বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ০৭:২৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসায় ও বাসাবাড়িতে চরমভাবে ব্যাহত। কালের খবর টেকের হাট বন্দরে দিন দুপুরে ৫ লক্ষ টাকা ছিনতাই, চারজন আটক। কালেন খবর ১৫ টি পূজা মন্ডপে আর্থিক অনুদান ও পরিদর্শন করলেন এমপি মনু। কালের খবর দেশের অনেক এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করা হচ্ছে : নসরুল হামিদ। কালের খবর মহেশরৌহালীর ৩ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল দশা। কালের খবর দুর্গাপূজায় মন্দিরে-মণ্ডপে সতর্ক পাহারা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। কালের খবর সখীপুরে কো-কম্পোষ্ট প্লান্টের ৮ ম বার্ষিকী উদযাপন। কালের খবর নাসিরনগরে দুর্নীতির মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ভাতা তুলছেন ১২ সুস্থ ব্যক্তি। কালের খবর সখীপুরে ছাত্রলীগের দু-গ্রুপের পাল্টাপাল্টি মিছিল সমাবেশ। কালের খবর সলিমগঞ্জে প্রতারক দালাল চক্রের কান্ড : আদালতে মামলা থাকা সম্পত্তি গোপনে বিক্রি করার অপচেষ্টা। কালের খবর
অধিকাংশ নারীই ভালোবাসার মানুষের হাতেই খুন হয় ! । কালের খবর

অধিকাংশ নারীই ভালোবাসার মানুষের হাতেই খুন হয় ! । কালের খবর

কালের খবর ডেস্ক  :  ভালোবাসার রহস্য বুঝি এখানেই! ভালোবাসা থেকে ঘৃণা আর তা থেকেই খুন। অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটিই বাস্তব হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিসংখ্যানে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত কয়েক দশকে যত নারী খুন হয়েছেন, তাদের খুনীদের অধিকাংশই কোনো না কোনো সময় তাদের ভালোবাসার মানুষ ছিলেন।
ভালোবাসার মানুষের হাতেই খুন হচ্ছে অধিকাংশ নারী। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গত কয়েক দশকের খুনের পরিসংখ্যানের এ বিষয়টি অনেকেরই অবিশ্বাস্য মনে হতে পারে। কিন্তু মার্কিন সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোলের (সিডিসি) গবেষকরা এ বিষয়টিতে নিশ্চিত হয়েছেন।

এ পরিসংখ্যানের ভিত্তিতে গবেষকরা বলছেন, একজন নারীর খুন হওয়ার আশঙ্কা অন্য কারো হাতে নয় বরং ভালোবাসার মানুষের হাতে হওয়ার ভয়ই সবচেয়ে বেশি।

গবেষকরা বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ার জন্য ২০০৩ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে খুন হওয়া ১০,০০০ নারীর তথ্য বিশ্লেষণ করেন। এতে দেখা যায় খুন হওয়া নারীদের ৫৫ শতাংশকেই খুন করেছে তাদের এক সময়ের বয়ফ্রেন্ড, স্বামী অথবা প্রেমিকের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট। এ ৫৫ শতাংশ খুনের ৯৩ শতাংশ ক্ষেত্রেই সরাসরি খুন করেছে সেই ভালোবাসার মানুষ বা একসময় তাকে ভালোবাসত এমন মানুষ। বাকি সাত শতাংশ তাদেরই পরিচিত কেউ।

খুন হওয়া নারীদের ৯৮ শতাংশই কোনো না কোনো পুরুষের হাতে খুন হয়।

অপরিচিত মানুষকে ভয় পায় অনেক নারীই। কিন্তু পরিসংখ্যানে বলছে অপরিচিতদের হাতে বিপদের আশঙ্কা পরিচিতদের তুলনায় অনেক কম। একেবারে অপরিচিত মানুষের হাতে নারীর খুন হওয়ার হার মাত্র ১৬ শতাংশ। বাকিরা পরিচিতের হাতেই খুন হয়।

এ ধরনের খুন কি প্রতিরোধ করা সম্ভব? এ প্রসঙ্গে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ১১.২ শতাংশ ক্ষেত্রে সঙ্গীর সঙ্গে ঝগড়াঝাটি ও মতবিরোধ দেখা যায় খুন হওয়ার আগে। আর সে সময়েই যদি বিষয়টি বুঝতে পেরে সতর্ক থাকা যায় কিংবা সম্পর্ক পরিত্যাগ করা যায় তাহলে জীবন রক্ষা করা সম্ভব। এক্ষেত্রে তরুণ-তরুণীদের প্রশিক্ষণ দেওয়া যেতে পারে যে, কোন ধরনের আচরণ থেকে বুঝতে হবে তার জীবনহানীর আশঙ্কা রয়েছে।

পুরুষের ক্ষেত্রে অবশ্য পরিসংখ্যানটি ভিন্ন। গবেষকরা বলছেন, প্রায় পাঁচ থেকে সাত শতাংশ পুরুষ নারী অন্তরঙ্গ সঙ্গীর হাতে খুন হয়।

        দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন । 

সূত্র : নিউ ইয়র্ক পোস্ট

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com