শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ০২:৪৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুর বন্যার প্রভাবে হাটভর্তি গরু, ক্রেতা কম !! কালের খবর রূপগঞ্জে কারখানার বিষাক্ত পানিতে মরে গেলো ৩ লাখ টাকার মাছ : অসুস্থ অর্ধশতাধিক স্থানীয় বাসিন্দা। কালের খবর মুরাদনগরে  দুর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক  বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত। কালের খবর বাঘারপাড়ায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের অর্থায়নে এক,শত শিক্ষার্থী কে বাইসাইকেল প্রদান। কালের খবর পৈত্রিক সম্পত্তি ভূমিদস্যু হাতে থেকে রক্ষার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন জগন্নাথপুরে রেমিটেন্স যোদ্ধার মৃত্যু এলাকায় শোকের ছায়া, জানাযা সম্পন্ন। কালের খবর সাইবার অপরাধ দমন ও অপপ্রচার ঠেকাতে একটি আলাদা ‘সাইবার পুলিশ ইউনিট’ হবে : সংসদে প্রধানমন্ত্রী রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ কর্মসূচি উদ্বোধন। কালের খবর ইউপি চেয়ারম্যান পিতার এক ছেলে এমপি আরেক ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যান। কালের খবর ঢাকা প্রেস ক্লাবের স্থায়ী সদস্য এম নজরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক। কালের খবর
কিশোরগঞ্জে বিনামূল‌্যের ‘ঈদ আনন্দ বাজার’। কালের খবর

কিশোরগঞ্জে বিনামূল‌্যের ‘ঈদ আনন্দ বাজার’। কালের খবর

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি, কালের খবর ঃ

কিশোরগঞ্জে করা হয়েছে এক ব্যতিক্রমী আয়োজন। অসহায় ২০০ পরিবারকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল ঈদ আনন্দ বাজারে। সেখানে প্রত‌্যেক পরিবারকে বিনামূল্যে দুই ধরনের চাল, তেল, দুধ, সেমাই, লবণ, চিনি, সাবান, শ্যাম্পু, মাস্ক, হ‌্যান্ড স‌্যানিটাইজার ও নতুন শাড়ি-লুঙ্গিসহ ১২ ধরনের পণ্য দেওয়া হয়। অন্তত এক সপ্তাহের খাবার পেয়ে তাদের মুখে অনেক দিন পর সুখের হাসি ফুটেছে।

শনিবার (২৩ মে) দুপুরে ব্যক্তিগত উদ্যোগে এ ঈদ আনন্দ বাজারের আয়োজন করেন কিশোরগঞ্জ সম্মিলিত নাগরিক ফোরামের প্রধান সমন্বয়কারী এনায়েত করিম অমি। শহরের নগুয়ার বিন্নগাঁও মহল্লায় নিজ বাসার সামনে খোলা জায়গায় এ ঈদ বাজারের আয়োজন করেন তিনি।

কোনো ধরনের আনুষ্ঠানিকতা না করে অভাবী লোকজনের জন্য খুলে দেওয়া হয় এ বাজার। সবাই নিজের হাতে সুশৃঙ্খলভাবে পণ্যগুলো নিয়ে হাসিমুখে বাড়ি ফেরেন।

প্রথমে প্রতিটি লোকের শরীরে জীবাণুনাশক ছিটিয়ে তাদের বাজারে প্রবেশ করানো হয়। পরে সাবান দিয়ে সবার হাত পরিষ্কার করিয়ে পরতে দেওয়া হয় হ্যান্ড গ্লাভস। এরপর স্বেচ্ছাসেবকরা তাদের নিয়ে যান পণ্যগুলোর সামনে। বিভিন্ন টেবিলে থরে থরে সাজানো জিনিসগুলো তারা নিজের হাতে ব্যাগে ভরে বাজার ত্যাগ করেন।

বাজারে আসা লোকজন জানান, এমন ব্যতিক্রমী ত্রাণ তৎপরতা তারা আগে দেখেননি। সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে এখানে যেভাবে লোকজনকে ঈদের উপহার দেওয়া হলো তা এক কথায় অসাধারণ।

ঈদ আনন্দ বাজারের আয়োজক এনায়েত করিম অমি বলেন, এ আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য—লোকজনকে শৃঙ্খলা শেখানো। প্রতিটি আয়োজনে করোনা ঝুঁকির বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে সবাই সচেতন থাকলে সবকিছু খোলা রেখেও করোনার এই দুর্যোগকে মোকাবিলা সম্ভব বলে আমি মনে করি। প্রথম পালায় ২০০ পরিবারের জন্য আয়োজনটি করা হয়। ঈদের পরে এর পরিধি আরো বাড়ানো হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com