ নেতা মামুনকে জড়িয়ে মিথ্যা ও হয়রানি মূলক ধর্ষণ মামলাসহ একাধিক মামলা করায় সর্বমহলে নিন্দা। কালের খবর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর ৫৬ ধারার প্রয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে.প্রধান অতিথি সিএমপি কমিশনার। কালের খবর সহিংসতা নয়-শান্তির জন্য আমরা-এই শ্লোগান কে সামনে রেখে বাঘারপাড়ায় অনুষ্ঠিত হলো (পিএফজির) সম্মিলিত কার্যক্রম ও পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা। কালের খবর ঢাকা জেলা রেজিস্ট্রার অহিদুল ইসলাম সাময়িক বরখাস্ত। কালের খবর বাঘারপাড়া প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক লক্ষণ চন্দ্র মন্ডলের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক। কালের খবর যুবদের নেতৃত্বে সঠিক কর্মপরিকল্পনা গ্রহনের ফলে , সমাজে সহিংসতা নিরসন ও শান্তি স্থাপন হতে পারে। কালের খবর কোরবানির পশু প্রস্তুত করতে ব্যস্ত সাতক্ষীরার খামারিরা। কালের খবর চট্টগ্রামের ইপিজেডে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন, ঘটনায় জড়িত মূল হোতাসহ ২জন গ্রেপ্তার। কালের খবর রাজধানী ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না : সড়ক পরিবহনমন্ত্রী। কালের খবর
তাবলিগের বিরোধ নিয়ে সরকারের পাঁচ নির্দেশনা। কালের খবর

তাবলিগের বিরোধ নিয়ে সরকারের পাঁচ নির্দেশনা। কালের খবর

এম আই ফারুক, কালের খবর :
বন্দ্ব নিরসন এবং সংগঠনের কার্যক্রম সুশৃঙ্খলভাবে পরিচালনার জন্য তাবলিগ জামাতকে সরকার পাঁচটি নির্দেশনা দিয়েছে। ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে পরিপত্র জারি করে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের তাবলিগ জামাত ভারতের মাওলানা সাদ কান্ধলভিকে কেন্দ্র করে দুটি গ্রুপে ভাগ হয়ে গেছে। এ নিয়ে কাকরাইল মসজিদে তাদের মধ্যে ঘটেছে সংঘর্ষের ঘটনাও।

এ অবস্থায় ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপসচিব দেলোয়ারা বেগমের সই করা পরিপত্রটির প্রথম নির্দেশনায় বলা হয়েছে, তাবলিগের দুটি পক্ষ সংশ্লিষ্ট স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা ও পরামর্শক্রমে কাকরাইল মসজিদ ও টঙ্গী ইজতেমা ময়দানসহ দেশের সব মারকাজে সপ্তাহের ভিন্ন ভিন্ন দিন নিজেদের কার্যক্রম চালাবে। তবে কোনো পক্ষ চাইলে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গে পরামর্শ করে মারকাজ ছাড়া অন্য কোনো জায়গায় কার্যক্রম চালাতে পারবে।

দ্বিতীয় নির্দেশনায় বলা হয়েছে, তাবলিগের আদর্শ ও চিরাচরিত রীতিনীতি অনুযায়ী কোনো পক্ষ অন্য পক্ষের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের লিখিত বা মৌখিক অপপ্রচার চালাবে না। তৃতীয় নির্দেশনায় বলা হয়েছে, দেশের সব মসজিদে আগের মতো শান্তিপূর্ণভাবে দাওয়াতি কার্যক্রম পরিচালিত হবে। সে লক্ষ্যে যেকোনো মসজিদে উভয় পক্ষের জামাতই যেতে পারবে। এতে কোনো পক্ষ কাউকে বাধা দেবে না। তবে একই সময়ে দুই পক্ষের দেশি ও বিদেশি জামাত একই মসজিদে অবস্থান করা যুক্তিসংগত হবে না।

চতুর্থ নির্দেশনায় আছে, উভয় পক্ষ তাদের ইজতেমা বা জোড় তাবলিগে দেশি-বিদেশি মুরব্বিদের আমন্ত্রণ জানাতে পারবে। শেষ নির্দেশনায় মন্ত্রণালয় বলেছে, কোনো এলাকায় দুই পক্ষের মধ্যে কোনো বিরোধ দেখা দিলে স্থানীয় প্রশাসন উভয় পক্ষের বক্তব্য শুনে যথাযথ সিদ্ধান্ত নেবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com