বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৫৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নবীনগরে বিটঘর মহেশ রোডের উন্নয়ন কাজে ধীরগতি চলাচলে চরম দুর্ভোগ ডেমরা-যাত্রাবাড়ী সড়কে ভেকু দিয়ে গর্ত করার সময় ফেটেযায় গ্যাস লাইন, রাস্তা বন্ধ হয়ে সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট। নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের উচ্চ মূল্য, সংসার চালাতে হিমশিম খাচ্ছেন তাড়াশ উপজেলার নিম্ন ও মধ্যবিত্ত শ্রেণীর মানুষ চাকরৌহালী ও কোনাবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ে ম‍্যানিজিং কমিটি গঠনে ব‍্যাপক অনিয়ম। কালের খবর মেহেরপুর প্রেস ক্লাবের দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে নির্বাচিত সদস্যদের শপথ অনুষ্ঠিত। কালের খবর নবীনগরে ফুফার হাতে ভাতিজা খুন। কালের খবর সীতাকুণ্ড ডিগ্রি কলেজে শেখ রাসেল এর জন্মদিনে স্বরণ সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত। কালের খবর ইসলামপুরে ভূমি উপ-সহকারির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ। কালের খবর নবীনগরে নদী থেকে এক যুবকের ভাসমান লাশ উদ্ধার। কালের খবর নবীনগরে ৮১টি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দৃষ্টিনন্দন নতুন ভবন নির্মাণ।
কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি অপসারনের দাবী : আন্দোলনে ক্ষুব্দ মার্কেট ব্যবসায়ীরা

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি অপসারনের দাবী : আন্দোলনে ক্ষুব্দ মার্কেট ব্যবসায়ীরা

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, কালের খবর :
নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ুমকে অপসারনের দাবীতে মাঠে নেমেছে মার্কেট ব্যবসায়ী ও হকাররা। তারা জড় হয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে আন্দোলনের ডাক দিয়ে কাঁচপুরে র‌্যালী করেছে। তাদের আশ্বস্থ করতে কাঁচপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ও সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোর্শেদ আলম বক্তব্য দেন। হাইওয়ে পুলিশের গাজীপুর পুলিশ সুপার বলেন আমরা আমাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করছি। হকারদের ওই জায়গা দখল করতে দেয়া হবে না।
সরেজমিনে দেখা গেছে, কাঁচপুরের একটি মার্কেটের সামনে গতকাল সকালে কয়েকশ হকার ও ব্যবসায়ীরা একত্রিত হয়ে আন্দোলনের শ্লোগান দিতে থাকে। হকারদের অভিযোগ, মার্কেটের ভেতরে অলিতে গলিতে প্রায় দেড়শ হকার বসে কেনাবেচা করে থাকেন। সম্প্রতি কিছু হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা তাদের কাছ থেকে চাঁদা দাবী করে আসছে। চাঁদা না দিলে তাদের দোকানের জিনিসপত্র ছুড়ে ফেলে দেয়। লাথি দিয়ে জিনিসপত্র গুড়িয়ে দেয়। তাদের দাবী শান্তিপূর্ণভাবে ব্যবসা করতে চান তারা। এদিকে সোনারগাঁ থানার ওসি হকারদেরকে মার্কেটের সামনের অংশে ব্যবসা করা অনুমতি দিয়েছেন।
এদিকে কাঁচপুর হাইওয়ে থানায় গিয়ে দেখা যায় গাজীপুর জোনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাগন ওসি কাইয়ুমকে নিয়ে রূদ্ধদ্বার বিভিন্ন পরামর্শ করতে দেখা গেছে।
জানতে চাইলে সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোর্শেদ আলম বলেন, আমি আন্দোলনকারীদের আশ্বস্ত করেছি। তাদের সড়ক অবরোধ করা থেকে বিরত রেখেছি। তাদেরকে শান্ত রেখে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এনেছি।
হাইওয়ে পুলিশের গাজীপুর অঞ্চলের পুলিশ সুপার শফিকুল ইসলাম বলেন, আমরা জনগনের জন্য কাজ করি। তিনমাস আগে ভ্রাম্যমান আদালত গিয়ে ওই জায়গা দখলমুক্ত করেন। সড়ক ও জনগন কতৃপক্ষ জায়গা দখলমুক্ত করে কাঁটাতারের বেড়া দিয়ে আমাদের পুলিশকে বুঝিয়ে দেয়। আমাদের পুলিশ তাদেরকে ওই জায়গায় বসতে নিষেধ করলেও তারা ঘুরে ঘুরে গিয়ে ওই জায়গাতেই বসে। গত শুক্রবার দুপুরে যোগাযোগ সচিব ওই রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় ভ্যান গাড়ি দেখে খুব ক্ষেপে গিয়েছিলেন। তাই আমাদের পুলিশ সদস্যরাও একটু কঠোর হয়েছে। তবে কেউ চাঁদাবাজির জন্য হকারদের পক্ষ নিলে তাদেরও ছাড় দেয়া হবে না।
জানতে চাইলে কাঁচপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোশাররফ ওমর বলেন, আমার মত একজন চেয়ারম্যান হকারদের চাঁদা খাবে এটা কি হয়। আমি তাদের দুঃখ দুর্দশা দেখে তাদের পাশে দাড়িয়েছি। একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে আমি আমার দায়িত্ব পালন করছি। কাঁচপুর এলাকার হকারদের চরম অবহেলিত জীবনযাপন আমাকে তাদের জন্য কিছু করতে উদ্বুদ্ধ করেছে। আমি চাইছি শান্তিপূর্ণভাবে একটা সমাধানের ব্যবস্থা করতে। আমি মনে করি পুলিশ তো আমার সরকারের পক্ষেই কাজ করছে। তাই আমি হকারদের সমস্যা সমাধানে পুলিশের সাথে বসে একটি সমাধানের ব্যবস্থা করতে চাইছি।
এর আগে রোববার দুপুরে বিক্ষুব্দ হকাররা রাজপথে নেমে আসে। এসময় তারা ঢাকা চট্টগ্রাম চার লেনের মহাসড়ক অবরোধ করে। প্রায় আধ ঘন্টা পর্যন্ত সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেয় আন্দোলনকারীরা। এ সময় তারা কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ুমকেও অবরূদ্ধ করে রাখে। বিষয়টি পুরো কাঁচপুর এলাকার অলিতে গলিতে সাধারন মানুষের আলোচনার বিষয়বস্তু হয়ে ওঠে। আলোচনা সমালোচনায় মুখোরিত হয়ে উঠে পুরো সোনারগাঁ উপজেলা।

…..দৈনিক কালের খবর

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com