সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ০২:২৮ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ঠিকাদারদের সাথে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ”র মতবিনিময় সভা-সম্পন্ন। কালের খবর গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় অনিয়মের অভিযোগে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বরখাস্ত। কালের খবর ঘিওরে কৃষকদের মানববন্ধনে নিয়মিত বর্ষা ও জলবায়ু সুবিচারের জোরালো দাবি। কালের খবর বঙ্গবন্ধুর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই চট্টগ্রামের অভূতপূর্ব উন্নয়ন : খোরশেদ আলম সুজন। কালের খবর “ইন্টারন্যাশনাল প্রেস ক্লাব এন্ড হিউম্যান রাইটস” এর কেন্দ্রীয় কমিটির চূড়ান্ত প্রার্থিতা গ্রহণ। কালের খবর জগন্নাথপুরে প্রাথমিক শিক্ষক মদপান করে সাজা ভোগ করায় এলাকায় ক্ষোভ। কালের খবর ময়মনসিংহ বিআরটিএ টাকা ছাড়া কাজ করেন না সহকারী পরিচালক এস এম ওয়াজেদ, সেবাগ্রহীতারা অসন্তোষ। কালের খবর
কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে আইপি এল খেলার নামে চলছে জমজমাট জোয়ার আসর। কালের খবর

কিশোরগঞ্জের তাড়াইলে আইপি এল খেলার নামে চলছে জমজমাট জোয়ার আসর। কালের খবর

তাড়াইল থেকে ওয়াসিম সোহাগ, কালের খবর :

কিশোরগঞ্জের তাড়াইল উপজেলায় আইপি এল খেলার নামে জমজমাট জোয়া বানিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সাতটি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত তাড়াইল উপজেলা,তালজাঙ্গা,রাউতি,জাওয়ার,ধলা,দামিহা,দিগদাইড়,ও তাড়াইল সাচাইল।প্রতিটি ইউনিয়নে রয়েছে গ্রাম্য হাট বাজার ও রাস্তার মোড়ে মোড়ে দোকানপাট বা চায়ের স্টল।দোকানিরা বা চা বিক্রেতারা তাদের বেচাকেনা বেশী হওয়ার জন্য টিভি,সিডি দেখার ব্যাবস্হা করে রেখেছে। এই সুবাদে কিছু অসাধু ব্যাক্তি খেলা দেখার ছলে জুয়া খেলায় মেতে ওঠে।এক্ষেত্রে কিছু জুয়ারো ছাড়াও শিক্ষিত,অশিক্ষিত, শ্রমিক মালিক থেকে শুরু করে কিশোর বয়সের ছেলেরাও এই সর্বনাশা খেলায় মেতে ওঠেছে। কিছু মানুষ সাময়িক লাভবান হলেও বেশীর ক্ষেত্রেই টাকা হেরে গিয়ে সর্বশান্ত হচ্ছে।ফলে পরিবারে বাড়ছে অশান্তি ঋনে জর্জরিত হয়ে এলাকা ছাড়া হচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজনের কাছ থেকে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে– দলের খেলা শুরু হওয়ার আগে দুজন, চারজন,বা গ্রুফ বেধে দুটি দলের পক্ষ নেয়। যে দল হেরে যাবে সেই দলের পক্ষের লোকজন অপর পক্ষকে তাদের বাজির টাকা দিয়ে দিতে হয়।আবার যাদের টাকা বেশী তারা দেখা যায় কম সময়ে বেশী টাকার ছড়াছড়ি করে। যেমন কোন ব্যাটসম্যান এই বলে ছক্কা, চার মারবে কিনা এই বিষয়ে জোয়া ধরা হয়।ফলে এক ওভারে মাত্র ছয়টি বলেই অনেক টাকার খেলা হয়ে যায়।চায়ের দোকানদারদের জিজ্ঞাসাকরে জানতে পারলাম। ওরা যে খেলা দেখার ছলে কিছু একটা করে তা তারা বুজতে পারে। কিন্তু বেচাকেনার স্বার্থে তারা নীরব থাকে। একটি খেলা দেখতে গিয়ে স্টল ভর্তি লোকজন দীর্ঘ সময় বসে থাকে, বসে থাকার কারনে তাদেরকে একটু পরে পরেই চা, পান,সিগারেট দেওয়া হয়। যারফলে দোকানীর বেচাকেনা জমে ওঠে। আবার কিছু কিছু দোকানিরাও এই সর্বনাশার জোয়ার সাথে জড়িত আছে বলে খবর পাওয়া যায়। নীতি বর্জিত কিছু প্রতিষ্টিত ব্যাবসয়ীও মোবাইল ফোনের মাধ্যমে অপর পক্ষের সাথে যোগাযোগ করে টিভি সেটের সামনে বসে যায় ও মোটা অঙ্কের টাকার জোয়া খেলে যায়। সমগ্র উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে একই রকমের চিত্র খুজে পাওয়া যায়। অনেকের ধারনা এরকম রমরমা গোপন জোয়ার আসর সারা দেশের প্রায় সব জায়গাতেই বিরাজমান।তাই এই সমস্যা থোকে উত্তরনের জন্য প্রশাসন সহ সর্ব সাধারনের সার্বিক সহযোগীতা  চায় এলাাকাবাসী । 

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com