মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:২৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
তাড়াশে আ’লীগ নেতার চাঁদাবাজির ভিডিও ভাইরাল করায় ছাত্রলীগনেতা বহিস্কার। কালের খবর দরিদ্র ও অসহায় মানুষের সেবা দেওয়ার চেষ্টা করছি – ইউএনও । কালের খবর চট্রগ্রামে বন্ধুর মোটরসাইকেল জিম্মি করে ১লাখ ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি: গ্রেপ্তার ২। কালের খবর বোয়ালমারীতে ফসলি জমির মাটি কেটে ইটভাটায় বিক্রির হিড়িক! কালের খবর রাজস্ব আহরনে সবাই সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি : প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর খেলাধুলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ভাবে পরিচিতি লাভ করা যায় – স্মৃতি। কালের খবর মুরাদনগরে চলছে ফসলি জমির মাটি কাটার মহা-উৎসব। কালের খবর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুদের কারবারির হাতে ওষুধ ব্যবসায়ী খুন! কালের খবর প্রেসক্লাব বাসুন্দিয়ার (৫ম) প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত। কালের খবর সাংবাদিক শিমুল হত্যার ৬ বছর : শুরু হয়নি বিচারকার্য। কালের খবর
বুড়িচং কালিকাপুর প্রধান সড়কের বেহাল দশায় দূর্ভোগে এলাকাবাসী। কালের খবর

বুড়িচং কালিকাপুর প্রধান সড়কের বেহাল দশায় দূর্ভোগে এলাকাবাসী। কালের খবর

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার বুড়িচং-কালিকাপুর প্রধান সড়কের বেহাল দশা। যান চলাচলের সম্পূর্ণ অনুপযোগী এ সড়ক পথটি। কিছু দিন পূর্বে মেরামতের কাজ শুরু হয়েছে। তবে কচ্ছপ গতিতে কাজ অগ্রসর হচ্ছিল।

এদিকে রেললাইনের কাজ করার জন্য মালামাল আনা-নেওয়ার কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে এ রাস্তাটি। টনে টনে মালামাল বহন করে বাকশীমুল গ্রাম থেকে কালিকাপুর বাজার পর্যন্ত পুরো রাস্তাটি ব্যবহার করার অনুপযোগী হয়ে গেছে। প্রতিদিন ঘটতে শুরু করেছে দূর্ঘটনা। প্রতিদিন এ সড়কটি দিয়ে শত শত যাত্রীবাহী পরিবহন যাতায়াত চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।রেললাইন থেকে কালিকাপুর বাজার পর্যন্ত পুরো সড়কটি কাদায়, গর্তে পরিপূর্ণ। এ সব কাদায় ও গর্তে দিয়ে ইজিবাইক, অটোরিকশা, যাত্রীবাহী গাড়ি চলাচলে দূর্ঘটনা ও ঘটছে অনবরত। সরজমিন গিয়ে দেখা গেছে বুড়িচং উপজেলা থেকে কালিকাপুর প্রায় ৬ কিলোমিটার রাস্তা। তার মধ্যে পুনঃ মেরামত করার জন্য অনেক দিন ধরে কচ্ছপ গতিতে কাজ চলায় এখনো কাজটি মেরামত সম্পন্ন হয় নি।তবে স্হানীয় লোকজনদের সাথে কথা বলে জানা যায় যে রেললাইনের কাজ করার জন্য টনে টনে মালামাল আনা-নেওয়া করায় রাস্তাটির বেহাল দশা এবং ব্যাবহারের অনুপযোগী হয়ে গেছে। স্হানীয় প্রশাসন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। মনগড়া মতো রেলের লোকজন তা করে যাচ্ছে।বৃষ্টি আসলে রাস্তাটি দিয়ে চলাচল মোটেই সম্ভব না। অটোরিকশা চালক এবং সিএনজি চালকেরা বলেন এ রাস্তাটি অনেক বিপদজনক তাই আমরা বাধ্য হয়ে বাকশীমুল গ্রামের ভেতর দিয়ে ফকির বাজার এর রাস্তা ব্যবহার করে যাত্রী আনা-নেওয়া করি। তারা এটার একটা দ্রুত সমাধান চায়।
এ ব্যাপারে বুড়িচং উপজেলা প্রকৌশলী অলুক কুমার বলেন বর্ষাকাল চলে গেলে রাস্তার কার্পেটিং এর কাজ শুরু করবে। এবং বর্তমানে রাস্তার যান চলাচলে সমস্যা নিয়ে কথা বলতে আগ্রহী নয়। প্রশ্ন করার সাথে সাথে এ প্রশ্ন এড়িয়ে যায়। তবে এ বিষয় নিয়ে ঠিকাদার এর সাথে কোনো ভাবেই যোগাযোগ করা যায় নি।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com