রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১০:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অনিয়মের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত। কালের খবর ঘিওরে কৃষকদের মানববন্ধনে নিয়মিত বর্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের জোরালো দাবি। কালের খবর বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই চট্টগ্রামের অভূতপূর্ব উন্নয়ন : খোরশেদ আলম সুজন। কালের খবর “ইন্টারন্যাশনাল প্রেস ক্লাব এন্ড হিউম্যান রাইটস” এর কেন্দ্রীয় কমিটির চূড়ান্ত প্রার্থিতা গ্রহণ। কালের খবর জগন্নাথপুরে প্রাথমিক শিক্ষক মদপান করে সাজা ভোগ করায় এলাকায় ক্ষোভ। কালের খবর ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতারা অসন্তোষ। কালের খবর হাইকোর্টের রায় : মোটরযানে বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ। কালের খবর অবশেষে চালু হচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্ত হাট, তাজা মাছের চাহিদা ভারতের। কালের খবর
গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের বাজারে নৈরাজ্য

গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের বাজারে নৈরাজ্য

গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের বাজারে নৈরাজ্য

গোপালগঞ্জে সরকার নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে না তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) সিলিন্ডার। এখানে অতিরিক্তি দামে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে। এলপি গ্যাসের বাজারে চলছে নৈরাজ্য। এর ব্যাপক প্রভাব পড়েছে ব্যবহারকারী সাধারণ মানুষের ওপর। ডিলাররা বলছেন বাড়তি দামে ক্রয় করে বেশি দামে বিক্রি করেত হচ্ছে। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেশন কমিশন (বিইআরসি) এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণ করে দিলেও বিক্রি হচ্ছে না সেই দামে। বিইআরসি জুলাই মাসের শুরু থেকে ১২ কেজি তরল পেট্রোলিয়াম (এলপিজি) গ্যাসের দাম সিলিন্ডার প্রতি ৪৯ টাকা বাড়িয়ে ৮৯১ টাকা নির্ধারণ করেছে। গোপালগঞ্জের কোথাও এই দামে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার মিলছে না।
গোপালগঞ্জের খুচরা বাজারে ১২ কেজির এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫০ টাকা থেকে ১ হাজার ১শ টাকা দামে।
গোপালগঞ্জ শহরের পুরাতন বাজার রোডের বাসিন্দা পলাশ রায় বলেন, ১০ দিন আগে ১২ কেজির ১ সিলিন্ডার এলপি গ্যাস ৯২০ টাকা দিয়ে কিনেছিলাম। সেই গ্যাস এখন ১ হাজার ১শ টাকা দিয়ে কিনলাম। বিইআরসি নির্ধারিত মূল্যে কোথাও গ্যাস বিক্রি হচ্ছে। তিনি গ্যাসের বাজারের নৈরাজ্য বন্ধের দাবি জানান।
শহরের মিয়াপাড়ার বাসিন্দা মিজানুর রহমান সুমন বলেন, সরকার গ্যাসের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। সে দামে গ্যাস মিলছেনা। আমাদের এখানে ১ হাজার ৫০ থেকে ১ হাজার ১শ টাকা দিয়ে গ্যাস কিনতে হচ্ছে। দোকানদাররা যে দামে বিক্রি করছে, সেই দামেই আমাদের গ্যাস কিনতে হচ্ছে। গ্যাসের বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের একটু নজর দেয়া দরকার ।
শহরের খুচরা গ্যাস বিক্রেতা শারমিন ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের মালিক মো. রাসেল বলেন, আমরা ডিলারের কাছ থেকে ১ হাজার ১০ টাকা দরে প্রতি সিলিন্ডার গ্যাস ক্রয় করছি। ১ টি সিলিন্ডার ৩০ থেকে ৪০ টাকা লাভে ১ হাজার ৫০ টাকা দরে বিক্রি করছি। আবার অনেক খুচরা দোকানদার ৮০ থেকে ৯০ টাকা লাভ করে ১ হাজার ১শ টাকায় প্রতি সিলিন্ডার বিক্রি করছেন।
গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের ডিলার নিপুন প্রযুক্তির ম্যানেজার আরিফুল ইসলাম বলেন, সরকার প্রতি সিলিন্ডার গ্যাসের দাম ৮৯১ টাকা নির্ধারণ করেছে। এটি আমরা গণমাধ্যমের খবরে শুনেছি। আমাদের বাড়তি দামে গ্যাস কিনে আনতে হচ্ছে। তাই আমরা বেশি দামে গ্যাস বিক্রি করছি। আমরা সরকার নির্ধারিত মূল্যে গ্যাস কিনতে পারলে, আমরাও সরকার নির্ধারিত দামে বিক্রি করতে পারবো। গত জুন মাসে ১২ কেজির সিলিন্ডার বিক্রি করেছি ৯২০ টাকায়। জুলাই মাসের শুরুতে সেই গ্যাস বাড়তি দামে কিনে ১ হাজার ১০ টাকায় পাইকারি বিক্রি করছি।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com