রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ১১:৪১ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অনিয়মের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত। কালের খবর ঘিওরে কৃষকদের মানববন্ধনে নিয়মিত বর্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের জোরালো দাবি। কালের খবর বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই চট্টগ্রামের অভূতপূর্ব উন্নয়ন : খোরশেদ আলম সুজন। কালের খবর “ইন্টারন্যাশনাল প্রেস ক্লাব এন্ড হিউম্যান রাইটস” এর কেন্দ্রীয় কমিটির চূড়ান্ত প্রার্থিতা গ্রহণ। কালের খবর জগন্নাথপুরে প্রাথমিক শিক্ষক মদপান করে সাজা ভোগ করায় এলাকায় ক্ষোভ। কালের খবর ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতারা অসন্তোষ। কালের খবর হাইকোর্টের রায় : মোটরযানে বিজ্ঞাপনের জন্য ফি নিতে পারবে না বিআরটিএ। কালের খবর অবশেষে চালু হচ্ছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সীমান্ত হাট, তাজা মাছের চাহিদা ভারতের। কালের খবর
মাকে হত্যা করে রক্ত পান করেছে এক নরপিশাচ। কালের খবর

মাকে হত্যা করে রক্ত পান করেছে এক নরপিশাচ। কালের খবর

কালের খবর প্রতিবেদক :

ভারতের ছত্তিশগড়ে ইংরেজি নতুন বছরে এক মাকে হত্যা করে তার রক্ত পান করেছে এক নরপিশাচ। এ ঘটনা ঘটেছে ছত্তিশগড়ের বোরবা জেলায়। সেখানে দিলিপ যাদব নামে ২৯ বছর বয়সী ওই নরপিশাচ যখন তার মাকে হত্যা করে রক্ত পান করছিল তখন তা দেখে ফেলে অন্য একজন নারী। তিনি তা দেখে কাঁপতে কাঁপতে অস্থির হয়ে পড়েন। তিনি দিন পরে যখন সম্বিত ফিরে পান তখন সোজা চলে যান পুলিশের কাছে। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে উপস্থিত হয়। ততক্ষণে দিলিপ যাদব তার মায়ের মৃতদেহ টুকরো টুকরো করে কেটে পুড়িয়ে ফেলেছে। এ খবরটি প্রত্যন্ত এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে শনিবার।

তবে দিলিপকে ধরতে পারে নি পুলিশ। পলাতক রয়েছে সে। তাকে ধরতে পুলিশ হন্যে হয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।
পুলিশকে গ্রামবাসী বলেছে, দিলিপ তন্ত্রমন্ত্র চর্চা করে। মাঝে মাঝেই মানুষকে কোরবানি দেয়ার কথা বলে। সে তার মাকে ডাইনি বলে আখ্যায়িত করতো। দিলিপের পিতা ও ভাইয়ের মৃত্যুর জন্য সে তার মাকে দায়ী করে। কোরবার অতিরিক্ত এসপি জয়প্রকাশ বাধাই বলেন, সমিরন যাদব নামে একজন বৃহস্পতিবার রাতে চাইতমা পুলিশ স্টেশনে গিয়ে ঘটনার বর্ণনা দেন। এ কথা শুনে পুলিশ সদস্যরা স্তম্ভিত হয়ে পড়েন। সমিরণ পুলিশকে বলেছেন, তিনি একজন প্রতিবেশীকে দেখতে গিয়েছিলেন ৩১ শে ডিসেম্বর সকালে। নিয়মিত তিনি ওই প্রতিবেশীকে দেখতে যেতেন। তিনি দিলিপের ঘরের কাছে যেতেই ভয়ঙ্কর এক শব্দ শুনতে পান। যতই কাছে এগিয়ে যান দেখতে পান দিলিপ তার মাকে মাথায়,

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com