রবিবার, ১৮ জুলাই ২০২১, ০৫:৪৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
তাড়াশে টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে কামাররা। কালের খবর দেশে বর্তমানে সূর্যমুখী সাংবাদিকতা চলছে : বিএফইউজে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। কালের খবর নবীনগরের নোয়াগ্রামে চলাচলের রাস্তার সীমানা নির্ধারনে জটিলতার ভোগান্তিতে পরেছে ১০টি পরিবার। কালের খবর রাস্তা পাকাকরন ও খাল খনন এর দাবিতে দশমিনায় মানববন্ধন। কালের খবর সিলেটের কানাইঘাটে পাথর ভাঙ্গার ক্রাসার মেশিন অপসারন করেছে পুলিশ। কালের খবর পানিবন্দী অভাবী মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাবেক এমপি কায়সার। কালের খবর নবীনগরে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর বিতর্কিত এএসআই হাকিমকে প্রত্যাহার। কালের খবর থানা-ওয়ার্ডের মসজিদে দোয়া-তবারক বিতরনসহ নানা আয়োজনে শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস পালিত। কালের খবর পাড়া-মহল্লায় নীরব আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় : করোনাকালে ‘রাজনীতিকরা’ মাঠে নেই। কালের খবর নবীনগরে বিতর্কিত এএসআই এর পক্ষে সংবাদ সম্মেলন করেছেন বিতর্কিত আওয়ামী লীগের নেতারা। কালের খবর
বাউফলে অধিকাংশ কমিউনিটি ক্লিনিকের বেহাল দশা। কালের খবর

বাউফলে অধিকাংশ কমিউনিটি ক্লিনিকের বেহাল দশা। কালের খবর

বাউফল (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি, কালের খবর : বাউফল উপজেলার ৪৫টি কমিউনিটি ক্লিনিকের মধ্যে অধিকাংশ ক্লিনিকই সংস্কারের অভাবে বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। ফলে ব্যাহত হচ্ছে চিকিৎসাসেবা। গত বৃহস্পপতিবার সকালে উপজেলার দাসপাড়া চরআলগী, নওমালা আদাবাড়িয়া এবং বাউফলে বিভিন্ন কমিউনিটি ক্লিনিকে সরেজমিনে দেখা গেছে, ছাদ ও দেয়ালের পলেস্তরা খসে খসে পড়েছে। ফলে সামান্য বৃষ্টি হলেই ছাদ চুইয়ে পানি পড়ছে। ফ্লোর দেবে গেছে। টয়লেটগুলো ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়ে আছে। পানি সরবরাহের জন্য শ্যালো টিউবওয়েল থাকলেও সেগুলো অকেজো। এ ছাড়া অধিকাংশ ক্লিনিকেই নেই কোনো বৈদ্যুতিক সংযোগ। অবকাঠামোগত সমস্যাসহ বিদ্যুৎ সমস্যার কারণে সিএইচসিপিরা তাদের চিকিৎসাসেবার পাশাপাশি মাসিক প্রতিবেদন তৈরিসহ নানা কাজে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। একই অবস্থা বিরাজ করছে উপজেলার রাজাপুর, নয়ারহাট, কালাইয়া, বগা ও রাজনগরসহ অধিকাংশ কামউনিটি ক্লিনিকে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে ১৯৯৬ সালে কমিউনিটি ক্লিনিক চালু করা হয়েছিল। সে সময় থেকে কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে স্বাস্থ্য সহকারী ও পরিবার কল্যাণ সহকারীরা স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে এলেও ২০০১ সালের পরে তা প্রায় বন্ধ হয়ে যায়। পরবর্তীতে বর্তমান সরকারের আমলে পুনরায় ওই সব কমিনিউটি ক্লিনিক চালু করে প্রতিটি ক্লিনিকে একজন করে সিএইচসিপি নিয়োগ দেয়া হয়। সিএইচসিপি, স্বাস্থ্য সহকারী ও পরিবার কল্যাণ সহকারীদের সমন্বয়ে ওই সব কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যসেবা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মইনুল ইসলাম বলেন, কমিউনিটি ক্লিনিকগুলো সংস্কারের জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে বহুবার অবহিত করেছি। কিন্তু আজ পর্যন্ত কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না। : :

       দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন। 

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com