সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৫৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সুন্দরগঞ্জে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উপহার সহ, বিভিন্ন ব‍্যক্তি ও প্রতিষ্টানেের শীতবস্ত্র বিতরণ অব‍্যাহত। কালের খবর চট্রগ্রামে বন্ধুর মোটরসাইকেল জিম্মি করে ১লাখ ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি: গ্রেপ্তার ২। কালের খবর বোয়ালমারীতে ফসলি জমির মাটি কেটে ইটভাটায় বিক্রির হিড়িক! কালের খবর রাজস্ব আহরনে সবাই সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করবে বলে আমি বিশ্বাস করি : প্রধানমন্ত্রী। কালের খবর খেলাধুলার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ভাবে পরিচিতি লাভ করা যায় – স্মৃতি। কালের খবর মুরাদনগরে চলছে ফসলি জমির মাটি কাটার মহা-উৎসব। কালের খবর তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সুদের কারবারির হাতে ওষুধ ব্যবসায়ী খুন! কালের খবর প্রেসক্লাব বাসুন্দিয়ার (৫ম) প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প অনুষ্ঠিত। কালের খবর সাংবাদিক শিমুল হত্যার ৬ বছর : শুরু হয়নি বিচারকার্য। কালের খবর রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ে আনন্দমুখর পরিবেশে প্রথম বর্ষের ক্লাস শুরু। কালের খবর
অবশেষে ঐ নারীর শালিসী বৈঠকে বিষপানে আত্মহত্যা চেষ্টা। কালের খবর

অবশেষে ঐ নারীর শালিসী বৈঠকে বিষপানে আত্মহত্যা চেষ্টা। কালের খবর

আহমেদ সাজু (সখীপুর) টাঙ্গাইল, কালের খবর : টাঙ্গাইলের সখীপুরে স্ত্রীর মর্যাদা পেতে বিষের বোতল হাতে নিয়ে গত ৫দিন ধরে অনশনরত সুলতানা খাতুন (২৪) আজ সালিশি বৈঠকেই বিষ পান করেছেন। বুধবার উপজেলার দাড়িয়াপুর এলাকায় স্থানীয়ভাবে আয়োজিত এক সালিশি বৈঠকে তিনি তার সঙ্গে থাকা বোতলের বিষ মুখে ঢেলে দেন। তবে ওই নারী প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে নিজ বাড়ি ভুয়াপুর ফিরছেন বলে তার ভাই শামীম আহমেদ নিশ্চিত করেছেন। তিনি টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর উপজেলা সদরের আজগর আলীর মেয়ে। গত ৩১ জুলাই শনিবার থেকে সখীপুর উপজেলার দাড়িয়াপুর ফালু চাঁনের মাজারপাড় এলাকায় আবদুর রহিমের বাড়িতে স্ত্রীর অধিকার আদায়ের দাবিতে তিনি অনশন করছেন।

স্থানীয়রা জানান, সখীপুর উপজেলার দাড়িয়াপুর ফাইলা পাগলার মাজার এলাকার মৃত মোজাফর আলীর ছেলে আবদুর রহিম ও ভূঞাপুর উপজেলা সদরের আজগর আলীর মেয়ে সুলতানা খাতুন গাজীপুর চৌরাস্তায় একটি এনজিওতে চাকুরী করতেন। এ সময় তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরে উভয়ের সম্মতিতে ২০১৭ সালের ৩ আগস্ট ৭ লাখ টাকা দেনমোহরে তাঁরা বিয়ে করেন। গাজীপুর চৌরাস্তার ভাওয়াল কলেজ সংলগ্ন একটি বাসা ভাড়া নিয়ে তাঁরা স্বামী-স্ত্রী হিসেবে থাকতেন। কিছুদিন আগে তাঁদের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে আবদুর রহিম বাসা থেকে চলে আসেন। তাঁর ব্যবহৃত মুঠোফোনের নম্বর পরিবর্তন করে গ্রামের বাড়ি দাড়িয়াপুরে অবস্থান করছিলেন। ওই নারী আবদুর রহিমের সঙ্গে নানাভাবে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তাকে স্ত্রী হিসেবে মেনে নিতে অস্বীকৃতি জানান। ৩১ জুলাই শনিবার স্ত্রীর অধিকার আদায়ের দাবিতে কাবিননামা এবং বিষের বোতল হাতে নিয়ে স্বামীর বাড়িতে অবস্থান নেন। তাঁর আসার খবর শুনে আবদুর রহিম ও তাঁর পরিবারের লোকজন ঘরে তালা ঝুলিয়ে সটকে পড়েন। বিষয়‌টি মিমাংসার জ‌ন্যে বুধবার সখীপু‌রের দা‌ড়িয়াপুর আবা‌দি বাজার এলাকায় দুইপ‌ক্ষের লোকজন নি‌য়ে সালিশি বৈঠক ব‌সে।

বৈঠকে দাড়িয়াপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনছার আলী আসিফ, সা‌বেক চেয়ারম্যান শাইফুল ইসলাম শামীম, শিক্ষক সা‌নোয়ার হো‌সেন, ইউ‌পি সদস্য শাহীন মিয়া এবং ভূয়াপুর থে‌কে সন্দুলা ইউ‌নিয়‌নের সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম, অনশনরত সুলতানার বড়ভাই শামীম ও তাঁর প‌ক্ষের লোকজন উপ‌স্থিত ছি‌লেন। সালিশি বৈঠকে মে‌য়েকে তিন লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে উপ‌স্থিত উভয়প‌ক্ষের সম্ম‌তি‌তে তাঁ‌দের ছাড়াছা‌ড়ির সিদ্ধান্ত হয়। উভয় পক্ষ সিদ্ধান্তটি মেনেও নেয়। কিন্তু অভিযুক্ত আব্দুর রহিম একলাখ টাকা নগদ পরিশোধ করে বাকি টাকা দিতে ১০ দিনের সময় চান। হঠাৎ করে ঐ নারী বিষপান করে আত্মহত্যা চেষ্টা করে।তাকে দ্রুত সখীপুর থানা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। এবিষয়ে স্থানীয় চেয়রাম্যান আনসার আসিফ বলেন,বিষয়টি মীমাংসার জন্য পরবর্তী সময় নির্ধারণ করা হবে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com