শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ১০:৩২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ, তদন্ত করছে দুদক ও মাউশি। কালের খবর তাড়াশে সেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কালের খবর যশোর সদরে ইউপি নির্বাচন ৫ জানুয়ারি। কালের খবর কুমড়া বড়ি তৈরি করতে ব‍্যস্ত তাড়াশের কারিগররা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় চেয়ারম্যান প্রর্থীসহ আহত ২০-অফিস ভাংচুর। কালের খবর যশোর সদর হাসপাতালে দালালদের কাছে জিম্মি রোগীরা। কালের খবর উৎপাদনে নতুন ‘দেশি মুরগি’, ৮ সপ্তাহে হবে এক কেজি। কালের খবর ইউপি নির্বাচনে শাহজাদপুরের ১০ ইউনিয়নে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা। কালের খবর যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর জাতীয় শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত। কালের খবর
খুলনার প্রধান প্রধান সড়কে খানাখন্দ, দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে নগরবাসীর চলাচল,

খুলনার প্রধান প্রধান সড়কে খানাখন্দ, দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে নগরবাসীর চলাচল,

খুলনা ;
খুলনা নগরীর প্রধান প্রধান সড়ক দীর্ঘদিন ধরে সংস্কার হয়নি। এতে পিচ-খোয়া উঠে বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দ তৈরি হয়েছে। কোথাও কোথাও মাটি সরে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই ডোবা-নালার আকার ধারণ করে সড়কগুলো। ১১ বছরেও সংস্কার হয়নি নগরীর গুরুত্বপূর্ণ শেখ আবু নাসের লিংক রোড। সাত বছর ধরে অবহেলায় পড়ে আছে কেডিএ বাইপাস লিংক রোড ও শিপইয়ার্ড সড়ক। ভাঙাচোরা এসব সড়কে চলাচলে দুর্বিষহ হয়ে উঠেছে নগরবাসীর জীবন।

শহর সম্প্রসারণের লক্ষ্যে ২০১৩ সালের ৩০ জুন ‘কেডিএ বাইপাস লিংক রোড’ সড়কটির নির্মাণকাজ শেষ করে কেডিএ। কাজ শেষ করার পর সড়কটি কেসিসি ও এলজিইডি কর্তৃপক্ষকে বুঝিয়ে দেয়া হয়। প্রায় আড়াই কিলোমিটার এ সড়কের নগরীর অংশ কেসিসি এবং বাকি অংশ এলজিইডি কর্তৃপক্ষের রক্ষণাবেক্ষণ করার কথা। তবে দীর্ঘদিন ব্যবহারের পর সেটি এখন চলাচল অনুপযোগী। সংস্কারের অভাবে সড়কটির দুই কিলোমিটার জুড়েই বড় বড় খানাখন্দ। প্রায় তিন বছর ধরে এ সড়কটি বন্ধ রয়েছে। এর বিভিন্ন অংশ ফসলের মাঠের মতো হয়ে গেছে।

বিআইডিসি রোড ও আবু নাসের লিংক রোড। খুলনা নিউজ প্রিন্ট মিলে স্থাপন করা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে গ্যাস পাইপলাইনের সংযোগ দিতে রাস্তাগুলো খোঁড়া হয়েছিল। ফেব্রুয়ারিতে তাদের কাজ শেষ হয়েছে এবং ক্ষতিপূরণ বাবদ অর্থও দেয়া হয়েছে খুলনা সিটি কর্পোরেশনকে (কেসিসি)। ক্ষতিপূরণের অর্থ পেয়েও সংস্কার করেনি কর্তৃপক্ষ। এ কারণে বর্ষা মৌসুমে এ সড়কে চলাচলে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে নগরবাসীকে। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, নিউজ প্রিন্ট মিলসহ বিভিন্ন কলকারখানা এবং অফিস-আদালত বিআইডিসি সড়কের পাশেই। প্রতিদিন হাজারও মানুষের যাতায়াত এ সড়কে। ২০০৮-০৯ অর্থবছরে নির্মাণ করা হয় শেখ আবু নাসের হাসপাতাল বাইপাস লিংক রোড। ১১ বছরেও সড়কটি আর মেরামত করা হয়নি। সড়কটির পাশেই শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতাল, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের সেক্টর সদর দফতর, নৌবাহিনী ঘাঁটি (বানৌজা তিতুমীর), বিএনএন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, অ্যাংকরেজ স্কুল, নৌবাহিনী ভর্তি কেন্দ্র, নাবিক কলোনি, পুলিশ লাইন, মুজগুন্নী শিশুপার্ক, ওয়ান্ডারল্যান্ড পার্কসহ কয়েকটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। ফলে সড়কটি দিয়ে জনসাধারণের চলাচলে দারুণ ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

এছাড়া নগরীর প্রাণকেন্দ্রের শান্তিধাম মোড়, গল্লামারি ব্রিজের গোড়া, সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন মোড়, খুলনা মেডিকেল কলেজের সামনের সড়ক এখন যেন মরণ ফাঁদ। বিভিন্ন স্থানে বড় বড় গর্ত। একটু বৃষ্টি হলেই ডোবা নালার আকার ধারণ করে সড়কগুলো। সড়কের এমন চিত্রের বিষয়ে কেসিসির নির্বাহী প্রকৌশলী-২ লিয়াকত আলী বলেন, যেসব রোড এখন খারাপ অবস্থায় রয়েছে তার বেশির ভাগেরই টেন্ডার কার্যক্রম সম্পন্ন হয়েছে। বর্ষা মৌসুমের কারণে কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। কেসিসির নির্বাহী প্রকৌশলী-৩ এম মশিউজ্জামান বলেন, কেডিএ সংস্কার করবে শিপইয়ার্ড সড়ক। ফলে এটি আর মেরামত করছে না কেসিসি। আর শান্তিধামসহ যেসব মোড়ের অবস্থা খারাপ সেগুলো বর্ষা শেষ হলেই মেরামত করা হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com