শনিবার, ১৪ মে ২০২২, ০৮:১০ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
মাদারীপুরের টেকেরহাটে সড়ক দূর্ঘটনায় দাদা নাতি নিহত ২, গুরুতর আহত ১। কালের খবর ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের নেতৃত্বে আশুতোষ-দিদার-সরোয়ার। কালের খবর বাস যাত্রীদের প্রাণ বাঁচানো সেই ট্রাফিক পুলিশদের পুরস্কৃত করেন ডিএমপি কমিশনার। কালের খবর ড.ওয়াজেদ মিয়ার ১৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত। কালের খবর ‘কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ সাধারন মানুষের জন্য ছিলেন নিবেদিত প্রাণ’: নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী। কালের খবর নবীনগরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় সাবেক এমপির জানাজা অনুষ্ঠিত হবিগঞ্জের মাধবপুরে তরুণীর স্তন ও হাত কেটে দিয়েছে বখাটেরা। কালের খবর নবীনগরে তিন বছর পর কবর থেকে মুক্তিযোদ্ধার লাশ উত্তোলন। কালের খবর কবিগুরুর ১৬১ তম জন্মজয়ন্তীতে ৩ দিন ব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন আগামীকাল। কালের খবর নবীনগরে ৯৮ শিক্ষা ব্যাচের উদ্যোগে বনাঢ্য ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত। কালের খবর
গৃহবধূকে নগ্ন করে শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন । কালের খবর

গৃহবধূকে নগ্ন করে শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন । কালের খবর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, কালের খবর :- স্বামীর অবর্তমানে শাশুড়ি ও ননদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ। মারধর করে ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে পোশাক। অবশেষে নগ্ন অবস্থাতেই থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন সেই গৃহবধূ।

ওই অবস্থায় তাঁকে দেখে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি কেউ। বরং পকেট থেকে মোবাইল ফোন বার করে গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করলেন রাস্তার লোকজন।

রোববার ভারতের রাজস্থানের চুরু জেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের শিকার ওই মহিলা আদতে মহারাষ্ট্রের আকোলার মেয়ে। বিয়ের পর চুরুর বিদসর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি চলে আসেন।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার স্বামী পেশায় দিন মজুর। কর্মসূত্রে অসমে থাকেন তিনি। তাঁর অনুপস্থিতিতে শাশুড়ি ও ননদ মিলে ওই মহিলার উপর নির্যাতন চালান। রোববার ঝগড়া বাধলে ওই মহিলাকে মারধর করা হয়। ছিড়ে দেওয়া হয় পড়নের শাড়ি-ব্লাউজও। তাতেই মাথা ঠিক রাখতে পারেননি তিনি। সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থাতেই থানার উদ্দেশে বেরিয়ে পড়েন।

সুজনগড় থানায় শাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন ওই মহিলা। বর্তমানে পুলিশি নিরাপত্তাতেই রয়েছেন তিনি।

বিদাসার পুলিশের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, থানায় পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় গৃহবধূকে ঘিরে ধরে তামাশা করতে থাকেন এলাকার লোকজন। থানায় ঢোকার মুখেও তাকে হেনস্থা করার চেষ্টা করেন কয়েক যুবক। মহিলার ভিডিও তোলা হয়।

পুলিশ কর্তার কথায়, ‘‘বিধ্বস্ত অবস্থায় সাহায্যের জন্য থানায় ছুটে এসেছিলেন গৃহবধূ। সারা শরীরে ছিল দগদগে ক্ষত চিহ্ন। অবাক লাগে শুধু ছেলেরা নয়, মহিলারাও তাঁকে এই অবস্থায় দেখে কটূক্তি করতে ছাড়েননি। শ্বশুরবাড়ির লোকজন শুধু নয়, যাঁরা সেদিন তাঁর ভিডিও তুলেছিলেন সকলকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে।’’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com