মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৫১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জাতিসংঘে এবারও বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর প্রথম ধাপের ১৬১ ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা শেষ। কালের খবর যশোরে গ্রাম ডাক্তার কল্যান সমিতির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর শিক্ষামন্ত্রীর অনুষ্ঠানে হট্টগোল : মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর রাগ উগড়ে দিলেন এমপি মনু। কালের খবর বীর মুক্তিযোদ্ধা ছাত্রনেতা শাহাজুল আলমের ৪৬তম মৃত্যার্ষিকী। কালের খবর মানিকগঞ্জে ব্যবসায়ীকে মারধর, দোকানপাট বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ। কালের খবর পুলিশ চাইলে সব পারে- দুই ঘন্টায় হারানো মোবাইলসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র উদ্ধার। কালের খবর সখীপুরে টিনের বেড়া কেটে দোকানের মালামাল লুট। কালের খবর অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে অনুষ্ঠান বর্জন সাংবাদিকদের। কালের খবর সিরাজগঞ্জে চলনবিলে শামুক-ঝিনুক নিধন করছে অসৎ ব‍্যবসায়ীরা। কালের খবর।
রাক্ষসী পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ নদের ভয়াবহ ভাঙনে হাজার হাজার বিঘা জমি ঘরবাড়িসহ বসতভিটা বিলীন। কালের খবর

রাক্ষসী পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ নদের ভয়াবহ ভাঙনে হাজার হাজার বিঘা জমি ঘরবাড়িসহ বসতভিটা বিলীন। কালের খবর

বসতবাড়ি গিলেই চলেছে পদ্মা-আড়িয়াল খাঁ 

 মাদারীপুর প্রতিনিধি,  কালের খবর : মাদারীপুরের শিবচরের পদ্মা খাঁ নদের ও আড়িয়াল খাঁ নদের পানিবৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। পদ্মার পর এবার আড়িয়াল খাঁ নদের শিবচর অংশে ভাঙন দেখা দিয়েছে।

এতে ৩০টি ঘরবাড়িসহ বসতভিটা বিলীন হয়ে গেছে। এ ছাড়া বিলীন হয়েছে একটি পাকা সড়ক।
ভাঙন প্রতিরোধে পানি উন্নয়ন বোর্ড বালুর বস্তা ফেললেও তা অপ্রতুল।

এদিকে, পদ্মার ভয়াবহ ভাঙন অব্যাহত থাকায় একই উপজেলার চরাঞ্চলের তিন ইউনিয়নে এ পর্যন্ত চারটি স্কুল, একটি ইউনিয়ন পরিষদ ভবন, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং সাত শতাধিক ঘরবাড়িসহ বসতভিটা নদীতে বিলীন হয়ে গেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় পদ্মার শিবচর অংশে ছয় সেন্টিমিটার পানি বৃদ্ধি পেয়ে স্রোতের তীব্রতা আরো বেড়েছে। একই সঙ্গে আড়িয়াল খাঁ নদে পানিবৃদ্ধির সাথে সাথে তীব্র স্রোত দেখা দিয়েছে। এতে উপজেলার সন্ন্যাসীরচরে শুরু হয়েছে ব্যাপক ভাঙন। ভাঙনে আক্রান্ত হয়ে পাঁচ্চর-সন্ন্যাসীরচর-বন্দরখোলা সড়কের একাংশ নদীতে বিলীন হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে ৩০টি ঘরবাড়ি।

হুমকিতে রয়েছে বাজার, ব্রিজ, সড়কসহ অসংখ্য ঘরবাড়ি।
ভাঙন প্রতিরোধে এ অংশে পানি উন্নয়ন বোর্ড বালুর বস্তা ফেললেও প্রয়োজনের তুলনায় তা অপ্রতুল।

অপরদিকে, পদ্মা নদীতেও ভাঙন অব্যাহত থাকায় এ পর্যন্ত নদীগর্ভে চলে গেছে একই উপজেলার চরজানাজাত, বন্দরখোলা ও কাঁঠালবাড়ির চারটি স্কুল, একটি ইউনিয়ন পরিষদ, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসহ সাত শতাধিক ঘরবাড়ি।

সন্নাসীরচর ইউপি চেয়ারম্যান বাবুল বেপারী বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরে আড়িয়াল খাঁ নদে ব্যাপক ভাঙন শুরু হয়েছে। অনেক ঘরবাড়ি, রাস্তা নদীর ভেতর চলে গেছে। ভাঙনরোধে কিছু বালুর বস্তা ফেলা হলেও তা অপ্রতুল। দ্রুত কার্যকরী ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। ‘

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com