বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৮:০৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কোটাবিরোধী আন্দোলন-আবারও রাজনীতির মাঠে ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। কালের খবর চালের দাম আরও বাড়লো, সবজি আলু পেঁয়াজেও অস্বস্তি। কালের খবর খুনি ওসি প্রদীপের হাতে নির্যাতিত সাংবাদিকের আহাজারি। কালের খবর বন্দরে ৬ প্রতারকের বিরুদ্ধে আদালতে চাজশীট দাখিল। কালের খবর মুরাদনগরে মাদক বিরোধী সমাবেশ। কালের খবর সাংবাদিক জুয়েল খন্দকারের বিরুদ্ধে কাউন্সিলর সাহেদ ইকবাল বাবুর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত। কালের খবর জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের ঠিকাদারদের সাথে লিরা গ্রুপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ”র মতবিনিময় সভা-সম্পন্ন। কালের খবর গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী আমান উল্লাহ বিরুদ্ধে কাজ না করেই সরকারি বরাদ্দের কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ!। কালের খবর স্ত্রীর যৌতুক মামলায়,ব্যাংক কর্মকর্তা রাশেদের শেষ রক্ষা মিলেনি বাকলিয়া থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতার। কালের খবর নবীনগর থানা প্রেস ক্লাবের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে কমিটি গঠন, সভাপতি মোঃ জসিম উদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক মমিনুল হক রুবেল। কালের খবর
যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর

যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর

শার্শা (যশোর) প্রতিনিধি, কালের খবর : যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহরাব হোসেনকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এ নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে।
দলীয় একাধিক সূত্র জানায়, শার্শা সদর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসেনকে দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ায় স্বতন্ত্রপ্রার্থী হয়ে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এনিয়ে গত ১৭ নভেম্বর জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম চাকলাদার (রেন্টু) স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে ২২ নভেম্বর দুপুর ১২টার মধ্যে কারণ দর্শাতে বলা হয়।
এদিকে শোকজের জবাব দেওয়ার আগেই ২০ নভেম্বর বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে সোহরাব হোসেনসহ শার্শার ১০ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের ১৫ বিদ্রোহী প্রার্থীকে বহিষ্কার করা হয়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, যোগ্য প্রার্থীদের মনোনয়ন না দেওয়ায় শার্শার ১০ ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। এতে দলের নিবেদিত নেতাকর্মীদের মধ্যে হতাশা বিরাজ করছে
মো. সোহরাব হোসেন জানান, আমাকে শোকজ করেছে জেলা যুবলীগ। ২২ নভেম্বর বেলা ১২টার মধ্যে আমি জবাব দিব। কিন্তু জেলা আওয়ামী লীগ আমাকে বহিষ্কার করেছে। এটি করার কোনো এখতিয়ার তাদের নেই। কারো ইন্ধনে তারা কাজটি করেছেন। এ ঘটনায় স্থানীয় আওয়ামী লীগ বিব্রত।
এ বিষয়ে জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম চাকলাদার (রেন্টু) জানান, কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশে মো. সোহরাব হোসেনকে শোকজ করা হয়েছে। শোকজের জবাব সন্তোষজনক না হলে যুবলীগ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। তিনি তো আওয়ামী লীগের কেউ নন। শোকজের জবাব দেওয়ার সুযোগ না দিয়ে কেন তাকে বহিষ্কার করা হলো আওয়ামী লীগ নেতারা ভালো জানেন।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com