বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৭:৫৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
গাছে গাছে আমের মুকুল, মৌ মৌ ঘ্রাণে ব্যকুল মানুষ। কালের খবর নির্মাণ শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানাল ইনসাব। কালের খবর ভাষা দিবস পদক প্রদান গুণীজন সম্মাননা ও লেখক সম্মেলন ২০২৪। কালের খবর মুরাদনগরে কৃষি কার্যক্রম পরিদর্শনে মার্কিন দূতাবাস প্রতিনিধি। কালের খবর কুষ্টিয়ায় বাজার থেকে ক্রয় করা মাংসে মিলল পুরুষাঙ্গ ! কালের খবর চট্টগ্রামের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে অতিথি ডটকমের জমকালো ডায়মন্ড সেলিব্রেশন প্রোগ্রাম। কালের খবর শাহজাদপুরে সরিষা আনতে মাঠে যাচ্ছিলেন হাবিব, হঠাৎ বজ্রপাত। কালের খবর চোর চক্রের তিন সদস্য আটক দুটি মটরসাইকেল উদ্ধার কালের খবর টেকনাফে লক্ষাধিক ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক। কালের খবর একুশের বই মেলায় রাজু আহমেদ মোবারকের ‘সত্য সুন্দরের সন্ধানে’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন। কালের খবর
টোল নিয়ে জটিলতা দ্রুত অবসানে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হোক। কালের খবর

টোল নিয়ে জটিলতা দ্রুত অবসানে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হোক। কালের খবর

সম্পাদকীয়, কালের খবর :

গত বছরের অক্টোবরে টোল বৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে বুড়িগঙ্গা প্রথম সেতুর টোল মওকুফের দাবিতে আন্দোলনের পর টোল আদায় বন্ধ থাকলেও ওই সেতুর টোল মওকুফ করেনি সরকার।

মঙ্গলবার কালের খবরে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের আন্দোলনের প্রেক্ষাপটে সড়ক ও জনপথ বিভাগের এক কর্মকর্তার মৌখিক নির্দেশে টোল আদায় বন্ধ থাকলেও পুলিশ ও স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র নামে-বেনামে পরিবহন থেকে প্রতিদিনই বিপুল অঙ্কের চাঁদা আদায় করছে। জানা যায়, বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু বা বুড়িগঙ্গা প্রথম সেতুর টোল আদায় শুরু হয় ১৯৮৯ সালে।

বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ইজারাদার প্রতিষ্ঠান নিয়োগ করে টোল আদায় করেছে সরকার। ২০১৫ সালে বিভাগীয়ভাবে টোল আদায় শুরু করার পর সরকারিভাবে জারিকৃত নতুন নীতিমালা অনুযায়ী টোল আদায় শুরু করা হলে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকরা এর বিপক্ষে অবস্থান নেন। এরপর ২০১৭ সালের ১৫ মে নতুন টোল নীতিমালা বাস্তবায়নের জন্য নতুন ইজারাদার নিয়োগের দরপত্র আহ্বান করে সড়ক ও জনপদ অধিদফতর।

এ সময় একটি প্রতিষ্ঠান উল্লিখিত সেতু তিন বছরের জন্য ইজারা নিলে তাদের ওই বছরের অক্টোবরে টোল আদায়ের দায়িত্ব হস্তান্তর করা হয়। চুক্তির শর্ত অনুযায়ী ইজারাদার প্রতিষ্ঠান নিরাপত্তা জামানতসহ প্রথম কিস্তি বাবদ উল্লেখযোগ্য অঙ্কের টাকা পরিশোধ করলেও সড়ক ও জনপথ বিভাগের এক কর্মকতার মৌখিক নির্দেশ থাকার কারণে টোল আদায় শুরু করতে পারছে না।

ফলে বর্তমানে বুড়িগঙ্গা প্রথম সেতুর টোল আদায় নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে জটিলতা। এ জটিলতার অবসানে দ্রুত কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া দরকার। কারণ টোল আদায় বন্ধ থাকলেও পুলিশ ও স্থানীয় প্রভাবশালী চক্র পরিবহন থেকে প্রতিদিনই বিপুল অঙ্কের চাঁদা আদায় করছে।

দেশের বিভিন্ন স্থানে অনেক সেতুর টোল আদায় করা হচ্ছে বহু বছর ধরে। স্বভাবতই জনসাধারণের মনে প্রশ্ন, এসব সেতুর টোল কতদিন পর্যন্ত প্রদান করতে হবে? এ নিয়ে নানা জটিলতাও সৃষ্টি হচ্ছে।

একটি স্থাপনায় কতদিন পর্যন্ত টোল আরোপ করা হবে, সংশ্লিষ্ট নীতিমালায় এ সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট তথ্য থাকা দরকার। এতে টোল আরোপ নিয়ে জটিলতার অবসান হবে। স্থাপনার গায়ে নির্মাণ তারিখসহ অন্যান্য তথ্যের পাশাপাশি টোল আরোপের মেয়াদ উল্লেখ থাকলে এ নিয়ে অসন্তোষ বা জটিলতা সৃষ্টির আর সুযোগ থাকবে না। সেতুর টোল আদায়ের পাশাপাশি কেউ যাতে চাঁদাবাজি করতে না পারে, সেদিকেও সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে কর্তৃপক্ষকে।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com