শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
শিশু তুবা মায়ের বিয়ের খবর দেখে টেলিভিশনে। কালের খবর জুট কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড। কালের খবর ট্রাফিক পুলিশের হাতের ইশারায় গাড়ির চাকা থামে ঘোরে। কালের খবর সাংবাদিক মুজাক্কিরের হত্যাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে আলটিমেটাম। কালের খবর বাড়ছে উৎপাদন চায়ের বাজারে নতুন ‘সাদা সোনা’ ইউপি নির্বাচনে ইমানুজ্জামান পল্লবকে ‘নৌকা প্রতীক দিতে সলিমগঞ্জবাসীর উঠান বৈঠক। কালের খবর পাটুরিয়াঘাটে পরিবহণ ভাড়া নিয়ে নৈরাজ্য। কালের খবর ডেমরা ব্যাটারিচালিত নিষিদ্ধ অটোরিকশা ও ইজিবাইকের দৌড়াত্ম্য স্কুল মাঠ দখল করে ইউপি মেম্বারের বালু ব্যবসা। কালের খবর ইউএনও-র নির্দেশ উপেক্ষা আ’লীগ নেতার ফসলি জমিতে পুকুর খনন ও মাটি বিক্রি চলছে। কালের খবর
উইকেট উৎসব করেছে কুমিল্লার খেলোয়াড়রা। কালের খবর

উইকেট উৎসব করেছে কুমিল্লার খেলোয়াড়রা। কালের খবর

কালের খবর রিপোর্ট৷ঃ
উইকেট উৎসব করেছে কুমিল্লার খেলোয়াড়রা
এই বিপিএলে দ্বিতীয়বারের দেখায় আবারও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের কাছে হেরেছে সিলেট সিক্সার্স। ব্যাটিং লজ্জায় ডুবেছে তারা ঘরের মাঠে। পাঁচ ম্যাচে কুমিল্লার তৃতীয় জয় ৮ উইকেটের।

মঙ্গলবার সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নামে সিলেট সিক্সার্স। মাত্র ৬৮ রানের গুটিয়ে যায় ১৪.৫ ওভার খেলে। তারপর ১১.১ ওভারে ২ উইকেটে ৬৯ রান করে কুমিল্লা।

এই জয়ে ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের তিনে উঠে গেল কুমিল্লা। সিলেটের সংগ্রহ ৪ ম্যাচে ২ পয়েন্ট।

ম্যাচসেরা মেহেদী হাসানের অফস্পিন আর ওয়াহাব রিয়াজের পেসে বিধ্বস্ত হয় সিলেট। কুমিল্লা টস জিতে তাদের ব্যাটিংয়ে আমন্ত্রণ জানালে ২২ রানে স্বাগতিকরা হারায় ৭ উইকেট। নিজের প্রথম ওভারেই মেহেদীর শিকার ৩ ব্যাটসম্যান। আন্দ্রে ফ্লেচারকে (৪) ফিরিয়ে শুরু করা এই স্পিনার পরপর দুই বলে ফেরান ডেভিড ওয়ার্নার (০) ও আফিফ হোসেনকে (০)।

চমৎকার শুরু কাজে লাগিয়ে কুমিল্লা উইকেট উৎসব করতে থাকে। ওয়াহাবের সঙ্গে লিয়াম ডসন ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বোলিং তোপে বিপিএলের সর্বনিম্ন স্কোরের লজ্জা উঁকি দিচ্ছিল সিলেট ক্যাম্পে। নিকোলাস পুরান (০), লিটন দাস (৬), সাব্বির রহমান (৬) সবাই ব্যর্থ।

কেবল কাপালি যেতে পেরেছেন দুই অঙ্কের ঘরে। দলীয় স্কোরের প্রায় অর্ধেকটাই এসেছে এই ব্যাটসম্যানের ব্যাট থেকে। ৩১ বলে ৪ বাউন্ডারি ও এক ছক্কায় কাপালি অপরাজিত ছিলেন ৩৩ রানে।

মেহেদী ৪টি উইকেট নিয়ে কুমিল্লার সেরা বোলার। ওয়াহাব নেন ৩ উইকেট। দুটি পেয়েছেন ডসন।

লক্ষ্যে নামা কুমিল্লা শুরুতেই দুই ওপেনারকে হারায়। দ্বিতীয় বলে এনামুল হক বিজয় রান আউট হন। তার মতো খালি হাতে ক্রিজ ছাড়েন তামিম ইকবাল। তৃতীয় ওভারে এই বাঁহাতি ওপেনার আউট হন সোহেল তানভীরের বলে।

তারপর আর পেছনে ফিরতে হয়নি কুমিল্লাকে। শামসুর রহমান ও ইমরুল কায়েসের অপরাজিত ৫৯ রানের জুটিতে জয়ের বন্দরে পৌঁছায় তারা। শামসুর ৩৭ বলে ৫ চারে ইনিংস সেরা ৩৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। আর অধিনায়ক ইমরুল ৩০ রানে টিকে ছিলেন, তার ২২ বলে সাজানো ইনিংসে ছিল দুটি করে চার ও ছয়।

দৈনিক কালের খবর নিয়মিত পড়ুন এবং বিজ্ঞাপন দিন..

কালের খবর মিডিয়া গ্রুপ লিমিটেডের একটি প্রতিষ্ঠান
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com