বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:৪৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
জুট কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। কালের খবর ট্রাফিক পুলিশের হাতের ইশারায় গাড়ির চাকা থামে ঘোরে। কালের খবর সাংবাদিক মুজাক্কিরের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে আলটিমেটাম। কালের খবর বাড়ছে উৎপাদন চায়ের বাজারে নতুন ‘সাদা সোনা’ ইউপি নির্বাচনে ইমানুজ্জামান পল্লবকে ‘নৌকা প্রতীক দিতে সলিমগঞ্জবাসীর উঠান বৈঠক। কালের খবর পাটুরিয়াঘাটে পরিবহণ ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য। কালের খবর ডেমরা ব্যাটারিচালিত নিষিদ্ধ অটোরিকশা ও ইজিবাইকের দৌড়াত্ম্য স্কুল মাঠ দখল করে ইউপি মেম্বারের বালু ব্যবসা। কালের খবর ইউএনও-র নির্দেশ উপেক্ষা আ’লীগ নেতার ফসলি জমিতে পুকুর খনন ও মাটি বিক্রি চলছে। কালের খবর প্রেমের টানে কুড়িগ্রামে এসে লাশ হয়ে ফিরলো বাড়ী। কালের খবর
সোনারগাঁ থানার ওসি মোরশেদ আলম ও সেকেন্ড অফিসার সাধন বসাকের বিরুদ্ধে সিকিউরিটি সেল ও দুদকে অভিযোগ। কালের খবর

সোনারগাঁ থানার ওসি মোরশেদ আলম ও সেকেন্ড অফিসার সাধন বসাকের বিরুদ্ধে সিকিউরিটি সেল ও দুদকে অভিযোগ। কালের খবর

কালের খবর রিপোর্ট :

সোনারগাঁ থানার অফিসার ইনচার্জ মোরশেদ আলম পিপিএম ও সেকেন্ড অফিসার এসআই সাধন বসাকের বিরুদ্ধে গতকাল রোবরার পুলিশ হেডকোয়ার্টারের সিকিউরিটি সেল ও দুদকের প্রধান কার্যালয়ে অভিযোগ দিয়েছেন যুবলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম স্বপন।

অভিযোগে তিনি নিজের এবং তার পরিবারের নিরাপত্তা বিধানসহ ওসি এবং সাধনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা এবং দুর্নীতির অনুসন্ধানের আবেদন করেন। জাহিদুল ইসলাম স্বপন তার আবেদনের সাথে প্রায় ১৫৬ পৃষ্ঠা কাগজ সংযুক্ত করেন। প্রায় ৭টি দেওয়ানী ও রাজস্ব আদালতে তাদের পক্ষের রায়, সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের রেজিস্ট্রারের ফটোকপি, নারায়ণগঞ্জ ৩শ’ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের ভর্তি রেজিস্ট্রারের ছবি, দত্তপাড়ার বাড়ীতে স্বপন ও তার পরিবারের বসবাসের ছবি, বাড়ির দেয়ালের সাইনবোর্ডের ছবি, বাড়ীতে ওসির লাগিয়ে দেয়া তালার ছবি, দেয়ালের উপর সকল লেখা মুচে ফেলার ছবি, বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ছবি, অডিও রেকর্ড এবং জাতীয়, চ্যানেল এবং অন-লাইন পত্রিকার কাটিংসহ অভিযোগ জমা দেন এবং রয়েল রিসোর্টের ফুটেজ চান জাহিদুল ইসলাম স্বপন।

এসময় তিনি তার নিজের, পরিবারের সবার নিরাপত্তাও চান। সিকিউরিটি সেল এবং দুদক তদন্তপূর্বক কঠোর ব্যবস্থা নেবে বলে আশাবাদী জাহিদুল ইসলাম স্বপন। জাহিদুল ইসলাম স্বপন বলেন, আমি আদালতে মামলা করছি। মামলাটির তদন্তের আদেশ এখনো পুলিশ সুপার পায়নি। এখনই দালাল চামচারা বলছে মামলাটি মিথ্যা। সত্য না মিথ্যা তা তদন্ত করবে পুলিশ। মামলা তদন্তের পূর্বেই মামলাটি মিথ্যা বলা সুষ্পষ্টভাবে আদালত অবমাননা। এখন দেখছি, অফিসার ইনচার্জ ও সাধন বসাক তাদের ডিপার্টমেন্টের তদন্তের উপর ভরসা করে না। সত্য প্রকাশ পাবে। আমার কাছে সকল প্রমান সংরক্ষিত রয়েছে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com