শনিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ০৫:৩৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
তিতাসের অফিস সহকারী জহির এখন কোটিপতি । কালের খবর ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড মোড়ে একটি ইউলুপ নির্মাণ করে যানজট সমস্যার দ্রুত সমাধান প্রয়োজন। কালের খবর গ্রামগঞ্জে বইছে ভোটের হাওয়া। কালের খবর নেত্রকোনায় দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের ছাত্রাবাস উদ্বোধন করেন, এমপি,হাবিবা রহমান খান শেফালী। কালের খবর হরিণাকুন্ডুতে বাসের ধাক্কায় যুবক নিহত। কালের খবর বিরামপুরে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর ফ্রিডম মানিকের শীষ্য সোহেল ও রানা পদ পেতে সক্রিয় যুবলীগে। কালের খবর শ্রীমঙ্গলের কুখ্যাত আসমার আস্তানা থেকে পতিতাসহ খদ্দের আটক। কালের খবর অবৈধ কয়লার ডাম্পিং পরিবেশ বিপর্যয়ের শঙ্কা ভোগান্তিতে এলাকাবাসী শ্রীপুরে সাবেক এমপি এডভোকেট রহমত আলীর ১ম মৃত্যু বার্ষিকী ও স্বরনসভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর
সিদ্ধিরগঞ্জে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন : ঘাতক স্বামী আটক। কালের খবর

সিদ্ধিরগঞ্জে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন : ঘাতক স্বামী আটক। কালের খবর

 

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, কালের খবর : সিদ্ধিরগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে মাদকাসক্ত স্বামী জনি (২৬) গার্মেন্ট কর্মী স্ত্রী আলো (২২)কে খুন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (২৩ আগষ্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে গোদনাইল শান্তিনগর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধারসহ ঘাতক স্বামী জনিকে আটক করে ও ঘটনাস্থল থেকে একটি ঘুড়ির নাটাই ও রক্তমাখা কাপড় উদ্ধার করে। নিহত আলো মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার শেলামতি গ্রামের মৃত রফিকের মেয়ে ও জনি শান্তিনগর এলাকার বাবুলের ছেলে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন জানান, লাশের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের ধারনা হচ্ছে উদ্ধাকৃত ঘুড়ির নাটাই দিয়ে পিটিয়েই আলোকে হত্যা করা হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত জানা যাবে। বিষয়টি তদন্তনাধীন রয়েছে।

নিহত আলোর মামা আদর এ হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবী করে জানান, পাঁচ বছর আগে জনির সাথে আলোর বিয়ে হয়। তাদের একটি দু বছরের ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর তিনি জানতো জনি মাদকাসক্ত। নেশা করে জনি প্রায় সময় আলোকে মারধর করতো ও টাকা দাবি করতো। এর সাথে জনির পরিবারের সদস্যরাও যোগ দিত। জনি ভরণ পোষনের টাকা দিতে না পারায় আলো গার্মেন্টের কাজে যোগ দেয়।

সম্প্রতি জনির পরিবার ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। এ টাকার জন্য প্রায় সময়ই জনি ও তার পরিবার আলোর উপর অমানুষিক নির্যাতন চালাতো।

গত কিছুদিন আগে জনিকে মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র থেকে চিকিৎসা করিয়ে আনা হয়। সেখান থেকে আসার পর সে আবার নেশায় জড়িয়ে পড়ে। খুনের ঘটনার পূর্বেও সে নেশাগ্রস্থ ছিলো।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com