সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০১:৪৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মুরাদনগরে জমকালো আয়োজনে বীর মুক্তিযোদ্ধা সন্তান ফাউন্ডেশনের কার্যালয় উদ্বোধন। কালের খবর নবীনগরে নূরজাহানপুর আশ্রয়ণ প্রকল্পের ৬টি ঘর বিক্রির অভিযোগ। কালের খবর সখীপুরে স্বামী-স্ত্রীর দীর্ঘদিনের কলহের অবসান। কালের খবর এয়ারপোর্টে শুল্ক না দিয়ে বিদেশ থেকে আনা যাবে যে জিনিসগুলো। কালের খবর মুরাদনগরে স্কুল ছাত্রীকে শ্লীলতাহানী করার অভিযোগে যুবক গ্রেপ্তার। কালের খবর ফরিদপুরে মামলার হাজিরা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে কুপিয়ে জখম। কালের খবর প্রধানমন্ত্রীর উপহার সহ, বিভিন্ন ব‍্যক্তি ও প্রতিষ্টানেের শীতবস্ত্র বিতরণ অব‍্যাহত। কালের খবর তাড়াশ উপজেলার মাটি ও আবহাওয়া অনুকূল ভাল থাকায় খিরা চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা। কালের খবর শেখ মনি কিশোর ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২৩ এর শুভ উদ্বোধন। কালের খবর হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে মুরাদনগরে ইউএনও’র তদন্ত : এলাকায় তোলপাড়। কালের খবর
রাক্ষসী পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ নদের ভয়াবহ ভাঙনে হাজার হাজার বিঘা জমি ঘরবাড়িসহ বসতভিটা বিলীন। কালের খবর

রাক্ষসী পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ নদের ভয়াবহ ভাঙনে হাজার হাজার বিঘা জমি ঘরবাড়িসহ বসতভিটা বিলীন। কালের খবর

বসতবাড়ি গিলেই চলেছে পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ 

 মাদারীপুর প্রতিনিধি,  কালের খবর : মাদারীপুরের শিবচরের পদ্মা খাঁ নদের ও আড়িয়াল খাঁ নদের পানিবৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পদ্মার পর এবার আড়িয়াল খাঁ নদের শিবচর অংশে ভাঙন দেখা দিয়েছে।

এতে ৩০টি ঘরবাড়িসহ বসতভিটা বিলীন হয়ে গেছে। এ ছাড়া বিলীন হয়েছে একটি পাকা সড়ক।
ভাঙন প্রতিরোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড বালুর বস্তা ফেললেও তা অপ্রতুল।

এদিকে, পদ্মার ভয়াবহ ভাঙন অব্যাহত থাকায় একই উপজেলার চরাঞ্চলের তিন ইউনিয়নে এ পর্যন্ত চারটি স্কুল, একটি ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং সাত শতাধিক ঘরবাড়িসহ বসতভিটা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মার শিবচর অংশে ছয় সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে স্রোতের তীব্রতা আরো বেড়েছে। একই সঙ্গে আড়িয়াল খাঁ নদে পানিবৃদ্ধির সাথে সাথে তীব্র স্রোত দেখা দিয়েছে। এতে উপজেলার সন্ন্যাসীরচরে শুরু হয়েছে ব্যাপক ভাঙন। ভাঙনে আক্রান্ত হয়ে পাঁচ্চর-সন্ন্যাসীরচর-বন্দরখোলা সড়কের একাংশ নদীতে বিলীন হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ৩০টি ঘরবাড়ি।

হুমকিতে রয়েছে বাজার, ব্রিজ, সড়কসহ অসংখ্য ঘরবাড়ি।
ভাঙন প্রতিরোধে এ অংশে পানি উন্নয়ন বোর্ড বালুর বস্তা ফেললেও প্রয়োজনের তুলনায় তা অপ্রতুল।

অপরদিকে, পদ্মা নদীতেও ভাঙন অব্যাহত থাকায় এ পর্যন্ত নদীগর্ভে চলে গেছে একই উপজেলার চরজানাজাত, বন্দরখোলা ও কাঁঠালবাড়ির চারটি স্কুল, একটি ইউনিয়ন পরিষদ, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ সাত শতাধিক ঘরবাড়ি।

সন্নাসীরচর ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল বেপারী বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে আড়িয়াল খাঁ নদে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। অনেক ঘরবাড়ি, রাস্তা নদীর ভেতর চলে গেছে। ভাঙনরোধে কিছু বালুর বস্তা ফেলা হলেও তা অপ্রতুল। দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। ‘

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com