শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
একটি সেতুর জন্য হাজার হাজার মানুষের দূর্ভোগের সমাপ্তি হলো। কালের খবর ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন শিগগিরই সংশোধন : আইনমন্ত্রী। কালের খবর শালিখায় চারটি দিবস উপলক্ষে সাইনবোর্ড প্রেস ক্লাবের প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর শাহজাদপুরের তাঁত শিল্পী জান্নাত লোপকে সংবর্ধনা ও সম্মাননা প্রধান। কালের খবর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সাব-রেজিস্ট্র্রি অফিসে জাল দলিলের ছড়াছড়ি। কালের খবর সিদ্ধিরগঞ্জে প্রাণ বল্লভ মিষ্টান্ন ভান্ডারে অভিযান : ১ লাখ জরিমানা। কালের খবর ফরিদগঞ্জ মজিদিয়া কামিল মাদরাসার সাফল্য। কালের খবর ঝিনাইদহে দুই পৌরসভায় আ’লীগ প্রার্থী জয়ী। কালের খবর ফুলেল শুভেচ্ছায় আমাদের কণ্ঠ পত্রিকার বর্ষপূর্তি পালিত। কালের খবর পদ্মা সেতু রেল সংযোগ নির্মাণ : পাল্টে যাবে যশোরের বসুন্দিয়ার চিত্র। কালের খবর
বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন। কালের খবর

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন। কালের খবর

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন

রাঙ্গামাটি প্রতিনিধি, কালের খবর :

রাঙ্গামাটির লংগদুতে বিয়ের দাবিতে কনকনে শীত উপেক্ষা করে প্রেমিক নূর নবীর (২০) বাড়িতে অনশনে বসেছেনএকপ্রেমিকা (১৯)।

মঙ্গলবার রাত থেকে উপজেলার মাইনীমুখ ইউনিয়নের মুসলিমব্লক এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

জানা যায়, স্থানীয় কলেজে পড়ার সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ নিয়ে বুধবার সকালে এলাকায় জনসাধারণের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ সময় প্রেমিক নূর নবীর বাড়িতে ভিড় জমান এলাকাবাসী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত থেকে আবুল হাসেমের ছেলে প্রেমিক নূর নবীর বাড়িতে কালাপাকুজ্যা ইউনিয়নের এক তরুণী বিয়ের দাবিতে অনশন করছে। এর আগেও দুবার একই দাবিতে ছেলের বাড়িতে গিয়ে ওঠে মেয়েটি।

সেই সময় ছেলের অভিভাবকরা বিয়ের আশ্বাস দিয়ে মেয়েটিকে তার বাড়িতে পাঠিয়ে দেন। বর্তমানে ছেলের পরিবারে তার বৃদ্ধা দাদি ও এক প্রতিবন্ধী চাচা ছাড়া আর কেউ নেই বলে প্রতিবেশীরা জানান।

প্রেমিকা বলেন, গত দেড় বছর আগেথেকেইসহপাঠী নূর নবীর সঙ্গে আমার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।পারিবারিকভাবে আমার বিয়ের প্রস্তাব দেয়া হলেও নূর নবী আমাকে বিয়ে না করার জন্য চাপ দিত।

ও আমাকে বিয়ে করবে বলে আশ্বাস দিয়েছে। গত কয়েক মাস আগে আমার সঙ্গে নূর নবী যোগাযোগ বন্ধ করে দেয়। আমি খোঁজ নিয়ে জানতে পারি, নূর নবী চট্টগ্রামে অবস্থান করছে। নূর নবীর পরিবার সেখানেই তার বিয়ের ব্যবস্থা করেছে।

আমার দাবি, নূর নবীসহ তার পরিবারের লোকজন বিয়ের বিষয়টির সুরাহা দিতে হবে। তা না করা পর্যন্ত আমার অনশন চলবে বলে জানান প্রেমিকা।

এ বিষয়ে মাইনীমুখ ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড সদস্য আজগর আলী বলেন, আমি বর্তমানে এলাকার বাইরে আছি। স্থানীয় লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছি, যাতে উভয় পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে স্থানীয়ভাবে বিষয়টির মীমাংসার করে দেয়া হয়। বর্তমানে যা মীমাংসার পথে রয়েছে বলে তারা আমাকে জানিয়েছেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com