শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১১:৩৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
যশোরের কেশবপুরে শান্তি স্থাপন ও সহিংসতা নিরসনে (পিএফজি, র) সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর রায়পুরার ছাত্রলীগ নেতা মামুনকে জড়িয়ে মিথ্যা ও হয়রানি মূলক ধর্ষণ মামলাসহ একাধিক মামলা করায় সর্বমহলে নিন্দা। কালের খবর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর ৫৬ ধারার প্রয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে.প্রধান অতিথি সিএমপি কমিশনার। কালের খবর সহিংসতা নয়-শান্তির জন্য আমরা-এই শ্লোগান কে সামনে রেখে বাঘারপাড়ায় অনুষ্ঠিত হলো (পিএফজির) সম্মিলিত কার্যক্রম ও পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা। কালের খবর ঢাকা জেলা রেজিস্ট্রার অহিদুল ইসলাম সাময়িক বরখাস্ত। কালের খবর বাঘারপাড়া প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক লক্ষণ চন্দ্র মন্ডলের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক। কালের খবর যুবদের নেতৃত্বে সঠিক কর্মপরিকল্পনা গ্রহনের ফলে , সমাজে সহিংসতা নিরসন ও শান্তি স্থাপন হতে পারে। কালের খবর কোরবানির পশু প্রস্তুত করতে ব্যস্ত সাতক্ষীরার খামারিরা। কালের খবর চট্টগ্রামের ইপিজেডে ছুরিকাঘাতে যুবক খুন, ঘটনায় জড়িত মূল হোতাসহ ২জন গ্রেপ্তার। কালের খবর রাজধানী ঢাকা শহরে কোনো ব্যাটারিচালিত রিকশা চলবে না : সড়ক পরিবহনমন্ত্রী। কালের খবর
গাঁজা বিক্রেতা থেকে কোটিপতি নজু সরদার

গাঁজা বিক্রেতা থেকে কোটিপতি নজু সরদার

ফারুক শাহজী, কালের খবর :

রূপনগরের চলন্তিকা বস্তিতে গোয়েন্দা পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত ব্যক্তির পরিচয় মিলেছে। তার নাম নজরুল ইসলাম ওরফে নজু সরদার। তিনি দেশের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের একজন বলে দাবি করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

জানা গেছে, বাংলাদেশে যখন থেকে মাদকের কেনাবেচা শুরু, তখন থেকেই নজুর সরদারের নাম ছিল তালিকার প্রথম পাঁচজনের মধ্যে। শুধু নজু নয়, মিরপুরের চলন্তিকা ও ঝিলপাড় এলাকায় তার মা সুফিয়া বেগম, দুই ভাই- তোফা সরদার ও বাবুল সরদার, বোন লীলা ও শান্তি, স্ত্রী হাজেরা বেগমসহ আত্মীয়-স্বজনের অনেকেই প্রকাশ্যে দীর্ঘদিন মাদক ব্যবসা করে আসছেন।
গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, নজুর বিরুদ্ধে মিরপুর, পল্লবী ও রূপনগর থানায় ২২টি মাদক সংক্রান্ত মামলা রয়েছে। তাকে ধরতে গত ১১ মার্চও অভিযান চালিয়েছিল মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের ৭৮ জন, এপিবিএনের ৯ জন ও পুলিশের ১০ জনের সমন্বিত একটি দল। কিন্তু তখন তাকে পাওয়া যায়নি।
এর আগে গত ফেব্রুয়ারি মাসে মিরপুরের চলন্তিকায় স্থানীয় সংসদ সদস্য ইলিয়াস মোল্লাকে সঙ্গে নিয়ে অভিযান চালায় পুলিশ। ওই সময় নজুকে ধরতে না পারলেও দুটি রামদাসহ গ্রেফতার করা হয় তার ভাগ্নে রিয়াজকে।

জানা গেছে, ২০১৬ সালেও একবার নজুকে ধরতে র‍্যাব-৪ মিরপুরের ওই বস্তিতে অভিযান চালায়। তখন নজুর মা, স্ত্রী ও বোনরা বস্তির ভেতর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে তাকে পালিয়ে যেতে সাহায্য করেন।
বার বার শীর্ষ এই মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতারের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হওয়ার পর রোববার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নজুর অবস্থান জানতে পারে পুলিশ। এরপরই অভিযান চালানো হয় রূপনগরের চলন্তিকা বস্তিতে।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি, এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি চালাতে শুরু করে মাদক ব্যবসায়ীরা। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছোড়ে। গোলাগুলিতে নজু নিহত হয়। তবে তার সহযোগীরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।
ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসুদুর রহমান জানান, নিহত নজু চলন্তিকা বস্তির শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তার বিরুদ্ধে মিরপুর, পল্লবী ও রূপনগর থানায় ২২টি মাদক সংক্রান্ত মামলা রয়েছে।
মাদক ব্যবসায়ী নজুর উত্থান
নজরুল ইসলাম ওরফে নজু সরদারের বাড়ি মুন্সীগঞ্জে। তার বাবা আবদুল আলী কাজী এলাকায় কৃষিকাজ করতেন। নজুরা তিন ভাই, পাঁচ বোন। প্রথমে নজুর বড় দুই ভাই তোফাজ্জল কাজী ওরফে তোফা কাজী ওরফে তোফা সর্দার ও মেজ ভাই বাবুল কাজী ওরফে বাবুল সর্দার ঢাকায় এসে কারওয়ান বাজারে গাঁজা বিক্রি শুরু করেন। এরপর দুই ভাইয়ের পথ ধরে নজুও মিরপুরে গাঁজা বিক্রি দিয়ে মাদক ব্যবসা শুরু করেন।
এক পর্যায়ে নজুর নাম চলে আসে দেশের শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকায়। মিরপুরের চলন্তিকা বস্তির ২৫টি ঘর থেকে মাদক ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করতে থাকেন তিনি। রাতারাতি বনে যান কোটিপতি, বর্তমানে তার সম্পদের পরিমাণ ৫০ কোটির কম নয় বলে জানিয়েছেন গোয়েন্দারা।
শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ীদের তালিকায় নাম আসার পর আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা নজুকে ধরতে জোর তৎপরতা শুরু করেন। গ্রেফতার এড়াতে তিনি ঢাকা থেকে পালিয়ে বরিশালে শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে আশ্রয় নেন। সেখান থেকে ফিরে যান নিজ গ্রাম মুন্সীগঞ্জে।
মুন্সীগঞ্জের মানিকপুরে জান্নাতুল ভিলা নামে একটি ছয়তলা ভবন তৈরি করেছিলেন নজু। কখনো ওই বাড়িতে, আবার কখনো মধ্য কেওরে নিজের গ্রামের বাড়িতেই থাকতেন এই শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। সেখান থেকেই তিনি মিরপুরে নিজের মাদক সাম্রাজ্য নিয়ন্ত্রণ করে আসছিলেন।

       দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন ।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com