রবিবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৭:৩১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পদ্মা সেতু রেল সংযোগ নির্মাণ : পাল্টে যাবে যশোরের বসুন্দিয়ার চিত্র। কালের খবর যাত্রাবাড়িতে সকাল-বিকাল চলে বৈঠক আ’লীগের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা উজ্জীবিত। কালের খবর দক্ষিণ সুরমায় ভয়াবহ দুর্ঘটনা ১১ জন নিহত। কালের খবর শ্রদ্ধা আর ভালবাসায় পালিত হল এমপি রহমত আলীর মৃত্যু বার্ষিকী। কালের খবর কালীগঞ্জে তিন মোটরসাইকেলের সংর্ঘষে তিন জন নিহত। কালের খবর শিশু তুবা মায়ের বিয়ের খবর দেখে টেলিভিশনে। কালের খবর জুট কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। কালের খবর ট্রাফিক পুলিশের হাতের ইশারায় গাড়ির চাকা থামে ঘোরে। কালের খবর সাংবাদিক মুজাক্কিরের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে আলটিমেটাম। কালের খবর বাড়ছে উৎপাদন চায়ের বাজারে নতুন ‘সাদা সোনা’
গভীররাতে ঢাবির হলে ছাত্রলীগের তল্লাশি: আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের মারধর

গভীররাতে ঢাবির হলে ছাত্রলীগের তল্লাশি: আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের মারধর

 

 

 

কালের খবর, ঢাকা   : কোটা সংস্কার আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের খুঁজতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) বিভিন্ন আবাসিক হলে তল্লাশি চালয়িেেছ ছাত্রলীগ। এ সময় কয়েকটি হল থেকে অংশ নেয়া আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের মারধর করার অভিযোগ উঠেছে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে।
সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্তত আটটি হলে এই ঘটনা ঘটে।
জানা গেছে, হলের যেসব শিক্ষার্থী কোটা সংস্কার আন্দোলনে গিয়েছিল তাদের রুমে গিয়ে হেনস্থা ও মারধর করেছে ছাত্রলীগ। হল শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নেতৃত্বেই এ কাজ করে তারা।
জানা যায়, ভুক্তভোগীদের অধিকাংশই হলের প্রথম ও দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। তাদের অনেককেই ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় অংশগ্রহণ না থাকায় তাদেরকে এ মারধর করা হয়। কেন্দ্রীয় এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নির্দেশেই শিক্ষার্থীদের নির্দেশেই শিক্ষার্থীদের মারধর ও হেনস্থা করা হয়।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একটি হলের ছাত্রলীগের সহসভাপতি বলেন, বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্রলীগের নেতারা হলের যেসব শিক্ষার্থী কোটা সংস্কারের নেতৃত্ব দেয় তারা যাতে হলে থাকতে না পারে সে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয় হলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক।
জানা যায়, রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি জসীমউদদীন হলে এক শিক্ষার্থীকে মারধর করে ছাত্রলীগ। তাছাড়া হলের যেসব শিক্ষার্থী কোটা সংস্কারের আন্দোলনে গিয়েছিল তাদের রুমে গিয়ে হেনস্থা করা হয়। স্যার এ এফ রহমান ও মুহসিন হলেও এই ঘটনা ঘটে।
এদিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলের মূল গেইটে হল শাখার সভাপতি বরিকুল ইসলাম বাধন ও সাধারণ সম্পাদক আল আমিনের নির্দেশে ছাত্রলীগ অবস্থান নেয়। ওই গেইট দিয়ে পরিচয় দিয়েই হলে প্রবশে করতে হয় শিক্ষার্থীদের। কোটা সংস্কারের আন্দোলনের সাথে কেউ যুক্ত থাকলে তাদরেকে বিভিন্নভাবে হেনস্থা করা হচ্ছে।
জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া ও সুফিয়া কামাল হলেও ছাত্রলীগ নেতারা কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের বিভিন্নভাবে লাঞ্ছিত করে।
অভিযোগ উঠেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. শহিদুল্লাহ ও ফজলুল হক হলে বহিরাগতদের নিয়ে ছাত্রলীগের হল সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে সাধারণ শিক্ষার্থীদের হেনস্থা করা হয়, অনেক শিক্ষার্থীকে মারধর করে বলেও জানা যায়।

দৈনিক কালের খবর -/১০/৪/১৮

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com