বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৬:৩৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
গাছে গাছে আমের মুকুল, মৌ মৌ ঘ্রাণে ব্যকুল মানুষ। কালের খবর নির্মাণ শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানাল ইনসাব। কালের খবর ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন ২০২৪। কালের খবর মুরাদনগরে কৃষি কার্যক্রম পরিদর্শনে মার্কিন দূতাবাস প্রতিনিধি। কালের খবর কুষ্টিয়ায় বাজার থেকে ক্রয় করা মাংসে মিলল পুরুষাঙ্গ ! কালের খবর চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অতিথি ডটকমের জমকালো ডায়মন্ড সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম। কালের খবর শাহজাদপুরে সরিষা আনতে মাঠে যাচ্ছিলেন হাবিব, হঠাৎ বজ্রপাত। কালের খবর চোর চক্রের তিন সদস্য আটক দুটি মটরসাইকেল উদ্ধার কালের খবর টেকনাফে লক্ষাধিক ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক। কালের খবর একুশের বই মেলায় রাজু আহমেদ মোবারকের ‘সত্য সুন্দরের সন্ধানে’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন। কালের খবর
গৃহবধূকে নগ্ন করে শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন । কালের খবর

গৃহবধূকে নগ্ন করে শাশুড়ি-ননদের নির্যাতন । কালের খবর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, কালের খবর :- স্বামীর অবর্তমানে শাশুড়ি ও ননদের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছেন এক গৃহবধূ। মারধর করে ছিঁড়ে দেওয়া হয়েছে পোশাক। অবশেষে নগ্ন অবস্থাতেই থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন সেই গৃহবধূ।

ওই অবস্থায় তাঁকে দেখে সাহায্য করতে এগিয়ে আসেননি কেউ। বরং পকেট থেকে মোবাইল ফোন বার করে গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করলেন রাস্তার লোকজন।

রোববার ভারতের রাজস্থানের চুরু জেলায় এই ঘটনা ঘটেছে। নির্যাতনের শিকার ওই মহিলা আদতে মহারাষ্ট্রের আকোলার মেয়ে। বিয়ের পর চুরুর বিদসর এলাকায় শ্বশুরবাড়ি চলে আসেন।

স্থানীয় পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই মহিলার স্বামী পেশায় দিন মজুর। কর্মসূত্রে অসমে থাকেন তিনি। তাঁর অনুপস্থিতিতে শাশুড়ি ও ননদ মিলে ওই মহিলার উপর নির্যাতন চালান। রোববার ঝগড়া বাধলে ওই মহিলাকে মারধর করা হয়। ছিড়ে দেওয়া হয় পড়নের শাড়ি-ব্লাউজও। তাতেই মাথা ঠিক রাখতে পারেননি তিনি। সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থাতেই থানার উদ্দেশে বেরিয়ে পড়েন।

সুজনগড় থানায় শাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন ওই মহিলা। বর্তমানে পুলিশি নিরাপত্তাতেই রয়েছেন তিনি।

বিদাসার পুলিশের এক শীর্ষ আধিকারিক জানিয়েছেন, থানায় পৌঁছানোর আগেই রাস্তায় গৃহবধূকে ঘিরে ধরে তামাশা করতে থাকেন এলাকার লোকজন। থানায় ঢোকার মুখেও তাকে হেনস্থা করার চেষ্টা করেন কয়েক যুবক। মহিলার ভিডিও তোলা হয়।

পুলিশ কর্তার কথায়, ‘‘বিধ্বস্ত অবস্থায় সাহায্যের জন্য থানায় ছুটে এসেছিলেন গৃহবধূ। সারা শরীরে ছিল দগদগে ক্ষত চিহ্ন। অবাক লাগে শুধু ছেলেরা নয়, মহিলারাও তাঁকে এই অবস্থায় দেখে কটূক্তি করতে ছাড়েননি। শ্বশুরবাড়ির লোকজন শুধু নয়, যাঁরা সেদিন তাঁর ভিডিও তুলেছিলেন সকলকে চিহ্নিত করে গ্রেফতার করা হবে।’’

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com