বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ০১:০৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নড়বড়ে সাঁকোতে হাজারও মানুষের পারাপার তাড়াশ উপজেলার গ্রামগুলোতে বিদ্যুতের লোডশেডিং ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। বাংলাদেশী তৈরি টুটু পিস্তল, চাইনিজ কুড়াল ৫০০ গ্রাম গাঁজা সহ কিশোর গ্যাং এর ৪ সদস্য গ্রেফতার। কালের খবর যুবদলের দোষ আওয়ামী লীগের উপর চাপিয়ে বিবৃতির প্রতিবাদ। কালেন খবর সালিশে চুলের মুঠি ধরে মহিলাকে প্রকাশ্যে মারধর ভিডিও ভাইরাল ডিইউজে(একাংশ) সভায় নারী সাংবাদিককে মারধর ও শ্লীলতাহানির অভিযোগ। কালের খবর নবীনগরের সলিমগঞ্জে অবৈধ স্বর্ণ বেচাকেনার বৈধ হাট । কালের খবর প্রায় ৩ বছর পর মোরেলগঞ্জে উপজেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন। কালের খবর আখাউড়ায় আইনমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তির প্রতিবাদে ঝাড়ু মিছিল। কালের খবর বোয়ালমারীতে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতিপ্রাপ্ত আনিসুজ্জামানের মতবিনিময়। কালের খবর
ডিজিটাল আইনে কারাবন্দী সাংবাদিক আজহার মাহমুদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি। কালের খবর

ডিজিটাল আইনে কারাবন্দী সাংবাদিক আজহার মাহমুদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি। কালের খবর

কালের খবর ডেস্ক :

ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) কাউন্সিলর, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) ও ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সিনিয়র সদস্য এবং বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) সাবেক সাধারণ সম্পাদক আজহার মাহমুদকে বিতর্কিত ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় কারাবন্দীর ঘটনায় নিন্দা, ক্ষোভ ও গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন বিএফইউজে ও ডিইউজে নেতৃবৃন্দ। তারা অনতিবিলম্বে আজহার মাহমুদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি জানিয়েছেন।

বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিএফইউজের সভাপতি এম. আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন এবং ডিইউজে সভাপতি কাদের গনি চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মো: শহীদুল ইসলাম এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেন, একটি সংবাদের প্রেক্ষিতে দিনাজপুর হাজী দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষকের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেন। আজহার মাহমুদ মঙ্গলবার ওই মামলায় রংপুর আদালতে হাজির হলে আদালত তাকে কারাগারে প্রেরণের নির্দেশ দেন। আজহার মাহমুদ বতর্মানে দিনাজপুর কারাগারে বন্দী।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণয়নের শুরু থেকে সাংবাদিক সমাজ আশঙ্কার কথা প্রকাশ করে এ কালো আইন বাতিলের দাবি জানিয়ে আসছিল। সরকারের পক্ষ থেকে আইনটি সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ব্যবহার না করার প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও তা রক্ষার কোনো আলামত নেই। বরং সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে যথেচ্ছভাবে এ নিপীড়নমূলক আইন ব্যবহার হচ্ছে। যার সর্বশেষ শিকার সাংবাদিক আজহার মাহমুদ।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে আজহার মাহমুদের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহার করে তার নিঃশর্ত মুক্তি এবং সকল কালো আইন বাতিলের দাবি জানিয়েছেন।

সাংবাদিক মাহবুব তরফদারের ওপর হামলার নিন্দা

বিএফইউজের সভাপতি এম. আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন অপর এক বিবৃতিতে দৈনিক মানবকণ্ঠের টঙ্গী প্রতিনিধি মাহবুব তরফদারের ওপর সন্ত্রাসী হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, মঙ্গলবার দুপুরে গাজীপুরের পূর্ব গাজীপুরা এলাকায় প্রকাশ্যে সন্ত্রাসী হামলার পর হামলাকারী কাউকে আটক করা হয়নি। ফলে সাংবাদিকের নিরাপত্তাঝুঁকি বেড়ে গেছে।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় অনতিবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন। প্রেস বিজ্ঞপ্তি

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com