বুধবার, ২১ জুলাই ২০২১, ০৭:২১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শোক সংবাদ : জয়দেব সূত্রধর আর নেই। কালের খবর বোয়ালমারীতে পৌরসভার ৫০০শত ভ্যানচালককে ঈদ উপহার প্রদান। কালের খবর ষড়যন্ত্র ও হীন কাজে লিপ্ত থাকায় মোসলেম উদ্দিন ও কবির হোসেনকে সিদ্ধিরগঞ্জ প্রেসক্লাব থেকে বহিষ্কার। তাড়াশে টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে কামাররা। কালের খবর দেশে বর্তমানে সূর্যমুখী সাংবাদিকতা চলছে : বিএফইউজে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ। কালের খবর নবীনগরের নোয়াগ্রামে চলাচলের রাস্তার সীমানা নির্ধারনে জটিলতার ভোগান্তিতে পরেছে ১০টি পরিবার। কালের খবর রাস্তা পাকাকরন ও খাল খনন এর দাবিতে দশমিনায় মানববন্ধন। কালের খবর সিলেটের কানাইঘাটে পাথর ভাঙ্গার ক্রাসার মেশিন অপসারন করেছে পুলিশ। কালের খবর পানিবন্দী অভাবী মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সাবেক এমপি কায়সার। কালের খবর নবীনগরে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর বিতর্কিত এএসআই হাকিমকে প্রত্যাহার। কালের খবর
সিদ্ধিরগঞ্জে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন : ঘাতক স্বামী আটক। কালের খবর

সিদ্ধিরগঞ্জে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন : ঘাতক স্বামী আটক। কালের খবর

 

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, কালের খবর : সিদ্ধিরগঞ্জে যৌতুকের দাবিতে মাদকাসক্ত স্বামী জনি (২৬) গার্মেন্ট কর্মী স্ত্রী আলো (২২)কে খুন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার (২৩ আগষ্ট) দিবাগত রাত সাড়ে ১২ টার দিকে গোদনাইল শান্তিনগর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

খবর পেয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধারসহ ঘাতক স্বামী জনিকে আটক করে ও ঘটনাস্থল থেকে একটি ঘুড়ির নাটাই ও রক্তমাখা কাপড় উদ্ধার করে। নিহত আলো মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর থানার শেলামতি গ্রামের মৃত রফিকের মেয়ে ও জনি শান্তিনগর এলাকার বাবুলের ছেলে।

সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জসিম উদ্দিন জানান, লাশের শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। প্রাথমিকভাবে পুলিশের ধারনা হচ্ছে উদ্ধাকৃত ঘুড়ির নাটাই দিয়ে পিটিয়েই আলোকে হত্যা করা হয়। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন পেলে বিস্তারিত জানা যাবে। বিষয়টি তদন্তনাধীন রয়েছে।

নিহত আলোর মামা আদর এ হত্যাকান্ডের সুষ্ঠু বিচার দাবী করে জানান, পাঁচ বছর আগে জনির সাথে আলোর বিয়ে হয়। তাদের একটি দু বছরের ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর তিনি জানতো জনি মাদকাসক্ত। নেশা করে জনি প্রায় সময় আলোকে মারধর করতো ও টাকা দাবি করতো। এর সাথে জনির পরিবারের সদস্যরাও যোগ দিত। জনি ভরণ পোষনের টাকা দিতে না পারায় আলো গার্মেন্টের কাজে যোগ দেয়।

সম্প্রতি জনির পরিবার ২ লাখ টাকা যৌতুক দাবী করে। এ টাকার জন্য প্রায় সময়ই জনি ও তার পরিবার আলোর উপর অমানুষিক নির্যাতন চালাতো।

গত কিছুদিন আগে জনিকে মাদকাসক্ত নিরাময় কেন্দ্র থেকে চিকিৎসা করিয়ে আনা হয়। সেখান থেকে আসার পর সে আবার নেশায় জড়িয়ে পড়ে। খুনের ঘটনার পূর্বেও সে নেশাগ্রস্থ ছিলো।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com