বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ১০:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
টেকের হাট বন্দরে দিন দুপুরে ৫ লক্ষ টাকা ছিনতাই, চারজন আটক। কালেন খবর ১৫ টি পূজা মন্ডপে আর্থিক অনুদান ও পরিদর্শন করলেন এমপি মনু। কালের খবর দেশের অনেক এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করা হচ্ছে : নসরুল হামিদ। কালের খবর মহেশরৌহালীর ৩ কিলোমিটার রাস্তার বেহাল দশা। কালের খবর দুর্গাপূজায় মন্দিরে-মণ্ডপে সতর্ক পাহারা দিচ্ছে আওয়ামী লীগ। কালের খবর সখীপুরে কো-কম্পোষ্ট প্লান্টের ৮ ম বার্ষিকী উদযাপন। কালের খবর নাসিরনগরে দুর্নীতির মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ভাতা তুলছেন ১২ সুস্থ ব্যক্তি। কালের খবর সখীপুরে ছাত্রলীগের দু-গ্রুপের পাল্টাপাল্টি মিছিল সমাবেশ। কালের খবর সলিমগঞ্জে প্রতারক দালাল চক্রের কান্ড : আদালতে মামলা থাকা সম্পত্তি গোপনে বিক্রি করার অপচেষ্টা। কালের খবর তাড়াশে ৪৫ টি মন্ডপে শারদীয় দুর্গোৎসব শুরু। কালের খবর
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর না করতে প্রেসিডেন্টের প্রতি অনুরোধ : ১২ সাংবাদিক ইউনিয়নের বিবৃতি, শনিবার সারাদেশে বিক্ষোভ। কালের খবর

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর না করতে প্রেসিডেন্টের প্রতি অনুরোধ : ১২ সাংবাদিক ইউনিয়নের বিবৃতি, শনিবার সারাদেশে বিক্ষোভ। কালের খবর

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে স্বাক্ষর না করতে প্রেসিডেন্টের প্রতি অনুরোধ

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালের খবর  : সাংবাদিক সমাজ, সম্পাদক পরিষদ, নাগরিক সমাজ ও দেশী-বিদেশী মানবাধিকর সংগঠনের প্রতিবাদ অগ্রাহ্য করে গণমাধ্যম ও মত প্রকাশের স্বাধীনতাবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংসদে পাশের তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে এ বিলে স্বাক্ষর না করার জন্য মহামান্য প্রেসিডেন্টের প্রতি আহবান জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজেসহ ১২টি সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতারা। রাষ্ট্রের অভিভাবক হিসেবে সংবিধান, গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা পরিপন্থী বিলটি সংসদে ফেরৎ পাঠিয়ে গণতন্ত্র ও মৌলিক অধিকারবিরোধী ধারা সংশোধনে প্রেসিডেন্ট ভূমিকা রাখবেন বলে আশা প্রকাশ করেন নেতৃবৃন্দ।
আজ বৃহস্পতিবার ২০ সেপ্টেম্বর এক যুক্ত বিবৃতিতে বিএফইউজে ও এর অঙ্গ ইউনিয়নগুলোর নেতৃবৃন্দ এ আহবান জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, ২০১৪ সালের ৫ই জানুয়ারির ভোটারবিহীন প্রহসনের নির্বাচনের মধ্য দিয়ে গঠিত এক দলীয় সংসদে স্টেকহোল্ডারদের আপত্তি ও সংশোধনী প্রস্তাব উপেক্ষা করে পাশকৃত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন আমরা ঘৃণাভরে প্রত্যাখ্যান করছি। এ আইন সংবিধান ও মহান মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনার সঙ্গে সাংঘর্ষিক। গণতান্ত্রিক দেশেতো নয়ই কোন সভ্য সমাজে এ ধরনের আইনের কথা কল্পনাও করা যায় না। আইনটি সংসদে উপস্থাপনের সময় তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী যে প্রতারণামুলক বক্তব্য দিয়েছেন তা আমাদের স্তম্ভিত করেছে। তিনি সম্পাদক ও সাংবাদিকদের প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে বলে নির্জলা মিথ্যাচার করেছেন।
নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে বলেন, একদিকে প্রায় শত বছরের পুরনো অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের ঔপনিবেশিক এনালগ আইনকে আধুনিক তথ্য-প্রযুক্তির যুগে টেনে আনা হয়েছে। অন্যদিকে বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতার ও তল্লাশীর ক্ষমতা পুলিশকে দিয়ে প্রকারান্তরে গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে নিপীড়নের সুযোগ অবারিত করা হযেছে। এমনকি গবেষণা কাজও এই আইনের কারণে হুমকির মুখে পড়বে। সাংবাদিক সমাজসহ দেশের বিবেকবান মুক্তচিন্তার মানুষ এই আইনে প্রতিনিয়ত হয়রানি ও নির্যাতনের শিকার হবেন।
বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ আইনটি পুনর্বিবেচনার জন্য সংসদে ফেরৎ পাঠাতে প্রেসিডেন্টের প্রতি আহবান জানান।
বিবৃতিদাতা নেতৃবৃন্দ হচ্ছেন-বিএফইউজে একাংশের সভাপতি রুহুল আমিন গাজী ও মহাসচিব এম আবদুল্লাহ, ডিইউজে একাংশের সভাপতি কাদের গণি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম, চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন (সিএমইউজে)র সভাপতি শামসুর হক হায়দরী ও সাধারণ সম্পাদক মো. শাহনওয়াজ, রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি সরদার আবদুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ আবদুল আউয়াল, মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন-খুলনার সভাপতি আনিসুজ্জমান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান হিমালয়,

সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সভাপতি শহীদ জয় ও সাধারণ সম্পাদক আকরামুজ্জামান, সাংবাদিক ইউনিয়ন বগুড়ার সভাপতি মির্জা সেলিম রেজা ও সাধারণ সম্পাদক গণেশ দাস, সাংবাদিক ইউনিয়ন কক্সবাজারের সভাপতি মুহাম্মদ নুরুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক হাসানুর রশীদ, কুমিল্লা জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাহ আলম শফি ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মনিরুল হক, সাংবাদিক ইউনিয়ন দিনাজপুরের সভাপতি জি এম হিরু ও সাধারণ সম্পাদক মাহফিজুল হক রিপন, সাংবাদিক ইউনিয়ন ময়মনসিংহের সভাপতি সভাপতি আইয়ুব আলী ও সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম এবং সাংবাদিক ইউনিয়ন গাজীপুরের সভাপতি এইচ এম দেলোয়ার ও সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ হেদায়েত উল্লাহ।শনিবার ঢাকাসহ সারাদেশে বিক্ষোভ: গণতন্ত্র, গণমাধ্যম ও মত প্রকাশের স্বাধীনতাবিরোধী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর শনিবার সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালনের আহবান জানিয়েছেন বিএফইউজে ও ডিইউজে নেতৃবৃন্দ। শনিবার সকাল ১১টায় ঢাকায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করা হবে। একই সময়ে সারাদেশে সকল অঙ্গ ইউনিয়নে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হবে।
মতামত দিন

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com