শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ০৯:৫৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
যশোরের কেশবপুরে শান্তি স্থাপন ও সহিংসতা নিরসনে (পিএফজি, র) সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর রায়পুরার ছাত্রলীগ নেতা মামুনকে জড়িয়ে মিথ্যা ও হয়রানি মূলক ধর্ষণ মামলাসহ একাধিক মামলা করায় সর্বমহলে নিন্দা। কালের খবর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর ৫৬ ধারার প্রয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে.প্রধান অতিথি সিএমপি কমিশনার। কালের খবর সহিংসতা নয়-শান্তির জন্য আমরা-এই শ্লোগান কে সামনে রেখে বাঘারপাড়ায় অনুষ্ঠিত হলো (পিএফজির) সম্মিলিত কার্যক্রম ও পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা। কালের খবর ঢাকা জেলা রেজিস্ট্রার অহিদুল ইসলাম সাময়িক বরখাস্ত। কালের খবর বাঘারপাড়া প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক লক্ষণ চন্দ্র মন্ডলের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক। কালের খবর যুবদের নেতৃত্বে সঠিক কর্মপরিকল্পনা গ্রহনের ফলে , সমাজে সহিংসতা নিরসন ও শান্তি স্থাপন হতে পারে। কালের খবর কোরবানির পশু প্রস্তুত করতে ব্যস্ত সাতক্ষীরার খামারিরা। কালের খবর চট্টগ্রামের ইপিজেডে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন, ঘটনায় জড়িত মূল হোতাসহ ২জন গ্রেপ্তার। কালের খবর রাজধানী ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না : সড়ক পরিবহনমন্ত্রী। কালের খবর
‘মোখা’ দেখতে সৈকতে ভিড়, প্রতিমন্ত্রীকে যে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর।কালের খবর

‘মোখা’ দেখতে সৈকতে ভিড়, প্রতিমন্ত্রীকে যে নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর।কালের খবর

কালের খবর ডেস্ক  : 

কক্সবাজার সাগর পাড়ে যারা ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ দেখার উৎসব করছিলেন তাদের ফিরিয়ে আনতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এই তথ্য জানান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় মোখা ইস্যুতে কক্সবাজারকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেওয়ার পরও সমুদ্র সৈকতে গিয়ে সেলফি তুলতে দেখা গেছে অনেককে। বিষয়টি নিয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমানকে ফোন করেছিলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মহাবিপদ সংকেত ঘোষণা করার পরও আমরা দেখেছি সমুদ্র সৈকতে অনেক মানুষ যাতায়াত করছে। তাদের নিয়ন্ত্রণে কোনো ব্যবস্থা ছিল না কেন- এক সাংবাদিকের করা প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ডেফিনেটলি আছে। মহাবিপদ সংকেত দেওয়ার পর কিন্তু সৈকত খালি হয়ে গেছে। শুধু সৈকত নয়, সমস্ত ট্যুরিস্ট অ্যাক্টিভিটিজ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। আমরা সেটা দেখে আর্ম ফোর্স ডিভিশনের পিএসওর সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি এরপরে বিজিবি, ট্যুরিস্ট পুলিশ, নৌ পুলিশ- সবাইকে নির্দেশনা দিয়েছেন এবং সবার প্রচেষ্টায় কিন্তু আমরা তাদের হোটেলে ফিরিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছি।

তিনি বলেন, ঝুঁকিপূর্ণ জায়গায় কেউ ছিল না। এমনকি গতকাল (শনিবার) রাত সাড়ে নয়টায় প্রধানমন্ত্রী আমাকে ফোন দিয়ে বলেছিলেন, ‘এখনো বিচে মানুষ সেলফি তুলছে, আনন্দ করছে; এটাকে তোমরা নিয়ন্ত্রণ করো।’ পরে আমরা ডিসির সঙ্গে কথা বলার পর বিজিবি সৈকত খালি করেছে।

সাংবাদিকদের উদ্দেশে এনামুর রহমান বলেন, ‘আপনি যেটা বলেছেন, এটা সত্যি… কিন্তু সরকার চুপ করে থাকে না, সরকার অ্যাকশন নিয়েছে। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী এটা দেখে আমাদের নির্দেশনা দিয়েছেন।’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com