বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ১০:৩৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
নবীনগর পৌরসভায় সুবিধা বঞ্চিত মুসলিম পরিবার গুলো, দেখার যেন কেউ নেই। কালের খবর যশোরের অভয়নগরে ৮ বছরের শিশু কে ধর্ষণের পর হত্যা, ঘাতক পুলিশের হাতে আটক। কালের খবর ঢাকায় জার্নালিস্ট শেল্টার হোম শীঘ্রই উদ্বোধন!। কালের খবর মতলব দক্ষিণের ইউপির প্যানেল চেয়ারম্যান কামাল গাজী জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি। কালের খবর তালায় প্রতিবন্ধী সাংবাদিক সিরাজুলের বাড়িতে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় থানায় এজাহার, নিরাপত্তার জন্য জিডি। কালের খবর সখীপুরে জমি নিয়ে সংঘর্ষে ছোট ভাই খুন। কালের খবর নবীনগর উপজেলা প্রকৌশলির বিরুদ্ধে কাজ না করে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎ এর গুঞ্জন পা দিয়ে লিখে চতুর্থবার জিপিএ-৫ পেলেন তামান্না। কালের খবর মৌলভীবাজার সাংবাদিক ইউনিয়নের নিবন্ধন পত্র গ্রহণ। কালের খবর পুলিশ সম্মেলন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপিসহ ৬ জন নিউ ইয়র্কে যাবেন। কালের খবর
যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর

যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর

শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি, কালের খবর : যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহরাব হোসেনকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে।
দলীয় একাধিক সূত্র জানায়, শার্শা সদর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসেনকে দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ায় স্বতন্ত্রপ্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এনিয়ে গত ১৭ নভেম্বর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম চাকলাদার (রেন্টু) স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ২২ নভেম্বর দুপুর ১২টার মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়।
এদিকে শোকজের জবাব দেওয়ার আগেই ২০ নভেম্বর বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সোহরাব হোসেনসহ শার্শার ১০ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের ১৫ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার করা হয়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, যোগ্য প্রার্থীদের মনোনয়ন না দেওয়ায় শার্শার ১০ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এতে দলের নিবেদিত নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে
মো. সোহরাব হোসেন জানান, আমাকে শোকজ করেছে জেলা যুবলীগ। ২২ নভেম্বর বেলা ১২টার মধ্যে আমি জবাব দিব। কিন্তু জেলা আওয়ামী লীগ আমাকে বহিষ্কার করেছে। এটি করার কোনো এখতিয়ার তাদের নেই। কারো ইন্ধনে তারা কাজটি করেছেন। এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ বিব্রত।
এ বিষয়ে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম চাকলাদার (রেন্টু) জানান, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে মো. সোহরাব হোসেনকে শোকজ করা হয়েছে। শোকজের জবাব সন্তোষজনক না হলে যুবলীগ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। তিনি তো আওয়ামী লীগের কেউ নন। শোকজের জবাব দেওয়ার সুযোগ না দিয়ে কেন তাকে বহিষ্কার করা হলো আওয়ামী লীগ নেতারা ভালো জানেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com