বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
“নবজাগরণ “( নসাস) আত্মপ্রকাশ : আহবায়ক অলিদ তালুকদার ও সদস্য সচিব এডভোকেট স্বপ্নীল। কালের খবর ফিলিপাইন জাতের আখ চাষে চেয়ারম্যানের সফলতা। কালের খবর জাতিসংঘে এবারও বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর প্রথম ধাপের ১৬১ ইউপি নির্বাচনের প্রচারণা শেষ। কালের খবর যশোরে গ্রাম ডাক্তার কল্যান সমিতির আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর শিক্ষামন্ত্রীর অনুষ্ঠানে হট্টগোল : মন্ত্রী চলে যাওয়ার পর রাগ উগড়ে দিলেন এমপি মনু। কালের খবর বীর মুক্তিযোদ্ধা ছাত্রনেতা শাহাজুল আলমের ৪৬তম মৃত্যার্ষিকী। কালের খবর মানিকগঞ্জে ব্যবসায়ীকে মারধর, দোকানপাট বন্ধ রেখে ব্যবসায়ীদের প্রতিবাদ। কালের খবর পুলিশ চাইলে সব পারে- দুই ঘন্টায় হারানো মোবাইলসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র উদ্ধার। কালের খবর সখীপুরে টিনের বেড়া কেটে দোকানের মালামাল লুট। কালের খবর
গৃহবধূকে নগ্ন করে শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন । কালের খবর

গৃহবধূকে নগ্ন করে শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন । কালের খবর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, কালের খবর :- স্বামীর অবর্তমানে শাশুড়ি ও ননদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ। মারধর করে ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে পোশাক। অবশেষে নগ্ন অবস্থাতেই থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন সেই গৃহবধূ।

ওই অবস্থায় তাঁকে দেখে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি কেউ। বরং পকেট থেকে মোবাইল ফোন বার করে গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করলেন রাস্তার লোকজন।

রোববার ভারতের রাজস্থানের চুরু জেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের শিকার ওই মহিলা আদতে মহারাষ্ট্রের আকোলার মেয়ে। বিয়ের পর চুরুর বিদসর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি চলে আসেন।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার স্বামী পেশায় দিন মজুর। কর্মসূত্রে অসমে থাকেন তিনি। তাঁর অনুপস্থিতিতে শাশুড়ি ও ননদ মিলে ওই মহিলার উপর নির্যাতন চালান। রোববার ঝগড়া বাধলে ওই মহিলাকে মারধর করা হয়। ছিড়ে দেওয়া হয় পড়নের শাড়ি-ব্লাউজও। তাতেই মাথা ঠিক রাখতে পারেননি তিনি। সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থাতেই থানার উদ্দেশে বেরিয়ে পড়েন।

সুজনগড় থানায় শাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন ওই মহিলা। বর্তমানে পুলিশি নিরাপত্তাতেই রয়েছেন তিনি।

বিদাসার পুলিশের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, থানায় পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় গৃহবধূকে ঘিরে ধরে তামাশা করতে থাকেন এলাকার লোকজন। থানায় ঢোকার মুখেও তাকে হেনস্থা করার চেষ্টা করেন কয়েক যুবক। মহিলার ভিডিও তোলা হয়।

পুলিশ কর্তার কথায়, ‘‘বিধ্বস্ত অবস্থায় সাহায্যের জন্য থানায় ছুটে এসেছিলেন গৃহবধূ। সারা শরীরে ছিল দগদগে ক্ষত চিহ্ন। অবাক লাগে শুধু ছেলেরা নয়, মহিলারাও তাঁকে এই অবস্থায় দেখে কটূক্তি করতে ছাড়েননি। শ্বশুরবাড়ির লোকজন শুধু নয়, যাঁরা সেদিন তাঁর ভিডিও তুলেছিলেন সকলকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে।’’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com