শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পুলিশ চাইলে সব পারে- দুই ঘন্টায় হারানো মোবাইলসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র উদ্ধার। কালের খবর সখীপুরে টিনের বেড়া কেটে দোকানের মালামাল লুট। কালের খবর অসৌজন্যমূলক আচরণের প্রতিবাদে অনুষ্ঠান বর্জন সাংবাদিকদের। কালের খবর সিরাজগঞ্জে চলনবিলে শামুক-ঝিনুক নিধন করছে অসৎ ব‍্যবসায়ীরা। কালের খবর। মানিকগঞ্জের সিংগাইরে ইউপি চেয়ারম্যনের বিরুদ্ধে নারীকে ধর্ষন ও গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগ। কালের খবর বিরামপুরে মহা সড়ক ঢাকা মোড়ে পাথরবাহী ট্রাকের চাঁপায় ডিভাইডার ভেংঙ্গে যাতায়াতের দূর্ভোগ। কালের খবর বাঘারপাড়ায় ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ এর (এজেন্ট ব্যাংক ) শাখার উদ্বোধন। কালের খবর রসে ভরা টস টসে ভিটামিন সি, যুক্ত পেয়ারার উপকারিতা। কালের খবর দালাল ছাড়া হালাল হয় না কিছুই। কালের খবর সখীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ যুবক নিহত। কালের খবর
চিকিৎসার নামে স্পর্শকাতর স্থানে গরম লোহার ছ্যাঁকা

চিকিৎসার নামে স্পর্শকাতর স্থানে গরম লোহার ছ্যাঁকা

কালের খবর প্রতিনিধি: কবিরাজের বিরুদ্ধে চিকিৎসার নামে এক গৃহবধূকে নির্মম নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। ওই গৃহবধূর জিহ্বা, মুখ ও স্পর্শকাতর স্থানসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গরম লোহার ছ্যাঁকা দিয়ে পোড়ানো হয়েছে বলে অভিযোগ স্বজনদের। এ ঘটনায় অভিযুক্ত কবিরাজকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে মুমূর্ষু অবস্থায় গৃহবধূ জয়নবকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। বিকেলে সার্জারি ওয়ার্ডে নেয়া হলেও সন্ধ্যায় স্থানান্তর করা হয় ওয়ানস্টপ ক্রাইসিস সেন্টার ওসিসিতে। সেখানে চিকিৎসার নামে কবিরাজের নির্মম নির্যাতনের বর্ণনা দেন জয়নব।

নির্যাতিতা জয়নব বলেন, ‘আগুন জ্বালিয়ে মাল্টা আগুনে দিল। এরপর আমার হাত-পা বেঁধে সেই গরম মাল্টা আমার জিহবায় ঢুকিয়ে দিল।’

স্বামী ঝালমুড়ি বিক্রেতা নূর মোহাম্মদ জানান, সম্প্রতি স্ত্রী জয়নব অস্বাভাবিক আচরণ করায় তার ভাড়া বাড়ির মালিকের মাধ্যমে কবিরাজের দ্বারস্থ হন। সাত দিন ধরে চিকিৎসা করেন কবিরাজ।

নির্যাতিতার স্বামী নূর মোহাম্মদ বলেন, ‘বিশ হাজার টাকা দাবি করেছিল উনি। বাড়িওয়ালা বলেছি তিন হাজার টাকা দেব। তিন হাজার টাকা দেয়ার পরে তারা এই কাজ করে।’

অভিযুক্ত কবিরাজ মুনশি কবিরাজ বলেন, ‘এটা করলে ভূত-টুত থাকলে চলে যায়। ভূত থাকে না। এই শিক্ষাটা এক হিন্দু মুরব্বি মারা যাওয়ার আগে আমাকে শিখিয়ে দিয়েছিল।’

ঘটনা জেনে পুলিশ কবিরাজের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।

রংপুর কোতয়ালি থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বাবুল মিয়া বলেন, ‘ইতিমধ্যে তাকে আটক করা হয়েছে। সে দোষী হলে তাকে উপযুক্ত শাস্তি দেয়া হবে।’

নূর মোহাম্মদের ভাড়া বাড়ির মালিক মাইদুল পাশের গ্রামের মুনশি কবিরাজের কাছে চিকিৎসা করাতে কুড়ি হাজার টাকায় চুক্তি করিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু জয়নবের করুণ পরিণতির পর ওই দিনই তাদের বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন।

কালের খবর -/৮/৩/১৮

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com