মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:২০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অতিথি ডটকমের জমকালো ডায়মন্ড সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম। কালের খবর শাহজাদপুরে সরিষা আনতে মাঠে যাচ্ছিলেন হাবিব, হঠাৎ বজ্রপাত। কালের খবর চোর চক্রের তিন সদস্য আটক দুটি মটরসাইকেল উদ্ধার কালের খবর টেকনাফে লক্ষাধিক ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক। কালের খবর একুশের বই মেলায় রাজু আহমেদ মোবারকের ‘সত্য সুন্দরের সন্ধানে’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন। কালের খবর রাজধানীর ওয়ারী বিভাগে থানা পুলিশের অভিযানে ১৪ ছিনতাইকারী গ্রেফতার। কালের খবর বাঘারপাড়ায় কৃষকের ৩ লাখ টাকার কলাগাছ কেটে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা”। কালের খবর নদীর মাঝখানে গাছ পড়ে নড়াইলের সাথে বসুন্দিয়া-বাঘারপাড়ার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন” সাপাহারে তেঘরিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন। কালের খবর অমর ২১শে ফেব্রুয়ারী উপলক্ষে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন ফয়জুর রহমান বাদল এমপি । কালের খবর
পাংশার হাতুড়ি বাহিনীর প্রধান একাধিক মামলার আসামি জনি কে পিটিয়ে জখম করলো দূর্বৃত্তরা। কালের খবর

পাংশার হাতুড়ি বাহিনীর প্রধান একাধিক মামলার আসামি জনি কে পিটিয়ে জখম করলো দূর্বৃত্তরা। কালের খবর

রাজবাড়ী থেকে মোঃ সাকিব মাহমুদ, কালের খবর :  পাংশার হাতুড়ি বাহিনীর প্রধান হিসেবে খ্যাত- অস্ত্র ও চাঁদাবাজীসহ একাধিক মামলার আসামি এবং পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মচারী মনোয়ার হোসেন জনিকে পিটিয়ে রক্তাক্ত জখম করেছে দূর্বৃত্তরা।

বুধবার রাতে রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগের মধ্যে তাকে পিটিয়েছে।

পাংশা থানার ওসি মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন জানান- বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মাস্ক পরিহিত একদল দূর্বৃত্ত এ ঘটনা ঘটিয়ে চলে যায়। জনিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তবে কারা কি কারণে তাকে পিটিয়ে জখম করেছে তা তিনি জানাতে পারেন নি।

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ২২শে সেপ্টম্বর মঙ্গলবার দুপুরে রাজবাড়ী জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ও পাংশা মডেল থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে রাজবাড়ীর পাংশা থানার কুড়াপাড়া এলাকা থেকে আওয়াল হোসেনের ছেলে মিজানুর রহমান রিপন (৩০) নামে এক সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করে।পরে তাকে জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবার ভোরে রিপনের শয়ন কক্ষ থেকে একটি চোরাই মোটরসাইকেল, ১টা ওয়ান সুটার গান, ২টা পিস্তলের গুলি, ২টা বন্দুকের গুলি, চারটি চাপাতি ও ১টা হাতুড়ি উদ্ধার করা হয়। সেই সাথে হাতুড়ি বাহিনীর প্রধান মনোয়ার হোসেন জনিকে গ্রেফতার করতে অভিযান চালানো হলেও সে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে যায়। জনি পাংশার নারায়নপুরের খলিল ড্রাইভারের ছেলে।

এ ঘটনায় ডিবির এসআই মোজাম্মেল বাদী হয়ে রিপনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে এবং মনোয়ার হোসেন জনিকে পলাতক আসামি হিসেবে পাংশা থানায় একটি মামলা করেছেন। নিশ্চিত করেছেন- রাজবাড়ী গোয়েন্দা পুলিশ পরিদর্শক ওমর শরীফ।

এছাড়াও মনোয়ার হোসেন জনির নামে অন্য মামলা গুলো হলো:- পাংশা থানার এফ আই আর নং- ২৮, তারিখ -২৪ অক্টোবর ২০০৮, জি আর নং – ২৩৬, তারিখ -২৪ অক্টোবর ২০০৮, সময়- ধারা- ১৪৩/১৪৯/৪৪৮/৩২৩/৩২৫/৩২৬/৩০৭/১০৯ পেনাল কোড- ১৮৬০, এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

পাংশা থানার এফ আই আর নং- ২/১২৩, তারিখ -০৩ অক্টোবর ২০২০, জি আর নং – ১২৩/২০২০, তারিখ- ০৩ অক্টোবর ২০২০। ধারা- ৩৮৫/৩৮৬/৫০৬(২)পেনাল কোড – ১৮৬০, এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

পাংশা থানার এফ আই আর নং- ১/১২২, তারিখ -২ অক্টোবর ২০২০, জি আর নং – ১২২/২০২০, তারিখ- ২ অক্টোবর ২০২০। ধারা-১৪৩/৪৪৭/৩৮৫/৩৮৬/৩৭৯/ ৪২৭/ ৫০৬(২) পেনাল কোড- ১৮৬০, এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

পাংশা থানার এফ আই আর নং- ৯/৭৯ তারিখ- ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, জি আর নং – ৭৯/২০২০ তারিখ- ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০। ধারা- ১৪৩/৩৪২/৩৮৪/৩৮৫/৩৮৬/৫০৬/৩৪১ পেনাল কোড- ১৮৬০, এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

পাংশা থানার এফ আই আর নং- ১৬/১১৯ তারিখ- ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, জি আর নং – ১১৯/২০২০ তারিখ- ২২সেপ্টেম্বর ২০২০। ধারা- ৪১৩/৩৪ পেনাল কোড- ১৮৬০, এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

পাংশা থানার এফ আই আর নং- ১৫/১১৮ তারিখ- ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, জি আর নং – ১১৮/২০২০ তারিখ- ২২সেপ্টেম্বর ২০২০। ধারা- ১৯/১৮৭৮ পেনাল কোড ১৮৬০, এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

ডিএমপি শাহবাগ থানার এফ আই আর নং- ২৬/৩০৩ তারিখ ১৫ অক্টোবর ২০২০। ধারা ১৪৩/১৪৭/১৮৬/৩৩২/৩৩৩/৩৫৩/১০৯ পেনাল কোড ১৬০ এই মামলায় সে এজাহারে অভিযুক্ত।

জানা গেছে, পাংশা থানায় জনির বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলা হওয়ার পর থেকেই পলাতক ছিলেন জনি। হাতুড়ি বাহিনীর প্রধান হিসেবেও তার নাম সামনে চলে আসে। এসব কারণে পাংশায় তিনি আলোচিত ছিলেন।

তিনি আবার একটি মামলারও বাদী:- পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মচারী মনোয়ার হোসেন জনি বাদী হয়ে ২০২০ সালের ৫ আগষ্ট বুধবার রাজবাড়ী ২ নম্বর আমলি আদালতে ‘দৈনিক বাংলা ৭১’, ‘উত্তরাধিকার-৭১’ নিউজ পোর্টাল এবং ‘উত্তরাধিকার’ ত্রৈমাসিক পত্রিকার সম্পাদক সাংবাদিক প্রবীর শিকদারের বিরুদ্ধে একটি মানহানির মামলা করে।

আদালতের বিচারক সুধাংশু শেখর রায় এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য পাংশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) আদেশ দিয়েছেন।

মামলায় বলা হয়, ‘মামলার বাদী প্রেষণে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত। বিবাদী ২৯ জুলাই সকাল সাড়ে ১০টায় তাঁর ফেসবুক আইডিতে “পাংশার অধ্যক্ষ আরজের বাড়িতে বোমা হামলার নায়ক জনি এবং ইউসুফ মেম্বার, নেপথ্যে এমপি জিল্লুল হাকিমের পুত্র মিতুল হাকিম” লিখে প্রচার করেন। একই তারিখে “এই সেই মনোয়ার হোসেন জনি, যাহাকে গ্রেপ্তার করলে মিলবে বিশাল অস্ত্রের ভান্ডার” লিখে বাদীর ছবি যুক্ত করে প্রচার করেন। ১ আগস্ট “স্যালুট রাজবাড়ীর পুলিশকে, রাজবাড়ী-২ আসনের এমপি জিল্লুল হাকিমের পুত্র মিতুল হাকিমের নিজস্ব ক্যাডার গ্রুপ মনোয়ার হোসেন জনির নেতৃত্বে হাতুড়ি বাহিনীর দুর্ধর্ষ ক্যাডার আলামিন মন্ডলকে দেশে তৈরি একটি শুটার গান, ৫ রাউন্ড গুলি ও চাপাতিসহ পাংশা থানা-পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে” লিখে প্রচার করে। এতে বাদীর ১ কোটি টাকার মানহানি হয়েছে।’

প্রবীর শিকদার বলেন, ‘সে একজন সরকারি কর্মচারী হয়েও একটি সশস্ত্র বাহিনীর নেতৃত্ব দেয়। একটি সন্ত্রাসী গ্রুপের নেতা হিসেবে কী করে এই মামলা করতে সাহস পায়, তা ভেবে আমি বিস্মিত!’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com