রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ১১:৩৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কোটাবিরোধী আন্দোলন-আবারও রাজনীতির মাঠে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। কালের খবর চালের দাম আরও বাড়লো, সবজি আলু পেঁয়াজেও অস্বস্তি। কালের খবর খুনি ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত সাংবাদিকের আহাজারি। কালের খবর বন্দরে ৬ প্রতারকের বিরুদ্ধে আদালতে চাজশীট দাখিল। কালের খবর মুরাদনগরে মাদক বিরোধী সমাবেশ। কালের খবর সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ঠিকাদারদের সাথে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ”র মতবিনিময় সভা-সম্পন্ন। কালের খবর গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর
শাহজাদপুরে কৈজুরী ইউপি’র টিআর কাবিখা কাবিটার শো’য়া কোটি টাকা হরিলুট! কালের খবর

শাহজাদপুরে কৈজুরী ইউপি’র টিআর কাবিখা কাবিটার শো’য়া কোটি টাকা হরিলুট! কালের খবর

নয়ন আলী, শাহজাদপুর (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি, কালের খবর : কোন কাজ না করেই সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়ন পরিষদের অনুকূলে ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে ৩০ প্রকল্পে বরাদ্দকৃত গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণ (টি,আর), একই অর্থ বছরের গ্রামীণ অবকাঠামো সংস্কার (কাবিটা) ও কাজের বিনিময়ে খাদ্য (কাবিখা) প্রকল্পের ১ কোটি ১৭ লাখ ১৮ হাজার টাকা হরিলুট করা হয়েছে মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
অভিযোগ সূত্রে প্রকাশ, ‘২০২০-২০২১ অর্থ বছরে কৈজুরী ইউনিয়নের অনুকূলে বরাদ্দকৃত টিআর, কাবিখা, কাবিটা’র বিভিন্ন প্রকল্পে জয়পুরা শামসাদের বাড়ি হতে পাঁচিল পর্যন্ত রাস্তা নির্মাণ বাবদ ৭ লাখ ৫০ হাজার, জয়পুরা জিন্দারের বাড়ি হতে কাজেম মন্ডলের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ ১৪ লাখ, জয়পুরা কাদের মন্ডলের বাড়ি হতে ঠান্ডুর বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা পুন:নির্মাণ বাবদ ৩ লাখ ৭৩ হাজার, জয়পুরা ওয়াপদা বাঁধ হতে ঈদগাহ মাঠ পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ ৩ লাখ ৪০ হাজার, জগতলা রহেন মোল্লার বাড়ি হতে ওয়াপদা বাঁধ পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার বাবদ ২ লাখ, লহিন্দাকান্দি পুরাতন জামে মসজিদ উন্নয়ন বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার,দামুয়া পাড়া জামে মসজিদ উন্নয়ন বাবদ ২ লাখ ৫০ হাজার, কৈজুরী বাজার ব্রিজ হতে ঋষিবাড়ী মন্দির পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ ৩ লাখ, কৈজুরী রিজিয়া বেগম মহিলা মাদ্রাসা উন্নয়ন বাবদ ২ লাখ, লহিন্দাকান্দি ওয়াপধা বাঁধ হতে সালামের দোকান পর্যন্ত রাস্তা পুনঃ নির্মাণ বাবদ ৫ লাখ, পাথালিয়া পাড়া পাঁকা রাস্তা হতে মোস্তফার বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা পুনঃ নির্মাণ বাবদ ৫ লাখ, গোপালপুর আলহাজ্ব মন্ডলের বাড়ি হতে পাথালিয়া পাড়া মোস্তফার বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা পুণঃ নির্মাণ বাবদ ৫ লাখ, ভাট দিঘুলিয়া কবরস্থানের সংস্কার বাবদ ৪ লাখ ৪৫ হাজার, কৈজুরী বাজার গরুর হাট উন্নয়ন বাবদ ৪ লাখ, চর কৈজুরী মধ্যপাড়া বায়তুল জামে মসজিদ উন্নয়ন বাবদ ৬০ হাজার, ভাট দিঘুলিয়া নদী ঘাট হতে আবুলের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার বাবদ সাড়ে ৭ লাখ, ভাট দিঘুলিয়া নদী ঘাট হতে আবুলের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার বাবদ সাড়ে ৭ লাখ, মোনাকষা পাকা রাস্তা হতে নুরুর বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, ঠুটিয়া নদীর ঘাট হতে মসজিদ পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, কৈজুরী স্কুল এন্ড কলেজের উন্নয়ন বাবদ আড়াই লাখ, কৈজুরী বাজার পাকা রাস্তা হতে মাছ বাজার পর্যন্ত রাস্তা মেরামত আড়াই লাখ,পূর্ব চর কৈজুরী মোশাররফিয়া মাদ্রাসা উন্নয়ন বাবদ আড়াই লাখ, ঠুটিয়া নদী ঘাট হতে ছোট জোলা পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার বাবদ আড়াই লাখ, ভাটদিঘুলিয়া প্রাইমারি স্কুল হতে শেখের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, চৌরা পাচিল প্রাইমারি স্কুল হইতে ঠুটিয়া মসজিদ পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, লহিন্দাকান্দি ওয়াবদা বাঁধ হতে কবরস্থান পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, কৈজুরী বাজার পাকা রাস্তা হতে কালীর দোকান হয়ে নজরুলের মিল পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, পাথালিয়া পাড়া পাকা রাস্তা হতে ময়দানের বাড়ি পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ আড়াই লাখ, কৈজুরী জামে মসজিদের উন্নয়ন বাবদ ১ লাখ ৭ হাজার, পাথালিয়া পাড়া কবরস্থানের মাটি ভরাট বাবদ ৬ লাখ ২৬ হাজার, গোপালপুর সোবাহানের বাড়ি হতে হাটপাঁচিল বাজার পর্যন্ত রাস্তা মেরামত বাবদ ৩ লাখ ৩ হাজার টাকাসহ ভূয়া প্রকল্প দেখিয়ে কোন কাজ না করেই ২০২০-২০২১ অর্থ বছরে কৈজুরী ইউনিয়ন পরিষদের অনুকূলে বরাদ্দকৃত সর্বমোট ১ কোটি ১৭ লাখ ১৮ হাজার টাকা হরিলুটের ঘটনা ঘটেছে।
কৈজুরী ইউনিয়নের লতিফ সরকার, নূরজামাল, নজরুল মল্লিক, রওশন জোয়ার্দারসহ এলাকার অনেকেই অভিযোগে জানান, ‘জয়পুরা গ্রামের পানি উন্নয়ন বোর্ডের পরিত্যাক্ত বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধকে রাস্তা দেখিয়ে সেখানেও ৩ টি প্রকল্প দেখিয়ে ২১ লাখ ১৩ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম। এ ছাড়াও একই রাস্তাকে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন প্রকল্প দেখিয়ে লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছে কৈজুরী ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম।
এদিকে হরিলুটের খবর জানতে পেরে ক্ষোভে ফুঁসে উঠেছে। অবিলম্বে তারা এ হরিলুটের সুষ্ঠু তদন্ত ও বিপুল পরিমান সরকারি অর্থ আত্মসাৎকারী কৈজুরী ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলামের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছে।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ সাংবাদিকদের জানান, ‘এসব প্রকল্পের বিষয়ে সাংবাদিকরা আগে কখনও জানতে চায়নি, তাই এগুলো নিয়ে তেমন নজরদারি করা হয়নি। তার পরেও কিছু কিছু কাজ হয়েছে। অফিসে আসেন, আপনাদের নিয়ে এ বিষয় নিয়ে বসবোনি!’
শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ মো: শামসুজ্জোহা’র কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’ এবিষয়ে কৈজুরী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের মুঠোফোনে (০১৭১১-৫৯৬০১৭ এবং ০১৮২৪-১৮৯৩১০) নাম্বারে বার বার যোগাযোর চেষ্টা করা হলেও তাকে মুঠোফোনে না পাওয়ায় ক্ষুদে বার্তা প্রেরণ করা হলেও কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com