শুক্রবার, ২৩ জুলাই ২০২১, ০৪:৩০ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সাংবাদিকরা পারে ক্ষমতাহীনদের ক্ষমতাবান করতে : তথ্যমন্ত্রী। কালের খবর নবীনগর আঞ্চলিক কথা গ্রুপের উদ্যোগে দুটি অসহায় পরিবারের মাঝে আর্থিক সহযোগিতা প্রদান। কালের খবর সখীপুরে গরুর লাথি খেয়ে আহত ১৩ জন হাসপাতালে। কালের খবর মেয়ের শ্বশুরবাড়ি ট্রাকভর্তি উপহার পাঠিয়ে চমকে দিলেন বাবা। কালের খবর জীবন অগাধ : আলাউদ্দিন খাঁর বড় ছেলে। কালের খবর তিন দিনে ৮ কোটি টাকার টোল আদায় বঙ্গবন্ধু সেতুতে। কালের খবর শোক সংবাদ : জয়দেব সূত্রধর আর নেই। কালের খবর বোয়ালমারীতে পৌরসভার ৫০০শত ভ্যানচালককে ঈদ উপহার প্রদান। কালের খবর সাংবাদিকদের এ অবস্থা কেন সৃষ্টি হলো। কালের খবর তাড়াশে টুং টাং শব্দে ব্যস্ত সময় পার করছে কামাররা। কালের খবর
ওসি আলতাফ কারাগারে ঘুষের মামলায়। কালের খবর

ওসি আলতাফ কারাগারে ঘুষের মামলায়। কালের খবর

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার, কালের খবর  : একটি হত্যা মামলা নিতে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগে দায়ের করা দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের মামলায় সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলতাফ হোসেনকে কারাগারে পাঠিয়েছেন কক্সবাজারের আদালত। কক্সবাজারের কুতুবদিয়া থানায় ওসি হিসাবে কর্মরত থাকাকালীন সময়ে পুলিশ পরিদর্শক আলতাফ হোসেনের বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের ২০ জুলাই সিনিয়র ষ্পেশাল জজ আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়েছিল।

মঙ্গলবার ওই মামলায় এ আদেশ দেন আদালত।

জানা গেছে, কক্সবাজারের কুতুবদিয়া উপজেলার বড়ঘোপ ইউনিয়নের ছিন্নি খাইয়ার পাড়া নামক এলাকার বাসিন্দা ইস্কান্দার মির্জার স্ত্রী জমিলা আকতার ওসির বিরুদ্ধে ঘুষ গ্রহণের মামলাটি দায়ের করেছিলেন।

প্রসঙ্গত, কুতুবদিয়া উপজেলা তফশীল অফিসে এম এল এস এস হিসাবে কর্মরত ফরিদুল আলম নামের এক ব্যক্তির মৃত্যুকে কেন্দ্র করে থানায় মামলা দায়েরের ঘটনা নিয়ে ঘুষের মামলাটির উদ্ভব হয়। জমিলা আকতার নামের ওই গৃহবধূর অভিযোগ হচ্ছে, ২০১৪ সালের ১৯ জুন নিজ ঘরে ফরিদুল আলমের লাশ পাওয়া যায়। ভিকটিম ফরিদুল আলম সর্ম্পকে জমিলা আকতারের ভাসুর। ঘটনার দিন রাতে জমিলা আকতার ও তার শ্বাশুড়ি থানায় যান হত্যা মামলা দায়ের করতে। তখন থানার কর্মরত ওসি আলতাফ হোসেন ও থানার উপপুলিশ পরিদর্শক এবি এম কামাল উদ্দিন তাদের নিকট মামলা রুজুর জন্য এক লাখ টাকা দাবি করেন। এমনকি নগদ ৫০ হাজার টাকা নিয়ে মামলা রুজুর আশ্বাসও প্রদান করেন। পরবর্তীতে তাদের পারিবারিক প্রতিপক্ষের নিকট থেকে আরো বেশী অংকের টাকার ঘুষ নিয়ে উল্টা অভিযোগকারীদের আসামি করে মামলা গ্রহণ করেন।

এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা নালিশী মামলার অভিযোগ তদন্তের জন্য কক্সবাজারের সিনিয়র ষ্পেশাল জজের আদালত দুর্নীতি দমন (দুদক) কমিশনে অভিযোগটি প্রেরণ করেন।
দুদক কর্তৃপক্ষ অভিযোগটি সরেজমিন তদন্ত করে সাক্ষ্য প্রমাণ নিয়ে ঘুষ গ্রহণের অভিযোগের প্রমাণ পেয়ে আদালতকে অবহিত করে। এরপর কক্সবাজারের সিনিয়র ষ্পেশাল জজের আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে পুলিশ কর্মকর্তাদ্বয়কে আদালতে হাজির হতে সমন দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে কুতুবদিয়া থানার সাবেক ওসি এবং বর্তমানে সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি আলতাফ হোসেন আজ মঙ্গলবার কক্সবাজারের আদালতে হাজির হয়ে জামিনের প্রার্থনা করেন। কিন্তু কক্সবাজারের সিনিয়র ষ্পেশাল জজ ও জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মীর শফিকুল আলম ওসি আলতাফ হোসেনকে কারাগারে পাঠিয়ে আগামী ২৬ জুন জামিনের আবেদনটি শুনানির জন্য দিন ধার্য রেখেছেন। অপর আসামী উপ পরিদর্শক এবিএম কামাল উদ্দিন পলাতক রয়েছেন।

        দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন । 

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com