শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:০১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পুলিশ চাইলে সব পারে- দুই ঘন্টায় হারানো মোবাইলসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র উদ্ধার। কালের খবর সখীপুরে টিনের বেড়া কেটে দোকানের মালামাল লুট। কালের খবর অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে অনুষ্ঠান বর্জন সাংবাদিকদের। কালের খবর সিরাজগঞ্জে চলনবিলে শামুক-ঝিনুক নিধন করছে অসৎ ব‍্যবসায়ীরা। কালের খবর। মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ইউপি চেয়ারম্যনের বিরুদ্ধে নারীকে ধর্ষন ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ। কালের খবর বিরামপুরে মহা সড়ক ঢাকা মোড়ে পাথরবাহী ট্রাকের চাঁপায় ডিভাইডার ভেংঙ্গে যাতায়াতের দূর্ভোগ। কালের খবর বাঘারপাড়ায় ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ এর (এজেন্ট ব্যাংক ) শাখার উদ্বোধন। কালের খবর রসে ভরা টস টসে ভিটামিন সি, যুক্ত পেয়ারার উপকারিতা। কালের খবর দালাল ছাড়া হালাল হয় না কিছুই। কালের খবর সখীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ যুবক নিহত। কালের খবর
গভীররাতে ঢাবির হলে ছাত্রলীগের তল্লাশি: আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের মারধর

গভীররাতে ঢাবির হলে ছাত্রলীগের তল্লাশি: আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের মারধর

 

 

 

কালের খবর, ঢাকা   : কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের খুঁজতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিভিন্ন আবাসিক হলে তল্লাশি চালয়িেেছ ছাত্রলীগ। এ সময় কয়েকটি হল থেকে অংশ নেয়া আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।
সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত আটটি হলে এই ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, হলের যেসব শিক্ষার্থী কোটা সংস্কার আন্দোলনে গিয়েছিল তাদের রুমে গিয়ে হেনস্থা ও মারধর করেছে ছাত্রলীগ। হল শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নেতৃত্বেই এ কাজ করে তারা।
জানা যায়, ভুক্তভোগীদের অধিকাংশই হলের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তাদের অনেককেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ না থাকায় তাদেরকে এ মারধর করা হয়। কেন্দ্রীয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নির্দেশেই শিক্ষার্থীদের নির্দেশেই শিক্ষার্থীদের মারধর ও হেনস্থা করা হয়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি হলের ছাত্রলীগের সহসভাপতি বলেন, বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের নেতারা হলের যেসব শিক্ষার্থী কোটা সংস্কারের নেতৃত্ব দেয় তারা যাতে হলে থাকতে না পারে সে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয় হলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক।
জানা যায়, রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি জসীমউদদীন হলে এক শিক্ষার্থীকে মারধর করে ছাত্রলীগ। তাছাড়া হলের যেসব শিক্ষার্থী কোটা সংস্কারের আন্দোলনে গিয়েছিল তাদের রুমে গিয়ে হেনস্থা করা হয়। স্যার এ এফ রহমান ও মুহসিন হলেও এই ঘটনা ঘটে।
এদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের মূল গেইটে হল শাখার সভাপতি বরিকুল ইসলাম বাধন ও সাধারণ সম্পাদক আল আমিনের নির্দেশে ছাত্রলীগ অবস্থান নেয়। ওই গেইট দিয়ে পরিচয় দিয়েই হলে প্রবশে করতে হয় শিক্ষার্থীদের। কোটা সংস্কারের আন্দোলনের সাথে কেউ যুক্ত থাকলে তাদরেকে বিভিন্নভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে।
জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া ও সুফিয়া কামাল হলেও ছাত্রলীগ নেতারা কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের বিভিন্নভাবে লাঞ্ছিত করে।
অভিযোগ উঠেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. শহিদুল্লাহ ও ফজলুল হক হলে বহিরাগতদের নিয়ে ছাত্রলীগের হল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে সাধারণ শিক্ষার্থীদের হেনস্থা করা হয়, অনেক শিক্ষার্থীকে মারধর করে বলেও জানা যায়।

দৈনিক কালের খবর -/১০/৪/১৮

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com