বৃহস্পতিবার, ০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩:৪০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ, তদন্ত করছে দুদক ও মাউশি। কালের খবর তাড়াশে সেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কালের খবর যশোর সদরে ইউপি নির্বাচন ৫ জানুয়ারি। কালের খবর কুমড়া বড়ি তৈরি করতে ব‍্যস্ত তাড়াশের কারিগররা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় চেয়ারম্যান প্রর্থীসহ আহত ২০-অফিস ভাংচুর। কালের খবর যশোর সদর হাসপাতালে দালালদের কাছে জিম্মি রোগীরা। কালের খবর উৎপাদনে নতুন ‘দেশি মুরগি’, ৮ সপ্তাহে হবে এক কেজি। কালের খবর ইউপি নির্বাচনে শাহজাদপুরের ১০ ইউনিয়নে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা। কালের খবর যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর জাতীয় শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত। কালের খবর
গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের বাজারে নৈরাজ্য

গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের বাজারে নৈরাজ্য

গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের বাজারে নৈরাজ্য

গোপালগঞ্জে সরকার নির্ধারিত মূল্যে বিক্রি হচ্ছে না তরল পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) সিলিন্ডার। এখানে অতিরিক্তি দামে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে। এলপি গ্যাসের বাজারে চলছে নৈরাজ্য। এর ব্যাপক প্রভাব পড়েছে ব্যবহারকারী সাধারণ মানুষের ওপর। ডিলাররা বলছেন বাড়তি দামে ক্রয় করে বেশি দামে বিক্রি করেত হচ্ছে। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেশন কমিশন (বিইআরসি) এলপি গ্যাসের মূল্য নির্ধারণ করে দিলেও বিক্রি হচ্ছে না সেই দামে। বিইআরসি জুলাই মাসের শুরু থেকে ১২ কেজি তরল পেট্রোলিয়াম (এলপিজি) গ্যাসের দাম সিলিন্ডার প্রতি ৪৯ টাকা বাড়িয়ে ৮৯১ টাকা নির্ধারণ করেছে। গোপালগঞ্জের কোথাও এই দামে এলপি গ্যাস সিলিন্ডার মিলছে না।
গোপালগঞ্জের খুচরা বাজারে ১২ কেজির এলপি গ্যাসের সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৫০ টাকা থেকে ১ হাজার ১শ টাকা দামে।
গোপালগঞ্জ শহরের পুরাতন বাজার রোডের বাসিন্দা পলাশ রায় বলেন, ১০ দিন আগে ১২ কেজির ১ সিলিন্ডার এলপি গ্যাস ৯২০ টাকা দিয়ে কিনেছিলাম। সেই গ্যাস এখন ১ হাজার ১শ টাকা দিয়ে কিনলাম। বিইআরসি নির্ধারিত মূল্যে কোথাও গ্যাস বিক্রি হচ্ছে। তিনি গ্যাসের বাজারের নৈরাজ্য বন্ধের দাবি জানান।
শহরের মিয়াপাড়ার বাসিন্দা মিজানুর রহমান সুমন বলেন, সরকার গ্যাসের দাম নির্ধারণ করে দিয়েছে। সে দামে গ্যাস মিলছেনা। আমাদের এখানে ১ হাজার ৫০ থেকে ১ হাজার ১শ টাকা দিয়ে গ্যাস কিনতে হচ্ছে। দোকানদাররা যে দামে বিক্রি করছে, সেই দামেই আমাদের গ্যাস কিনতে হচ্ছে। গ্যাসের বাজার নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের একটু নজর দেয়া দরকার ।
শহরের খুচরা গ্যাস বিক্রেতা শারমিন ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের মালিক মো. রাসেল বলেন, আমরা ডিলারের কাছ থেকে ১ হাজার ১০ টাকা দরে প্রতি সিলিন্ডার গ্যাস ক্রয় করছি। ১ টি সিলিন্ডার ৩০ থেকে ৪০ টাকা লাভে ১ হাজার ৫০ টাকা দরে বিক্রি করছি। আবার অনেক খুচরা দোকানদার ৮০ থেকে ৯০ টাকা লাভ করে ১ হাজার ১শ টাকায় প্রতি সিলিন্ডার বিক্রি করছেন।
গোপালগঞ্জে এলপি গ্যাসের ডিলার নিপুন প্রযুক্তির ম্যানেজার আরিফুল ইসলাম বলেন, সরকার প্রতি সিলিন্ডার গ্যাসের দাম ৮৯১ টাকা নির্ধারণ করেছে। এটি আমরা গণমাধ্যমের খবরে শুনেছি। আমাদের বাড়তি দামে গ্যাস কিনে আনতে হচ্ছে। তাই আমরা বেশি দামে গ্যাস বিক্রি করছি। আমরা সরকার নির্ধারিত মূল্যে গ্যাস কিনতে পারলে, আমরাও সরকার নির্ধারিত দামে বিক্রি করতে পারবো। গত জুন মাসে ১২ কেজির সিলিন্ডার বিক্রি করেছি ৯২০ টাকায়। জুলাই মাসের শুরুতে সেই গ্যাস বাড়তি দামে কিনে ১ হাজার ১০ টাকায় পাইকারি বিক্রি করছি।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com