মঙ্গলবার, ৩০ নভেম্বর ২০২১, ০৩:২৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
প্রধান শিক্ষিকার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ, তদন্ত করছে দুদক ও মাউশি। কালের খবর তাড়াশে সেচ্ছাসেবকলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত। কালের খবর যশোর সদরে ইউপি নির্বাচন ৫ জানুয়ারি। কালের খবর কুমড়া বড়ি তৈরি করতে ব‍্যস্ত তাড়াশের কারিগররা। কালের খবর বাঘারপাড়ায় নির্বাচনী সহিংসতায় চেয়ারম্যান প্রর্থীসহ আহত ২০-অফিস ভাংচুর। কালের খবর যশোর সদর হাসপাতালে দালালদের কাছে জিম্মি রোগীরা। কালের খবর উৎপাদনে নতুন ‘দেশি মুরগি’, ৮ সপ্তাহে হবে এক কেজি। কালের খবর ইউপি নির্বাচনে শাহজাদপুরের ১০ ইউনিয়নে আ.লীগের মনোনয়ন পেলেন যারা। কালের খবর যশোরের শার্শায় শোকজের জবাবের আগেই যুবলীগ নেতা বহিষ্কার! কালের খবর জাতীয় শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক মন্টুর প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত। কালের খবর
সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর পরিচালক মানবতার ফেরীওয়ালা ডাক্তার নূর উদ্দীন রাশেদ। কালের খবর

সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর পরিচালক মানবতার ফেরীওয়ালা ডাক্তার নূর উদ্দীন রাশেদ। কালের খবর

মোঃ আশরাফ উদ্দীন, চট্রগ্রাম, সীতাকুণ্ড প্রতিনিধি, কালের খবর : করোনাকালীন সময়ে সংবাদ মাধ্যমে প্রায়ই শিরোনাম হতে দেখা গেছে, চিকিৎসক না থাকা, রোগীদের নানান অসুবিধা, এমনকি বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর মত ঘটনা। আবার এই দু:সময়ে নিজের জীবন বাজী রেখে চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন অনেক চিকিৎসক। তেমনি সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর পরিচালক এক মানবিক ডাক্তার ডা.নূর উদ্দীন রাশেদ।

অন্য সময় সীতাকুণ্ড উপজেলায় অনেক বেসরকারি ক্লিনিক বা হাসপাতালে ভীড় থাকলেও করোনা কালীন সময়ে চিকিৎসকের অভাবে সেগুলো বন্ধ থাকে। ফলে সাধারন রোগীদের চিকিৎসা সেবা নিতে হিমশিম খেতে হয়। কিন্তু সীতাকুণ্ড স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ এর ব্যতিক্রম লক্ষ্য করা যায়। নিয়মিত স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ সেবা দিয়ে গেছেন বিভিন্ন ডাক্তার। তেমনি এক ব্যতিক্রমী মানবিক চিকিৎসক ডা.নূর উদ্দীন রাশেদ । যিনি করোনা কালীন সময়ে একদিনের জন্যও বন্ধ রাখেননি তার চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম।

তিনি সীতাকুণ্ড উপজেলার পরিচিত ও জনপ্রিয় ব্যক্তি ডা.নূর উদ্দীন রাশেদ । করোনাকালেও বন্ধ করেননি চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম। রোগীদের জন্য সব সময় খোলা রেখেছেন তার প্রতিষ্ঠানের আউটডোর ও ইনডোর সেবা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে রোগী দেখে চলেছেন নিয়মিত।

সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ প্রতিদিন সুষ্ঠ পরিচালনার মাধ্যমে বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের মাঝে।

চিকিৎসা সেবা নিতে আসা এক শিশুর অভিভাবক বলেন, আমার এক বছরের বাচ্চা হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েছে । তাই ডাক্তার দেখাতে নিয়ে এসেছি। এই সময়ে ডাক্তার না পেলে হয়তো আমার বাচ্চা আরও অসুস্থ হয়ে পড়ত। সেবা নিতে আসা বিভিন্ন বয়সের রোগীরা বলেন একই কথা।স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ কর্মরত কর্মকর্তারা জানায় এই করোণা কালীল সময়ে প্রথমে কাজ করতে আমাদের ভয় লাগত পরে ডা:নূর উদ্দীন রাশেদ স্যার আমাদের কে মানসিক ভাবে সাহস দিয়ে এবং আমাদের সুরক্ষা সামগ্রী দিয়ে কাজ করতে উৎসাহিত করে। আমরা সবাই নিয়মিত স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাচ্ছি। করোনাকালীন সময়ে স্যরের সাথে কাজ করে নিজেদের গর্বিত মনে করছি।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com