শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ১২:৪২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
তাড়াশে আগাম বর্ষার পানিতে সমস্ত কৃষিজমি প্লাবিত। কালের খবর

তাড়াশে আগাম বর্ষার পানিতে সমস্ত কৃষিজমি প্লাবিত। কালের খবর

মোঃ মুন্না হুসাইন তাড়াশ (সিরাজগঞ্জ) প্রতিনিধি, কালের খবর :

তাড়াশ উপজেলার প্রায় ২৫০০০হেক্টর কৃষি জমি আগাম বর্ষার পানিতে প্লাবিত মহেশরৌহালী, বিরলহালী, পংরৌহালী ও চাকরৌহালী সহ নওগাঁ ইউনিয়নের বিভিন্ন স্থানে ঢুকছে আগাম বর্ষার পানি।আর এ নতুন বর্ষা পানিতে চলছে জেলেদের মাছ শিকারের ধুম। পানি বাড়ার সাথে সাথে পেশাদার জেলেদের সাথে সাথে মৌসুমি জেলেরা এবং ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা মাছ শিকারে ব্যাস্ত সময় পাড় করছে।

কেউ কেউ মাছ ধরছে জাল কিংবা বরশি দিয়ে কেউ বা আবার মাছ ধরছে কারেন্ট জাল কিংবা বাদাই জাল দিয়ে। তারা মাছও পাচ্ছে প্রচুর পরিমানে সেই সাথে মাছের দাম ও পাচ্ছে বেশি।

কথা হয় পেশাদার জেলে দুলালের সাথে, তিনি জানান আমি কারেন্ট জাল ও বরশি দিয়ে মাছ ধরি। কিছুদিন ধরে ভালো মাছ পাচ্ছি। আজ ৪৫০ টাকা মাছ বিক্রি করছি। গতকাল ও এমন বিক্রয় করছি পানি আরো বাড়লে বেশি মাছ পাব ।

মৌসুমি জেলে নুরইসলাম জানান আমি বর্ষা এলেই মাছ ধরি। কারণ এ সময় মাছ বেশি পাওয়া যায়।
আমরা মাছ ধইরা এখন ভালোই আছি। আমরা প্রতিদিন গড়ে ৪৫০টাকা থেকে ৫৫০ টাকা পর্যন্ত মাছ বিক্রি করি।আমাদের সংসার এখন ভালোই চলে,বর্ষা আসার পর থেকে প্রতিদিন ৪৫০-৫৫০ টাকা বিক্রি করছি। আমার ১৫ থেকে ২০টি কারেন্ট জাল আছে এতে ভালই মাছ ওঠে। অনেকে আরো বেশি ও বিক্রি করে। ১০ থেকে ১৫ জন জেলের সাথে কথা বলে জানা যায় সবাই প্রতিবারের চেয়ে এবার মাছ বেশি পাচ্ছে। মাছ বেশি পাওয়ার কারনে অনেক মৌসুমি জেলেরাই নামছে মাছ ধরতে। মঙ্গলবার বিকালে নওগাঁ ইউনিয়ানে ৩নং ওয়ার্ডে গিয়ে দেখা যায় ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা বরশি দিয়ে মাছ ধরছে। অনেক ছেলেরা আবার ছোট ছোট ধুনদি দিয়ে মাছ ধরতে ব্যাস্ত। ছোট ছোট ছেলে মেয়েরা মাছ ধরতে পেরে অতি খুশি। এ বিষয়ে কৃষি কর্মকর্তা লুৎফুন্নেসা বলেন তাড়াশে প্রায় সমস্ত কৃষি জমি পানিতে প্লাবিত।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com