শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ঝাড়ফুঁকের নামে গৃহবধূকে ধর্ষণ কবিরাজ ও তার সহযোগী গ্রেফতার। কালের খবর শাহজাদপুরে ট্যাংকলরি সিএনজি টেম্পুর মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২ ; আহত ৩। কালের খবর পোরশায় কঠোর ভাবে পালিত হচ্ছে লকডাউন। কালের খবর সীতাকুণ্ডে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ব্যবসায়ীর পৈতৃক সম্পত্তি জবরদখল করে গৃহ নির্মাণ। কালের খবর পাংশার হাতুড়ি বাহিনীর প্রধান একাধিক মামলার আসামি জনি কে পিটিয়ে জখম করলো দূর্বৃত্তরা। কালের খবর টঙ্গীতে লকডাউনের সুযোগে বিরোধপূর্ণ জমি দখলের চেষ্টা! কালের খবর মেডিকেলে ভর্তির প্রশ্ন ফাঁসে ২৪ জন চিহ্নিত : সবাই এখন কোটিপতি। কালের খবর করোনার তাণ্ডবে ৯০ পুলিশ প্রাণ হারালেন। কালের খবর বরগুনার তালতলীতে প্রশাসন ও প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের উদ্যোগে ন্যায্য মুল্যে ডিম ও দুধ বিক্রি শুরু। কালের খবর সখীপুরে সাপের কামড়ে শিশুর মৃত্যু। কালের খবর
নবীনগরের জিনদপুরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, আহত-২। কালের খবর

নবীনগরের জিনদপুরে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন, আহত-২। কালের খবর

নবীনগর থেকে মোঃ কবির হোসেন কালের খবর : ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে মঙ্গলবার দুপুরে স্বামীর ধারালো কুড়ালের কোপে স্ত্রী খুন হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের মা, মামী ও মেয়ে আহত হয়েছে। প্রকাশ্যে দিন দুপুরে নিজঘরে স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে শাশুড়ী, মামী ও মেয়েকে আহত করে পালিয়ে যায় পাষন্ড স্বামী।

ঘটনাটি ঘটে দুপুর আনুমানিক আড়াইটার দিকে উপজেলার জিনদপুর গ্রামে। নিহত স্ত্রীর নাম সুর্বনা আক্তার (৩৫) স্বামী দেলোয়ার হোসেন (৪২)। স্থানীয়রা মুমুর্ষ অবস্থায় আহত শাশুড়ী মরিয়ম বেগম (৬০) ও মেয়ে ফারজানা আক্তার (১৩) দ্রুত নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে। কতর্ব্যরত চিকিৎসক আহতদের অবস্থার অবনতি হলে কুমিল্লা সদর হাসাপাতালে প্রেরণ করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য জেলা মর্গে পাঠিয়েছে। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চিত্তরঞ্জন পাল বলেন, ‘পারিবারিক কলহের জের ধরে এই হত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, আসামী গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান চলছে। 

সরেজমিনে জানা যায়, প্রায় ১৮ বছর আগে নবীনগর উপজেলার বাসিন্দা দেলোয়ার হোসেনের সাথে পাশ্ববর্তী মুরাদনগর উপজেলার পীর কাশিমপুর গ্রামের মো. হাবিবুর রহমানের মেয়ে সুর্বনা আক্তারের সাথে দেলোয়ারের বিয়ে হয়। এই দীর্ঘ সংসার জীবনে তাদের ঘরে দুই ছেলে দুই মেয়ে জন্ম নেয়। বড় মেয়ে মারিয়া বেগম (১৫), ফারজানা (১৩), ছেলে নূর নবী (৯) ও ছোট ছেলে আমীর হোসেন (২)।

আহত ছোট মেয়ে ফারজানা জানায়, ‘‘সকালে তাদের বাবা মা’র মধ্যে ঝগড়া সৃষ্টি হয়। পরক্ষনে আমার নানু ও মায়ের মামী আমাদের বাড়িতে এসে মাকে নিয়ে যেতে চায়, তখন বাবা বাধা দিলে নানু, আম্মু ও আম্মুর মামী বাবাকে চড় থাপ্পর দিতে থাকে। তখন আব্বু তাদেরকে ঘর থেকে বের করে আম্মুকে ঘরে নিয়ে আটকানোর চেষ্টা করলে দুজনেই রেগে গেলে আব্বুর কাজের কুড়াল দিয়ে আম্মুর মাথায় আঘাত করে। আমরা ফিরাতে গেলে কুড়ালের মাথায় লেগে আমরাও রক্তাক্ত হই’’, আমাদের চিৎকারে এলাকাবাসি আসতে থাকলে বাবা দৌড়ে পালিয়ে যায়।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com