বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৬:১৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ছাই হওয়া স্বপ্ন গড়লেন লাগালেন এমপি ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন’। কালের খবর বাঘারপাড়ায়-পদ্মা সেতু উদ্বোধনের আনন্দে এলাকাবাসী কে মিষ্টি খাওয়ালো (চায়ের দোকানদার) মারজোন মোল্লা। কালের খবর কানাইঘাটে বিএমএসএফ ও রেড ক্রিসেন্টের যৌথ উদ্যোগে বন্যার্তদের ফ্রি চিকিৎসাসহ ঔষধ বিতরণ। কালের খবর সরকার সারা দেশে যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন করছে : প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর শাহজাদপুরে বাধা দেয়ার পরও সহবাস করায় ব্লেড দিয়ে স্বামীর লিঙ্গ কর্তন করলো স্ত্রী!। কালের খবর পদ্মাসহ সকল সেতুতে সাংবাদিকদের টোল ফ্রি করা উচিৎ: বিএমএসএফ। কালের খবর বৃহত্তর ডেমরার যাত্রাবাড়ি বর্ণমালা স্কুলের অধ্যক্ষ ও সভাপতির দুর্নীতি তদন্তে কমিটি গঠন। কালের খবর স্বপ্নের পদ্মা সেতু দেখা হলো না শিশু নাসিমের। কালের খবর তাড়াশ উপজেলায় পাট কাটার ধুম পরেছে। কালের খবর নবীনগরে বুনিয়াদি প্রশিক্ষণ। কালের খবর
পুলিশের বাধায় পণ্ড বিএনপির বিক্ষোভ কর্মসূচি

পুলিশের বাধায় পণ্ড বিএনপির বিক্ষোভ কর্মসূচি

কালের খবর প্রতিবেদন : পুলিশের বাধায় পণ্ড হয়েছে কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আয়োজিত বিক্ষোভ কর্মসূচি। লাঠিচার্জের মাধ্যমে বিক্ষোভ মিছিল ছত্রভঙ্গ করার পাশাপাশি বিএনপি ও অঙ্গদলের কয়েকজন নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এ সময় বিক্ষোভকারীরা পুলিশের একটি গাড়ি ভাঙচুর করে।

উল্লেখ্য, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রোববার ৭দিনের কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল বিএনপি। তারই অংশ হিসেবে আজ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির বিক্ষোভ মিছিলটি মতিঝিলের অগ্রণী ব্যাংকের সামনে থেকে শুরু হওয়ার কথা ছিল।


সেখানে বিপুল সংখ্যক পুলিশের অবস্থানের কারণে স্থান পরিবর্তন করে বায়তুল মোকাররমে করার সিদ্ধান্ত নেয় বিএনপি। মিছিলের স্থান পরিবর্তনের কারণে বায়তুল মোকাররমে নেতাকর্মীরা জড়ো হওয়ার সময় পান মাত্র ২০ মিনিট। দুপুর ১টা ৫০মিনিটের দিকে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটের আজাদ প্রোডাক্টের সামনে থেকে শুরু হয় পূর্বঘোষিত বিক্ষোভ মিছিল। মিছিলটি দৈনিক বাংলা অভিমুখে কিছুদূর যেতেই পুলিশের বাধার মুখে পড়ে। কয়েক মিনিটের মধ্যেই লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ।

বিক্ষোভকারীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ছুড়তে থাকে ইট-পাটকেল। পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে। বিক্ষোভকারীও ইট ছোড়ে। ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া চলাকালে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায় পুরানা পল্টনে। এ সময় পুলিশ বিক্ষোভকারীদের লাঠিপেটা করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। এসময় ছাত্রদলের একজন কর্মী রাস্তায় পড়ে গেলে পুলিশের এক অফিসার তার মাথায় পিস্তল ধরে শুইয়ে রাখে। পরে অন্য পুলিশ সদস্যরা তাকে আটক করে।
বিএনপি নেতাকর্মীদের পাশাপাশি পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে বাংলা টিভির রিপোর্টার আরমান কায়েস ও তার ক্যামেরাম্যানকেও আটক করে পুলিশ।

মিছিলে স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদির ভূঁইয়া জুয়েল,ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক হাবিবুর রাশিদ হাবিব, যুবদলের সহ সভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, মীর নেওয়াজ আলী, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নূরুল ইসলাম নয়ন, ছাত্রদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মামুনুর রশিদ মামুন, সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসান, সহ সভাপতি আতিক আল হাসান মিন্টু, আলমগীর হাসান সোহান, যুগ্ম সম্পাদক মফিজুর রহমান আশিক, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসহাক সরকারসহ বিএনপির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com