মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০৪:১৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ইপিজেড থানা পুলিশের অভিযানে অসামাজিক কাজে লিপ্ত থাকায় নারী ও পুরুষ মিলে (১২) জন গ্রেফতার। কালের খবর মুরাদনগরে আনারসে ভোট চেয়ে গণসংযোগ করলেন ব্যারিস্টার অনন। কালের খবর যশোরের কেশবপুরে শান্তি স্থাপন ও সহিংসতা নিরসনে (পিএফজি, র) সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর রায়পুরার ছাত্রলীগ নেতা মামুনকে জড়িয়ে মিথ্যা ও হয়রানি মূলক ধর্ষণ মামলাসহ একাধিক মামলা করায় সর্বমহলে নিন্দা। কালের খবর মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন-২০১৮ এর ৫৬ ধারার প্রয়োগ’ শীর্ষক সেমিনারে.প্রধান অতিথি সিএমপি কমিশনার। কালের খবর সহিংসতা নয়-শান্তির জন্য আমরা-এই শ্লোগান কে সামনে রেখে বাঘারপাড়ায় অনুষ্ঠিত হলো (পিএফজির) সম্মিলিত কার্যক্রম ও পরিকল্পনা প্রণয়ন সভা। কালের খবর ঢাকা জেলা রেজিস্ট্রার অহিদুল ইসলাম সাময়িক বরখাস্ত। কালের খবর বাঘারপাড়া প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি সাংবাদিক লক্ষণ চন্দ্র মন্ডলের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক। কালের খবর যুবদের নেতৃত্বে সঠিক কর্মপরিকল্পনা গ্রহনের ফলে , সমাজে সহিংসতা নিরসন ও শান্তি স্থাপন হতে পারে। কালের খবর কোরবানির পশু প্রস্তুত করতে ব্যস্ত সাতক্ষীরার খামারিরা। কালের খবর
নাসু বাহিনী ও আনসারদের অত্যাচার থেকে রেহাই পেতে নির্যাতিতরা মানববন্ধন করেছে

নাসু বাহিনী ও আনসারদের অত্যাচার থেকে রেহাই পেতে নির্যাতিতরা মানববন্ধন করেছে

কালের খবর ডেস্ক : হীরাঝিল বসুমতী আবাসিক প্রকল্পের কর্ণধার নাসির উদ্দিন নাসু এবং আনসার ক্যাম্পের বিরুদ্ধে জেগে উঠেছে রাজধানীর ভাটারার নির্যাতিত মানুষরা। নাসু সেখানে যে প্রকল্প গড়ে তুলেছেন, তার সবটুকুই জবর-দখল করা।

জমি হারানো বাসিন্দারা ফিরে পেতে চায় তাদের শেষ সম্বলটুকু। জবরদখল এবং ভয়ভীতি দেখানোর জন্য নাসু ইতিমধ্যে সেখানে নিজস্ব বাহিনী (মাস্তান) এবং আনসার বাহিনীকে ব্যবহার করছে। সেখানে গড়ে উঠেছে একটি অস্থায়ী আনসার ক্যাম্পও। তাদের লেলিয়ে দেয়া হচ্ছে সাধারণ মানুষের বিরুদ্ধে। নাসুর নিজস্ব বাহিনী ও আনসারদের অত্যাচার থেকে রেহাই পেতে  রবিবার সকালে ভাটারায় একটি মানববন্ধন করেছে নির্যাতিত মানুষরা।
ভাটারা মৌজার ছোলমাইদ এলাকাবাসীরা ক্ষতিগ্রস্ত ও নির্যাতিত জমি রক্ষার কমিটির ব্যানারে মানববন্ধনটি করা হয়। বসুমতি আবাসিক প্রকল্পের সামনে শান্তিপূর্ণ ওই মানববন্ধনে অংশ নেন কয়েক হাজার মানুষ।
এলাকাবাসী বলছেন, পৈতৃক ওয়ারিশসূত্রে পাওয়া জড়ি তারা বহুবছর ধরে ভোগ দখল করে আসছিলেন। সম্প্রতি তাদের এই জমি কেড়ে নিয়েছে হীরাঝিল বসুমতী আবাসিক প্রকল্পের চেয়ারম্যান।

ফসলি জমিতে আনসার বাহিনী ক্যাম্প বসানো হয়েছে। বৈধ কাগজপত্র থাকলেও তারা নিজের জমির দখল পাচ্ছেন না।
ভাটারা মৌজার ছোলমাইদ এলাকাবাসীর ক্ষতিগ্রস্ত ও নির্যাতিত জমি রক্ষার কমিটির আহ্বায়ক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম ঢালীর নেতৃত্বে মানববন্ধনে অংশ নেন কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সিদ্দিকুর রহমান ঢালী, আতাউর রহমান ঢালী, হাজী মোশারফ হোসেন খন্দকার, দেলোয়ার হোসেন, মো. সিরাজ, মো. আতাউর রহমান মাতবর, মো. রুহুল আমীন, মো. আসাদুজ্জামান, মো. দিলু খন্দকার ও গোলাম মোস্তফা।
কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, আমরা আমাদের জমি ফিরে পেতে চাই। তারা (নাসির উদ্দিন নাসু) কোনো জমি ক্রয় করেনি। কেন তারা আনসার বাহিনী নিয়ে এলাকাবাসীর ওপর নির্যাতন করতেছে, আমাদের গুলি করার ভয় দেখাইতেছে?
আহ্বায়ক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম ঢালী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন যাতে আমরা আমাদের জমি ফিরে পাই। আমাদের জমিতে আমরা আসতে পারছি না। আনসার বাহিনী দিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে।
মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদস্য মো. শফিকুল ইসলাম ঢালী, মো. সিরাজ ঢালী, আনোয়ার হোসেন, মোক্তার হোসেন, আশবুর রহমান, মো. মিলন, মো. ফারুক, মো. মাসুম, মাহাবুবুর রহমান ও রফিকুল ইসলাম। এছাড়াও জমি হারোনো কয়েক শ’ ভুক্তভোগী তাদের জমির মূল কাগজ ও দলিলাদি নিয়ে মানববন্ধনে অংশ নেন।
মানবন্ধনে বক্তারা বলেন, হীরাঝিল বসুমতী আবাসিক প্রকল্পের নামে নাসির উদ্দিন নাসু শতাধিক বিঘা জমি জোর করে দখল করে রেখেছে। এই প্রকল্পে নাসুর এক শতাংশ জমিও নেই। এখর জবর দখল করা জমিতে নাসু স্থাপন করেছে আনসার ক্যাম্প। ওই প্রকল্পে অদি জমির মালিকরা ঢুকতে চাইলেও আনসার ও নাসুর ভাড়াটিয়া মাস্তানদের নির্যাতনের শিকার হতে হয়। ওই নির্যাতনের হাত থেকে নারী, পুরুষ এমনকি বৃদ্ধ মানুষও রেহায় পায় না। নাসুর এই নির্যাতনের হাত থেকে রেহায় চান তারা, ফিরে চান বাপ-দাদার পৈতৃক সম্পত্তি। আমাদের পিঠ এখন দেয়ালে ঠেকেছে। শাান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমে কোনো সমাধান না আসলে, আরও কঠোর কর্মসূচির ঘোষণা দেওয়া হবে।

কলের খবর /১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com